নিন্দুকের ছড়া (সিঙ্গুর-নন্দীগ্রামের কবিতা সংগ্রহ)
*
ইকড়ি মিকড়ি চাম চিকড়ি
চাম কাটে মনমোহন,
মনমোহনের উদার বাঁশি
বুদ্ধ বাজায় অহর্নিশি |
বুদ্ধর লেজে তারাবাজি
লাগিয়ে আগুন হাসছে পুঁজি |
পুঁজির নাচন তা থই থই
বাদ্যি বাজে হা হৈ হৈ,
বাদ্যি বাজে বিশ্বায়ন,
শিল্পায়ন, উন্নয়ন |
উন্নয়নের রথের চাকা
গরিব যত পড়ল চাপা |
প্রতিবাদে প্রতিশোধ
এবার হবে অবরোধ |
চোপরাও স্পিকটি নট
নো পেছনো ইস্টপ হল্ট |

.     **************                                      
উপরে
.                    অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.             সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

*
দেশ বিদেশের আসছে পুঁজি
            বঙ্গে খুশির বান
বটঠাকুরের আপন ঘরে
            নাটুকে অভিমান |
এক শরিকে কাঁদেন টাদেন
            আরেক অজ্ঞান---
আরেক শরিক রেগে মেগে
            বানপ্রস্থে যান |

.        **************                                    
উপরে
.                    অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.             সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

*
বুদ্ধ যাবে যুদ্ধ করতে
      সঙ্গে যাবে কে ?
আলিমুদ্দিনে বিনয় বিমান
      কোমর বেঁধেছে |


.      **************                                      
উপরে
.                    অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.             সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

*
বুশের ভাগ্নে বুদ্ধদাস,
লোক মেরেছি গোটা পঞ্চাশ ;
তাতে যদি না মানে বশ,
মারবো আরো গন্ডা দশ |


.      **************                                      
উপরে
.                    অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.             সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

*
বুধু কয় বুধুনি
খাসা তোর চ্যাঁচানি,
সাথি নিয়ে ফাঁসুড়ে
হই হই শহরে |
ধন্ জয়ের ফাঁসি চাই,
ফাঁসি বিনা শান্তি নাই |

শত মেয়ের সম্ভ্রম
কাড়ে যেই লক্ষণ---
তাই যদি যুক্তি,
কী বা হবে শাস্তি !

তোর গান বুধি রে,
প্যাঁচে পড়ে গেছি রে---
লোক যদি ক্ষেপে যায়,
মোর গদি কেড়ে নেয় !

হায়, হায়, হায়, হায় |
বুক মোর ফেটে যায়---
ওরে মোর বুধুনি,
খ্যামা দে চ্যাঁচানি |


.      **************                                      
উপরে
.                    অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.             সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

*
দাদাগো ! দেখছি ভেবে অনেক দূর---
বাম জমানায় সকল ভালো,
আসল ভালো, নকল ভালো,
শ্রমিক ভালো, মালিক ভালো,
পুঁজি ভালো শ্রমও ভালো,
শ্রমিক তোষণ য্যায়সা ভালো,
মালিক তোষণ ত্যায়সা ভালো,
লড়াই ভালো, আপোষ ভালো,
লড়াই লড়াই খেলাও ভালো,
লাঠি ভালো, গুলি ভালো,
ব্যাটন হাতে পুলিশ ভালো,
আইন ভালো, শেকল ভালো,
শেকল ভাঙার সাজাও ভালো,
মজুর ভালো, কৃষক ভালো,
মজুর কৃষক মারাও ভালো,
চাষীর হাতে জমিন ভালো,
চাষীর জমি কাড়াও ভালো,
টাটা ভালো, বিড়লা ভালো,
সালিম দাদা কী যে ভালো,
শোষণ ভালো, শাসন ভালো,
পুঁজির সেবা অধিক ভালো,
কিন্তু সবার চাইতে ভালো---
পুঁজির চাট্ আর সোহাগ সুর |


.        **************                                   
উপরে  
.                    
অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.             সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

*
আজগুবি নয়, আজগুবি নয়, সত্যিকারের কথা---
পুঁজির সঙ্গে কুস্তি করে গাত্রে হল ব্যাথা |
পুঁজি ধরার ব্যাবসা করি, তাও জানো না বুঝি ?
রাঘব পুঁজি, বোয়াল পুঁজি, হরেক রকম পুঁজি |
ঢপের পুঁজি, বেঢপ পুঁজি, পুঁজি চমত্কার
পুঁজির জন্য হন্যে হয়ে খুঁজি বারংবার |
অবশেষে পেলাম পুঁজি দেশবিদেশে ঘুরে,
অমনি কারা গাইছে যে গান বেয়াড়া সুরে |

যাহার সঙ্গে কুস্তি করে গাত্রে হল ব্যথা
তাহার নবীন আগমনে জাগল প্রসন্নতা |
মোদ্দা জেনো, সমজতন্ত্র যদিও মোদের লক্ষ্য,
আপাতত পুঁজি ধর্ম, পুঁজিবাদই মোক্ষ |
দোষ দিও না কী আর করি, এটাই যুগের দাবি,
মাইরি বলছি, একদিন মোরা আনবো সমাজবাদই !


.           **************                                
উপরে  
.                   
অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.            সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

*
শুনছো দাদা, ওই যে হোথায় মার্কসবাদী এক থাকে,
সে নাকি রোজ ভোরের বেলায় পুঁজির নিপাত হাঁকে |
শুনছি নাকি বেলা বাড়ায় চিত্তের ভ্রম কাটে,
অমনি তখন মনের সুখে পুঁজির পা সে চাটে |

গদি যাবার ভয়ে তার মাথা ঘুরে যায়,
হিজিবিজি কথা বলে দু'দিক সামলায় |
(হায়!) জনের নামে পুঁজির সেবা মিলে গোঁজা দিয়ে,
হয় কি না হয় সত্যি মিথ্যা দেখো বাংলায় গিয়ে |



.            **************                               
উপরে  
.                   
অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.            সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

*
নাম ছিল মার্কসবাদী ( ব্যাকরণ মানি না )
হয়ে পুঁজিবাদী কেমনে তা জানি না |
নাম তার বুদ্ধ, তবু সে হিংস্র---
হুংকার উচ্চ, আহা সে কী দৃশ্য !

বিনয় নাইকো যার, ভাষা যার অশালীন,
বিনয় তাহারই নাম, বৃদ্ধ বিকারহীন |
তাহার তুলনা তিনিই, বুদ্ধং শরনম্---
নাহি উপমা তার, মন্ত্রী নিরুপম |

মিলুক, না-মিলুক সুকুমারি ছন্দে
নিন্দে নিন্দুক ধন্দে ও মন্দে |

.           **************                                                 
উপরে  
.                                     
অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.                              সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

*
শুনেছ কি বলে গেল ভটচায্ বুদ্ধ---
পুঁজিটার গায়ে নাকি তেতো তেতো গন্ধ |
তেতো তেতো থাকে নাকো, যদি হন তুষ্ট
তখন দেখেছি চেখে একেবারে মিষ্ট |

.           **************                                                 
উপরে  
.                                     
অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.                              সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       

নিন্দুকের ছড়া
এই ছড়াগুলি "ছড়ায় ছড়ায় ছড়রা" বইটি থেকে নেওয়া হয়েছে |
ছড়াদারের নাম "নিন্দুক" এবং বইটিতে ছড়ার সাথে অনবদ্য
কার্টুন এঁকেছেন "আরবি"
|
বইটি প্রথম প্রকাশিত হয় ২৫শে বৈশাখ ১৪১৪।
বইটির প্রকাশক "এখন বি-সংবাদ" , ৩/২৪ রাজেন্দ্র প্রসাদ কলোনী,
টালিগঞ্জ, কলকাতা ৭০০০৩৩ | প্রাপ্তিস্থান - পাতিরাম, কলেজ স্ট্রীট
এবং মহাত্মা গান্ধী রোডের সংযোগস্থল, কলকাতা |
*
.           **************                                                 উপরে  
.                                     
অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায় ফেরত
.                              সিঙ্গুরের কবিতার মূল সুচির পাতায় ফেরত       



মিলনসাগর
আমরা এই কবি এবং কার্টুনিস্ট কে
আমাদের ওয়েব সাইটের
"কবিদের
সভা"-র অন্তর্ভুক্ত করতে ইচ্ছুক | যদি
কেউ আমাদের এই
কবির
১।  জন্ম-তারিখ,
২। সংক্ষিপ্ত পরিচয়,
৩। একটি ছবি
এবং
৪। তাঁর যোগাযোগের ঠিকানা
জানান, তাহলে আমরা কৃতজ্ঞতা- স্বরূপ,
প্রেরকের নাম ঐ পাতায় উল্লেখ করবো |