স্বামী বিবেকানন্দের কবিতা ও গান
যে কোন গানের উপর ক্লিক করলেই সেই গানটি আপনার সামনে চলে আসবে।
*
    সাগর-বক্ষে

       নীল আকাশে ভাসে মেঘকুল,
শ্বেতকৃষ্ণ বিবিধ বরণ---
তাহে তারতম্য তারল্যের,
       পীত ভানু মাঙ্গিছে বিদায়,
রাগচ্ছটা জলদ দেখায় |

       বহে বায়ু আপনার মনে,
প্রভঞ্জন করিছে গঠন---
ক্ষণে গড়ে, ভাঙে আর ক্ষণে---
কত মত সত্য অসম্ভব---
জড় জীব, বর্ণ, রূপ, ভাব |

       ঐ আসে তুলারাশি সম,
পরক্ষণে হের মহানাগ,
দেখ সিংহ বিকাশে বিক্রম,
আর দেখ প্রণয়িযুগল ;
শেষে সব আকাশে মিলায় |

       নীচে সিন্ধু গায় নানা তান ;
মহীয়ান্ সে নহে, ভারত!
অম্বুরাশি বিখ্যাত তোমার ;
রূপরাগ হ'য়ে জলময়
গায় হেথা, না করে গর্জন |

.        ***************************                                    
উপরে
  সৃষ্টি
রাগ- বড়হংস সারঙ্গ, চৌতাল


একরূপ, ওরূপ-নাম-বরণ, অতীত-আগামী-কাল-হীন,
দেশহীন, সর্বহীন, 'নেতি নেতি' বিরাম যথায় |
সেথা হ'তে বহে কারণ-ধারা,
ধরিয়ে বাসনা বেশ উজালা,
গরজি গরজি উঠে তার বারি
'অহমহমিতি' সর্বক্ষণ |

সে অপার ইচ্ছা-সাগর-মাঝে,
অযুত অনন্ত তরঙ্গ রাজে
কতই রূপ, কতই শকতি,
কত গতি স্থিতি কে করে গণন |

কোটি চন্দ্র কোটি তপন,
লভিয়ে সেই সাগরে জনম,
মহাঘোর রোলে ছাইল গগন,
করি দশদিক্ জ্যোতি গমন |

তাহে বসে কত জড় জীব প্রাণী,
সুখ দুঃখ জরা জনম মরণ,
সেই সূর্য তারি কিরণ, সেই সূর্য সেই কিরণ ||

.        ***************************                                    
উপরে
প্রলয় বা গভীর সমাধি
রাগ- বাগীশ্বরী, আড়াঠেকা


নাহি সূর্য, নাহি জ্যোতিঃ, নাহি শশাঙ্ক সুন্দর,
ভাসে ব্যোমে ছায়াসম ছবি বিশ্ব চরাচর |
অস্ফুট মন-আকাশে, জগত-সংসার ভাসে,
ওঠে ভাসে ডোবে পুনঃ অহং-স্রোতে নিরন্তর |
ধীরে ধীরে ছায়াদল, মহালয়ে প্রবেশিল,
বহে মাত্র 'আমি' 'আমি' --- এই ধারা অনুক্ষণ |
সে ধারাও বদ্ধ হ'ল, শূণ্যে শুণ্যে মিলাইল
'অবাঙমনসোগোচরম্' বোঝে--- প্রাণ বোঝে যার |

.        ***************************                                    
উপরে
শ্রীরামকৃষ্ণ-আরাত্রিক ভজন
রাগ- মিশ্র কল্যাণ, তাল ফেরতা (চৌতাল, তেতাল একতালা)


খণ্ডন-ভব-বন্ধন, জগ-বন্দন, বন্দি তোমায় |
নিরঞ্জন, নররূপধর, নির্গুণ গুণময় ||
মোচন-অঘদূষণ জগভূষণ, চিদঘনকায় |
জ্ঞানাঞ্জন-বিমল-নয়ন, বীক্ষণে মোহ যায় ||
ভাস্বর ভাব-সাগর চির উন্মাদ-প্রেম-পাথার |
ভক্তার্জন-যুগলচরণ, তারণ-ভব-পার ||
জৃম্ভিত-যুগ-ঈশ্বর জগদীশ্বর, যোগ-সহায় |
নিরোধন, সমাহিতমন, নিরখি তব কৃপায় ||
ভঞ্জন-দুখগঞ্জন করুণাঘন, কর্মকঠোর |
প্রাণার্পণ-জগত-তারণ, কৃন্তন-কলিডোর ||
বঞ্চন-কামকাঞ্চন, অতি নিন্দিত-ইন্দ্রিয়রাগ |
ত্যাগীশ্বর, হে নরবর! দেহ পদে অনুরাগ ||
নির্ভয়, গতসংশয়, দৃঢ়নিশ্চয়-মানসবান্ |
নিষ্কারণ-ভকত-শরণ, ত্যাজি জাতি-কুল-মান ||
সম্পদ তব শ্রীপদ, ভব গোষ্পদ-বারি যথায় |
প্রেমার্পণ সমদরশন, জগজন-দুঃখ যায় ||

.        ***************************                                    
উপরে
প্রবুদ্ধ ভারতের প্রতি

উঠো, জাগো, স্বপ্ন নহে আর |
স্বপন-রচনা শুধু ভবে---
কর্ম হেথা গাঁথে মালা যার
নাহি সূত্র, বৃন্তমূলহীন
ভালো-মন্দ পুষ্প ভাবনার,
জন্ম লভে, গর্ভে অসতের,
সত্যের মৃদুল শ্বাসে ধায়
আদিতে যে শূণ্য ছিল তায়!
অভী হও, দাঁড়াও নির্ভয়ে
সত্যাগ্রহী, সত্যের আশ্রয়ে,
মিশি সত্যে যাও এক হয়ে,
মিথ্যা কর্ম-স্বপ্ন ঘুচে যাক---
কিংবা থাকে স্বপ্নলীলা যদি,
হেরো সেই, সত্যে গতি যার,
থাক স্বপ্ন নিষ্কাম সেবার
আর থাক প্রেম নিরবধি |

.     *********************                                            
উপরে