কবি অমিতাভ চৌধুরীর ছড়া
*
কবি অমিতাভ চৌধুরী

আমেরিকা আজব দেশ
সকল দেশের চেয়ে
সেথা কল টিপলে
খাবার আসে
চোখ টিপলে মেয়ে

.  *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
কবি অমিতাভ চৌধুরী

ইকড়ি মিকড়ি
চাম চিকড়ি
চল চল সুমিত
ফতেপুর সিক্রি।
ফতেপুর সিক্রির
বুলঅন্দ দরজা
দেখতেই বলল---
“ঘর যা ঘর যা।”
“ঘর যা” বলতেই
ছু-ছু মন্তর
সামনেই সুমিতের
যন্তর মন্তর।
যন্তর মন্তর
করল বিক্রি
ইকড়ি মিকড়ি
চাম চিকড়ি

.  *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
কবি অমিতাভ চৌধুরী

নুন-সাহেবের ছেলে তিনি
সত্যজিতের নায়ক,
অভিনয়ে ছাড়েন তিনি
ফাস্টোকেলাস শায়ক।
কখন তিনি অপুবাবু
কখন তিনি ফেলুদা,
মাঝে মাঝে পদ্য লেখেন
যেন পাবলো নেরুদা।

.    *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
কবি অমিতাভ চৌধুরী

দোয়াত আছে পেন নাই
তাই চললাম চেন্নাই।
পরে গেলাম মুম্বাই
জেগে থাকি ঘুম নাই।
দৌড়ে গেলাম দুড়ুম্
তিরুবনন্তপুরম।
ক্যালকাটা নয়, কলকাতা
বন্ধ করি এই খাতা।
গৌহাটি আজ গুয়াহাটি,
ছড়া শেষ, ফাটাফাটি।

.    *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
কবি অমিতাভ চৌধুরী

কে বলেছে সুনামি,
আসলে সে কুনামী
জাপানি জলকম্প
মরণফাঁদে ঝম্প।
শ্রীলঙ্কার অংশ
আন্দামানও ধ্বংস।
চেন্নাইয়ে হাত বাড়ায়
বাংলায় সে এসে দাঁড়ায়।
চতুর্দিকে জলের বলয়
একেই বুঝি কয় প্রলয়।
তারপরেতে অন্যজন
তাতেও হলো বিপদ ভীষণ
তার নামটি আয়লা।
আগেরটা যদি হয় মজনু
পরেরটা হয় লায়লা।

.    *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
কবি অমিতাভ চৌধুরী

আকুড় বাকুড় চালতা বাকুড়
কোথায় গেলেন রবি ঠাকুর?
কোথায় গেল পদক সোনার
নোবেল প্রাইজ ঘরে আনার?
শান্তিকেতন বিরস বদন
খালি এখন রবির সদন।
মিথ্যে খোঁজা, ঘোরাঘুরি
তিনি গেছেন নিজেই চুরি।
কিছু আদর, কিছু শো,
এখন সেথায় আদর্শ।
বৈশাখের এই পঁচিশে
রইলো না অছি সে।

.    *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
কবি অমিতাভ চৌধুরী

বল নিয়ে তাঁর ছেলেখেলা
.        গোলীর মাথা হেঁট.
লাইন পেরিয়ে বলের গোলা
.        ছিঁড়ে ফেললো নেট।
.        আয়রে আমার মারাদোনা
বল্ ছটছে তুই ছটছিস---
.        যেন বিশাল জেট।

.       *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
কবি অমিতাভ চৌধুরী

১লা বসে একা একা ভাবছ তুমি কী,
২-যে ২-য়ে কার কত দুধ বানায় খাঁটি ঘি?
৩ ভূবনের পারে তবে যাবার হেতু নেই,
৪ দিয়ে মাছ ধরার জন্যে নাচের ধেই ধেই।
৫ মুখে প্রশংসার বাণী সুপ্রচুর,
৬ লাপ হয়ে আছে কাছে আর দূর।
৭ তাড়াতাড়ি চলো নয়তো দেব ধিক্।
৮ ঘাট বেঁধে কাজ করা চাই ঠিক ঠিক।
৯ নয় করে যদি পৌঁছতে ঠিক পারো
১০ কুশি তালে তালে নাচো আর ছাড়ো।

.             *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
জাপানি ছড়া
কবি অমিতাভ চৌধুরী

নাগাসাকি বাড়ি তার
.        এক ছিল জাপানি
আয়েসে চুমুক দিয়ে
.        খাচ্ছিল চা-পানি।
হঠাৎ উঠল তার  
.        হাঁপ ধরা হাপানি।
পেয়ালাটা ছুঁড়ে ফেলে
.        কী ভীষণ লাফানি।
ভেউ ভেউ কেঁদে বলে---
.        “নিকাকুরু নাপানি,
আরিগোতো গোজামাস
.        ফামাহিতো তাপানি।”

.        *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
কবি অমিতাভ চৌধুরী

সাহিত্য আর রাজনীতির বই
বলুন দেখি, কাজে লাগছে কই ?
.        এই পড়ছি পঞ্জিকা
.        তাই টানছি গঞ্জিকা
আমরা প্রাচীন শাস্ত্র মেনে রই।

.         *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর