কবি বীতশোক ভট্টাচার্যর কবিতা
www.milansagar.com
*

.            *************   
.                                                                                         
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*

.            *************   
.                                                                                         
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
ধোঁয়া উঠছে, তেল নেই, বাতাসে পোড়া পলতের গন্ধ
প্রদীপগুলো বিশ্রী হয়ে গেল ভাবলে দুঃখ হয়
ভাবলে দুঃখ হয় কেমন ছিল সেসব আলো
আমরা দুজন দাঁড়িয়েছিলাম ভেসে যাওয়া প্রদীপগুলোর দিকে চেয়ে
আরতির ঘন্টা বাজছিল
মাছগুলো ঘুমিয়ে পড়েছিল
পথ বেঁকে গিয়েছিল আকাশগঙ্গার দিকে
আমার ভয় লাগছিল
আমি অন্ধকারের দিকে তাকাতে পারছিলাম না
কত তাড়াতাড়ি বেড়ে গেল অন্ধকারের রেখা
কত তাড়াতাড়ি মরা শামাপোকার পাশে জমে গেল নেবা প্রদীপ
আমি কি করে এখন তোমার চোখের দিকে তাকাব
অন্ধকারে

.                *************   
.                                                                                         
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*

.                *************   
.                                                                                         
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
গোধূলি মানে কি পাটল গাভীর ফেরা

শ্যামলী গাভির মতন গভীর মেঘে
ঢেকে যায় মেঘ, নদীতীর পিছুটানে
কালো হয়ে আছে---- আরো কালো ঢেউ জেগে
ঘুমিয়ে পড়েছে---- তার স্বপ্নের মানে


কিছু কিছু জানে পিছু-ধাওয়া বিদ্যুৎ
তার-ও পিছনে হাওয়ার সমস্বর
তার-ও পিছনে তোমার ঝালার দ্রুত
তুমি কিছু জানো জানোই না ঈশ্বর

.             *************   
.                                                                                         
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
হোন শ্রীমতী লুপ্তলেখন  পটে পুঁথির পাতে ------
ভারালস তাঁর শ্রোণী সে বেশ উদার সাক্ষ্যবহ :
চিমসে পাছার নাচনে হও যক্ষিণী যে হও |


আঁটুল বাঁটুল শামলা সাঁটুল ওদের সঙ্গে মিশে
তুমি বেজায় ভুল করছো  | শামলা যায় হাটে ;
শামলাদের ছেলেগুলো পথে বসে :  কাঁদে |
ছোলাভাজার লোভ, আছাড়ের ভয়ের থেকে হেসে
রেগে উঠুক সন্ততিরা :  বাছাই করা লেখাই
নির্বাচিত বন্ধু যেন, প্রত্যাহার কী শেখায় |

.             *************   
.                                                                                         
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
ভারসমতায় যেন ধ্বসে যেতে হয় জেনে বসানো পাথরে |

তাহলে জলের মেয়ে, তার সেই মানুষ নেই আজ ;
তাহলে সে জল নেই ফুলে ফুলে বুক ফেটে গিয়ে ;
নুড়িতে রোদের রং, আর শেওলা অগোপন পাথরের গায় :
তাহলে পিছল হাত ভালোবাসে ওই কারুকাজ |
ওই মূর্তি ভেঙে পড়ে ভুলে-যাওয়া সীমায় এগিয়ে ;
ঝিরিমিল স্তব্ধ জল সরে যায় আধাডোবা পাতার উপরে ;
টুকরো মেঘ ভাঙছে, আর স্মৃতিময়তায়---
টুকরো পাথরে ব’সে, পা রেখেছে ছড়ানো পাথরে |

.             *************   
.                                                                                         
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
পাখির ছানার চেয়ে জিরজিরে,
বাচ্চাটার মুখে মাই গুঁজে দিয়ে
তোমরা বোলো না কথা, তোমরা
ভেঙে যাবে | চোখ তুলে চাইলে
তিনি যশোমতী নন, এমনকি তি
এখন ক্যামেরা তুলি চেটেপুটে খা
ভেঙে পড়তে পারেন না অবাধ্য
তিনি পুরস্কার-জেতা তৃতীয়-বিশ্বে
চিত্র
বীতশোক ভট্টাচার্য

বউটির মনে আছে সূর্য উঠলে
ঘোমটা খসেছে আর আঁচল উড়
ঝিনুক তুলছে আর তুলছেই, তা
দেমাকি চিবুক তুলে বলেছিল :

বাড়ি ফিরে একদিন ঝমঝম ভে
কৌটো খুলে দেখেছে সে জমে
বড়ো এক ফোঁটা জল অজান্তেই
সেই থেকে মুক্তো নিজে, তাকে
মুক্তি
বীতশোক ভট্টাচার্য
     
দেওয়ালি
বীতশোক ভট্টাচার্য
  
তুমি কী হৃদয়ে এসে
বীতশোক ভট্টাচার্য

তুমি কী হৃদয়ে এসে তৃপ্ত, হয়ে
আমি চিত্রকল্প চাই, ছিন্নপট তুলে
সন্ধ্যার এসেছে আভা, যেন যাকে
প্রবেশপ্রবণ তুলে ধরলো তৃপ্ত মু
ডুবে গিয়ে চেয়ে আছে, কোথায়
ভেসে যায়, আর ওই বউডোবা
শ্বাসরুদ্ধ হয়ে আছে অসমাপ্ত সৃ
তুমি কী ওখানে এসে তৃপ্ত হয়ে
কুটো উড়ে চলে রঙি
তোড়ে জল পড়ে খো
পাথরে সমূহ সময়ের
পাথর পাথর, জল কি
পাথর পাথর, তুমি কি
ডানা মেলে আছো এ
এ-নদীর শেষে মোহা
শীতে নেমে যেত গরু

আর হাঁসের ঝাঁক ও
উপত্যকাও চলেছে
গিরিপথে যত সভ্যতা
তত বেড়ে ওঠে ধাপে

তত বেড়ে ওঠে ঘাসে
আলো আছে নাকি আ
আকাশ চলেছে তমসা
না কালপুরুষ কুকুর

কেউ পারবে না ফেরা
দাঁড়িয়ে আছেন ---- দি
চোখ যায় তাঁর কোন্
ঢেউ
বীতশোক ভট্টাচার্য
    
কবিবন্ধুকে
বীতশোক ভট্টাচার্য
    
টুকরো পাথরে বসে পা রে
টুকরো মেঘ ভাঙছে আকা
এক ঢেউ থেমে আছে পিছ
ঝিরি-মিল স্তব্ধ জল সরে যা
এ সময় তাকা যাক তোমার
এ সময় দেখা যাক একথাক
ভার মহুলের গাছ, তেলরং
তবে আরো দূরে এসো, এসো

হঠাৎ ফিরিয়ে মুখ, কার সা
হঠাৎ ঝিকিয়ে দুল, তার প
হঠাৎ ছিনিয়ে রোদ নেমে
পাল্টানো বসার ভঙ্গি, ফিরে
শাড়ির পাথর ভাঁজে চাপা
পা রেখেছো পায়ের উপরে
হাঁটুতে হাতের ভর আর হা
জলকন্যা
বীতশোক ভট্টাচার্য