কবি বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের কবিতা
যে কোন কবিতার উপর ক্লিক করলেই সেই কবিতাটি আপনার সামনে চলে আসবে।  www.milansagar.com
.             
অথ মন্ত্রী কথা      
অনুভব        
অন্ন বাক্য অন্ন প্রাণ অন্নই চেতনা      
অমর আশা     
আকাল     
আমার      
আমার ভারতবর্ষ     
আমার মা যখন মাটিতে মুখ থুবড়ে       
আমার সন্তান যাক প্রত্যহ নরকে      
আয় কালবৈশেখী হাওয়া, উড়িয়ে নে        
আর এক মহিষাসুর    
আশ্চর্য ভাতের গন্ধ     
ইনি বলেন, মানুষ হ      
উত্তরপাড়া কলেজ : হাসপাতাল         
উদ্বাস্তু       
উলঙ্গের স্বদেশ         
এই নরকে     
এই স্বাধীনতা প্রাণহীন       
একটি অসমাপ্ত কবিতা      
একটি আত্মার শপথ       
একটি পুরানো চীনা কবিতা     
একদিন মাকে দিয়েছিলাম দোষ     
একলা জেলে বন্দী তিনি        
এখন সন্ধ্যা নেমেছে      
এদিনে মানুষ নাম         
এমন একটা পৃথিবী চাই      
ওলাবিবি     
কবিতা পরিষদের ‘বইমেলা’য়       
কালনাগিনী পদ্মা রে      
কালো রাত কাটে না      
ক্রোধ যা অগ্নির মতো        
ক্ষুদিরামের ফাঁসি    
গান    
গুলি চলছে    
ঘর ফুটপাথ আহার বাতাস     
ঘুমন্ত পুত্রের শিয়রে দাঁড়িয়ে      
চিড়িয়াখানা      
জননী জন্মভূমিশ্চ     
জন্মভূমি আজ      
ঠাকুরপুকুর হাসপাতালে      
তার ঘর পুড়ে গেছে       
তিন পাহাড়ের স্বপ্ন      
তোমার মুখ       
তোর কি কোনো তুলনা হয় ?       
দেয়ালের লেখা        
নীরেন, তোমার ন্যাংটো রাজা       
নীল কমল লাল কমল      
ন্যাংটো ছেলে আকাশ দেখছে       
ন্যাংটো ছেলে আকাশে হাত বাড়ায়       
পাতাঝরা গাছেদের গান     
পাথরে পাথরে নাচে আগুন     
পাহাড় পাহাড় পাহাড় রে     
পিকাসোর জন্য       
পূর্বদেশ        
পৃথিবী ঘুরছে      
প্রতিবাদ       
প্রভাস      
ফুটপাথের কবিতা : এক          
ফুটপাথের কবিতা : দুই          
বক্তৃতা বাবু     
বর্ষা      
বেকার জীবনের পাঁচালি       
ভাগ্যি ছিলেন তিনি     
ভারতবর্ষ এবং গোপালের মা      
ভালোবাসলে হাততালি দেয়     
ভিসা অফিসের সামনে      
ভূতপত্রীর দেশে      
মহাদেবের দুয়ার    
মহান নেতৃবৃন্দ    
মাইকেলের সমাধি      
মানুষখেকো বাঘেরা বড় লাফায়       
মানুষরে তুই সমস্ত রাত জেগে     
মানুষের নামে        
মিছিলে    
মুখে যদি রক্ত ওঠে      
মুখোশ             
মুখোশ ২       
মে-দিন : একটি স্বপ্ন      
মে-দিনের স্বপ্ন     
যতীন দাসের ফটো        
যুদ্ধের বিরুদ্ধে      
রাজা আসে যায়       
রাজায় রাজত্ব করে      
রাত ভোর আগুন জ্বেলে      
রাস্তা কারও একার নয়      
রাস্তায় যে হেঁটে যায়       
রুটি দাও              
লাল টুকটুক নিশান ছিল      
লেনিন শুধু লেনিন বলে লোকে       
শান্তি, ওঁ শান্তি     
শীত     
শীত      
সেই মানুষটিকে যে ফসল ফলিয়েছিল    
স্থির চিত্র                       
স্বদেশপ্রেমের দীপ্ত মহিমায়      
স্বপ্নে আমি দেখেছিলাম তাকে      
হওয়া না-হওয়ার গল্প      
হাট্টিমা টিম্ টিম্     
হাতি হাতি হাতি রাজ্যপালের নাতি     
হাসে দ্বারকার পথে ঘাটে ভাড়াটে জল্লাদ      
হোক পোড়া বাসি ভেজাল-মেশানো রুটি      


মিলনসাগর
.
১।
২।
৩।
৪।
৫।
৬।
৭।
৮।
৯।
১০।
১১।
১২।
১৩।
১৪।
১৫।
১৬।
১৭।
১৮।
১৯।
২০।
২১।
২২।
২৩।
২৪।
২৫।
২৬।
২৭।
২৮।
২৯।
৩০।
৩১।
৩২।
৩৩।
৩৪।
৩৫।
৩৬।
৩৭।
৩৮।
৩৯।
৪০।
৪১।
৪২।
৪৩।
৪৪।
৪৫।
৪৬।
৪৭।
৪৮।
৪৯।
৫০।
৫১।
৫২।
৫৩।
৫৪।
৫৫।
৫৬।
৫৭।
৫৮।
৫৯।
৬০।
৬১।
৬২।
৬৩।
৬৪।
৬৫।
৬৬।
৬৭।
৬৮।
৬৯।
৭০।
৭১।
৭২।
৭৩।
৭৪।
৭৫।
৭৬।
৭৭।
৭৮।
৭৯।
৮০।
৮১।
৮২।
৮৩।
৮৪।
৮৫।
৮৬।
৮৭।
৮৮।
৮৯।
৯০।
৯১।
৯২।
৯৩।
৯৪।
৯৫।
৯৬।
৯৭।
৯৮।
৯৯।
১০০।
১০১।