রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গল কাব্য
কবি রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গলের পরিচিতির পাতায় . . .
রূপরামের ধর্মমঙ্গল কাব্যের সূচি
কেহ বলে ঝাঁপ দিব সাগরের জলে |
এহেন সুন্দর স্বামী পাব কোথা গেলে ||
দারিদ্র আমার স্বামী বিশেষ যন্ত্রণা |
আর সখী বলে সই মোর স্বামী কানা ||
হাথ ঠারে কথা কহি নাই বুঝে পতি |
কুবচনে কালি হৈল কাঞ্চন মূরতি ||
আর যুবতী বলে দিদি বুড়া ভাতার কাল |
পাকা পনস কোলে যেন ঘুমায় শৃগাল ||
না জানি কপাল দোষে মোর স্বামী বুড়া |
ঘটকালি কব়্যাছিল নির্বংশিয় খুড়া  ||
এমন নাগর পাল্যে কোলে কাঁখে রাখি |
সদত মনের মত রসকথায় থাকি ||
পদ্মমুখী সখী বলে যৌবন হৈল ঐরি |
কুজ ভাতার কুএর গোড়া ঐ দুখে মরি ||
সর্বাঙ্গে সুন্দর স্বামী পৃষ্ঠে বড় কুঁজ |
কানের কাছে মৌএর বাসা সদাই পড়ে পুঁজ ||
আর যুবতী বলে দিদি শুন মোর বাণী |
মনের মত স্বামী বটে দুই চক্ষে ছানি ||
খাত্যে শুত্যে হাথে ধব়্যা সদাই হয় নিতে |
মিছা গেল অর্ধেক যৌবন এই রীতে ||
লাস বেশ নাপান করিব আর করে |
এমন দুর্লভ জন্ম আর নাঞি হবে ||
তরুতলে এমন নাগর যদি পাই |
এখনি আঁচলে বান্ধ্যা বনে চল্যা যাই ||
আর সখী বলে শুন সাঙ্গাতিনী সই |
বিষম আমার লাজ হইল দেশ বই ||
সই সাঙ্গাতিনী ঘর না যাই দিবসে |
গেঁড়া ভাতার ঢেঙ্গা মাগু লোকে দেখ্যা হাসে ||
আর সখী বলে সই এমন স্বামী ভাল |
গোদা ভাতার দেখ্যা মোর বরণ হৈল কাল ||
সদা মাথা ব্যথা করে গাএ আইসে জ্বর |
এ রূপ যৌবন গেল কিবা আর ঘর ||
আর সখী বলে সই মোর পতি বুড়া |
কথায় কন্দল বাজে বুড়া কুএর গোড়া ||
মনোজ আগুনে সখি সদাই পুড়্যা মরি |
হেন স্বামী কাটিয়া বাশুলি পূজা করি ||
কেহ বলে জীবন যৌবন বয়্যা যায় |
এখনি চিন্তিব আমি এহার উপায় ||
কহিতে কহিতে কেহ বিবসন হয় |
নাপান করিয়া হাসে নাঞি লাজ ভয় ||
কেহ মনে যুক্তি করে যে করে গোসাঞি |
যাইব এহার সঙ্গে ঘরে কাজ নাঞি ||
ভাল বরে বিভা যদি দিত বাপ মা |
এতদিনে তিন ছেলে কোলে হৈত বা ||
কেহ বলে ঘরে যাত্যে নাই সরে মন |
চারি দন্ড লাউসেনে করি নিরীক্ষণ ||
কেহ বলে কি করিয়া করিব সম্ভাষ |
হরিণী চঞ্চল পায়্যা বসন্তের বাস ||
বিধি কেন রচিল কুকিল পূর্ণমাসী |
সংশয় জীবন হৈল সেইরূপ বাসি ||
কাল হৈল জীবন যৌবন পরাধীন |
এইরূপে কল্পনা বঞ্চিব কত দিন ||
লাউসেনে দেখ্যা সবে যৌবনে বিকল |
দ্বিজ রূপরাম গান ধর্মের মঙ্গল ||
এক মনে শুন সভে ধর্মের কথন |
দুমন করিলে দুঃখ দৈবের কারণ ||
শিবা বারুই-র বৌ নয়নী নাম ধরে |
লাউসেনের রূপ দেখ্যা চিন্তিল অন্তরে ||
এখনি ভুলাতে পারি এই মহাজন |
বিরস বাসিব বই সাঙ্গাতিনীগণ ||
লাস বেশ এখনি করিব গিয়া ঘরে |
তবে ভুলাইয়া লব এ দুই নাগরে ||
এত যদি মনে যুক্তি করিল নয়নী |
প্রবন্ধে বচনে বলে শুন সাঙ্গাতিনী ||
পরের পুরষ সই শিমুলের ফুল |
এহারে দেখিয়া সভে হয়্যাছে আকুল ||
আকাশে নাহিত বেলা হইল উছুর |
ঘরে গেলে কি বলিবে শাশুরী শ্বশুর ||
জয় হেতু ঘাটে কেন এত বিলম্বন |
ননদিনী এখনি বলিবে কুবচন ||
কথায় কথায় বেলা হয়্যাছিল কালি |
ডাকাডাকি গোদা স্বামী দিয়াছিল গালি ||
চল সভে কলসী লইয়া ঘর যাই |
পরের বদন চায়্যা মিছা দুঃখ পাই ||
এত বলি নিল সভে জলের কলসী |
আপনার ঘর পাইল পরম রূপসী ||
শিবা বারুই-র বৌ হরিপালের ঝি |
মনে করে নয়নী এহার যুক্তি কি ||
বৈদেশী কুমার বিনে না রয় পরাণ |
বিলক্ষণ বেশে যাব তার বিদ্যমান ||
বিরলে বলিব হিত উপদেশ বাণী |
ভুলাইয়া বৈদেশীরে আনিব আপনি ||
কটাক্ষে ভুলাতে পারি কামরিপু জন |
আপনি বারুই বউ বেশে দিল মন ||
সুবর্ণ গিলিপে ছিল অপূর্ব চিরণি |
নানা পরিবন্ধে কেশ আঁচড়ে আপনি ||
আঁচড়িয়া কুন্তল করিল সমতুল |
বিনোদ করিয়া বান্ধে পুরটের ফুল ||
কাঞ্চন পাটের থোপ বান্ধিল কবরী |
মদন মল্লিকা মাল মকরন্দ ঝুরি ||
কবরীর উপরেতে মনুহর জাদ |
সারাদিন দেখিতে মনের গেল সাধ ||
নয়ান ভরিয়া পরে মোহন কাজল |
ঢলঢল করে কাল সাপের গরল ||
কপালে সিন্দুর পরে পতঙ্গ উদয়|
চন্দন চন্দ্রিমা তথি কাছে কথা কয় ||
তার কোলে কোলে শোভা করে তারাগণ |
ঈষত কালির বিন্দু দিল বিচক্ষণ ||
একু ঠাঁই রবি শশী তারাগণ তথা |
জলদ অঙ্কুর কোলে বিজলির লতা ||
লাউসেন দেখিয়া ধরিতে নারে মন |
প্রতি অঙ্গে পরে রামা অপূর্ব ভূষণ ||
টাড় বালা পাসুলি বউলি শোভা করে |
পরিপূর্ণ বাজুবন্ধ শঙ্খের উপরে ||
অঙ্গুলে অঙ্গুরী পরে নাকে নাকচনা |
অকলঙ্ক শশী যেন চঞ্চল বরণা ||
কনকের হার গলে লুটে পয়োধরে |
তার কাছে রসকাঁটি বড় শোভা করে ||
দোসতি তেসতি পরে শতেশ্বরী হার |
পুরট পর্বতে যেন জাহ্নবীর ধার ||
বড় সাধে শঙ্খের উপর দিল চুড়ি |
তার কোলে রাঙ্গারুলি শোভা করে বড়ি ||

.      ******************      
.                                                      
জামতিপালার পরের পৃষ্ঠায় . . .  
.                                                                      
পাতার উপরে . . .   


মিলনসাগর
১    বন্দনা  পালা     
.          
গনেশ বন্দনা    
.          
ধর্ম্ম বন্দনা    
.          
ঠাকুরাণী বন্দনা     
.          
চৈতন্য বন্দনা    
.          
সরস্বতী বন্দনা     
.          
বিপ্র বন্দনা      
.          
দিগ্ বন্দনা    
২   
আত্মকাহিনী    
৩   
স্থাপনা পালা    
৪    
আদ্য ঢেকু পালা    
.           
গজেন্দ্র মোক্ষণ    
৫    
রঞ্জার বিবাহপালা     
৬   
লুইচন্দ্র পালা     
৭   
শালেভর পালা    
৮   
লাউসেনের জন্মপালা      
.            
পরিশিষ্ট, জন্মপালা      
৯   
লাউসেন চুরিপালা    
১০
আখড়া পালা     
১১
ফলানির্মাণ পালা     
১২
মল্লবধ পালা      
১৩
বাঘজন্মপালা     
১৪
বাঘবধ পালা      
১৫
জামতি পালা      
১৬
গোলাহাটপালা      
১৭
হস্তিবধপালা      
১৮
কাঙুরযাত্রাপালা      
১৯
কলিঙ্গাবিভাপালা     
২০
লৌহগন্ডারপালা       
২১
কানড়াবিভাপালা      
২২
অনুমৃতাপালা     
২৩
ইছাইবধপালা     
২৪
অঘোরবাদলপালা     
২৫
জাগরণপালা     
২৬
স্বর্গারোহণপালা     
জামতি পালার আগের পৃষ্ঠায় . . .
রূপরামের ধর্ম্মমঙ্গল
জামতি পালা
পৃষ্ঠা -