রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গল কাব্য
কবি রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গলের পরিচিতির পাতায় . . .
রূপরামের ধর্মমঙ্গল কাব্যের সূচি
কালচিতি বারণ সাজিল বাগরায় |
গোউড় দরবারে যার নাম লেখা যায় ||
রণসিংহ রণজিতা মেঘা রণজয় |
সংহতি সর্দার সিংহ শিষ্য রাজ্যময়||
বিল্বা ডোম সাজে কালু ডোমের ভাগিনা |
পঞ্চাশ মোহর লিখে যাহার মাহিনা ||
বীর বেড়াজাল সাজে শাখা সুখার মামা |
জরাসিন্ধু সম ঢালী ঈষত উপামা ||
তের দলুই সাজন করিয়া বেগে যায় |
জোহার করিল গিয়া রাউতের পায় ||
কালু বলে না সয় হেথায় বিলম্বন |
মহিম জিনিতে চল কাঙুর ভুবন ||
কর্পূর দল বান্ধি দিব শূকর-বন্ধনে |
কালুর বচন শুনি বলে লাউসেনে ||
জনক জননী কাছে মাগিব বিদায় |
আপনি অনাদ্য তবে হব বরদায় ||
কহিতে বলিতে সেন করিল গমন |
জন্মদাতা সমুখে সত্বর দরশন ||
প্রণাম করিয়া সেন বলে সমাচার |
কাঙুর মহিম যাব গন্ডকীর পার ||
লক্ষ টাকার বিলাত রাজার ক্ষেম খাই |
তুমি আজ্ঞা করিলে কাঙুর গড় যাই ||
কর্ণসেন বলে বাপু শুন মোর বাণী |
বিদায়ের কথা কিছু আমি নাঞি জানি ||
তোমা হেতু রঞ্জাবতী শালে ভর দিল |
তার আজ্ঞা হৈলে যাহ নিশ্চয় কহিল ||
পিতার বচন শুনি মলিন বদন |
মায়ের সমুখে গিয়া দিল দরশন ||
জোড়হাথে করিল জননী প্রদক্ষিণ |
প্রণিপাত চরণে হইল বার তিন ||
আজ্ঞাবাণী তোমার আশিস যদি পাই |
রাজ আজ্ঞা হইল কাঙুর গড় যাই ||
মল্ল আর শার্দূল বধিলু মাণিকরাজ |
ততোধিক এহাকে হইল মোর লাজ ||
আজ্ঞা কর আপনি কাঙুর গড় জয় |
যুগে যুগে তোমার মহিমা যেন রয় ||
মন দিঞা শুন মাতা জয়মুনি ভারথ |
অবধানে কর্পূরে পড়াই সব তত্ত্ব ||
লঘুপতি কর্পূর আনন্দে মন দিল |
অপরঞ্চ রাজ্যভার তোমারে সঁপিল ||
পুত্রভাব সমান প্রজার তত্ত্ব নিবে
সম্বল না থাকে যদি ঘরে হৈতে দিবে ||
পুত্রের বচন শুনি রঞ্জাবতী কয় |
কাঙুর মহিম সেহি বড়ই প্রলয় ||
শুনিয়াছি কাঙুর গন্ডকী ব্যবধান |
পরাজই আপনি মান্ধাতা মঘবান ||
যম পরশিতে নারে গন্ডকীর জল |
সতন্তর অনেক দিবস কর্পূরধল ||
বারভূঞা সঙ্গে হানা দিল গৌড়েশ্বর |
একবারে সাত লক্ষ গেল যমঘর ||
না যাহ না যাহ বাপু দুরন্ত কাঙুর |
বচন বলিতে প্রাণ করে দুরদুর ||
তোমার বয়স হৈল আঠার বত্সর |
কার বোলে হৈলে তুমি রাজার চাকর ||
বিলাতের নামে ক্ষেম নাহি প্রয়োজন |
বেপার করিব আমি বাণিজ্যার ধন ||
লঙ্কার বাণিজ্য তোর সমুদ্রে জাহাজ |
পরধন প্রত্যাশে পরোক্ষে পাই লাজ ||
তুমি হৈলে পরের চাকর বাপধন |
মহিমের নাম শুনি সংশয় জীবন ||
তোমা হেতু লাউসেন শালে দিলু ভর |
তবে দয়া করিলা দিনের দিবাকর ||
কদাচ না যাবে বাপু কাঙুর ভুবন |
দুরন্ত মহিম সেই জানে সর্বজন ||
মায়ের বচন শুনি লাউসেন কয় |
তোমার আশিসে মোর সর্ব ঠাঁই জয় ||
অবশ্য কাঙুর যাব না কর অন্যাথা |
অবনী বেষ্টিত হব যশকীর্তিলতা ||
এত বলি বিদায় জননী বিদ্যমান |
অনাদ্যমঙ্গল দ্বিজ রূপরাম গান ||

ইষ্ট মিত্র বন্ধু স্থানে হইল বিদায় |
কাঙুর জিনিতে রাজা লাউসেন যায় ||
তেঘাই দগড় শিঙ্গা ঘন ঘন পুরে |
লাফ দিয়া লাউসেন বাজিপৃষ্ঠে চড়ে ||
অশ্ব-আগে ধায়্যা যায় কালুসিংহ বীর |
পার হয়্যা গেল নদী কালিনীর নীর ||
শাখা সুখা তের দলুই পাছু ধাওধাই |
পদুমার বিলে পড়ে টমক তেঘাই ||

.      ******************      

.                                                   
কাঙুরযাত্রা পালার পরের পৃষ্ঠায় . . .  
.                                                                      
পাতার উপরে . . .   


মিলনসাগর
রূপরামের ধর্ম্মমঙ্গল
কাঙুরযাত্রা পালা
পৃষ্ঠা -              
১    বন্দনা  পালা     
.          
গনেশ বন্দনা    
.          
ধর্ম্ম বন্দনা    
.          
ঠাকুরাণী বন্দনা     
.          
চৈতন্য বন্দনা    
.          
সরস্বতী বন্দনা     
.          
বিপ্র বন্দনা      
.          
দিগ্ বন্দনা    
২   
আত্মকাহিনী    
৩   
স্থাপনা পালা    
৪    
আদ্য ঢেকু পালা    
.           
গজেন্দ্র মোক্ষণ    
৫    
রঞ্জার বিবাহপালা     
৬   
লুইচন্দ্র পালা     
৭   
শালেভর পালা    
৮   
লাউসেনের জন্মপালা      
.            
পরিশিষ্ট, জন্মপালা      
৯   
লাউসেন চুরিপালা    
১০
আখড়া পালা     
১১
ফলানির্মাণ পালা     
১২
মল্লবধ পালা      
১৩
বাঘজন্মপালা     
১৪
বাঘবধ পালা      
১৫
জামতি পালা      
১৬
গোলাহাটপালা      
১৭
হস্তিবধপালা      
১৮
কাঙুরযাত্রাপালা      
১৯
কলিঙ্গাবিভাপালা     
২০
লৌহগন্ডারপালা       
২১
কানড়াবিভাপালা      
২২
অনুমৃতাপালা     
২৩
ইছাইবধপালা     
২৪
অঘোরবাদলপালা     
২৫
জাগরণপালা     
২৬
স্বর্গারোহণপালা     
কাঙুরযাত্রা পালার আগের পৃষ্ঠায় . . .