রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গল কাব্য
কবি রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গলের পরিচিতির পাতায় . . .
রূপরামের ধর্মমঙ্গল কাব্যের সূচি
কাঙুরগড় আপনি সাজিলে কতবার |
নব লক্ষ নারিল গন্ডকী হৈতে পার ||
আমি কোন ছার বীর আর মন্দমতি |
কেমনে মহিম যাব কাঙুর বসতি ||
এত শুনি বলে তবে পাথ মহামদ |
লোকে বলে ভাগিনা বিক্রম বিশারদ ||
তবে যদি কাঙুর মহিম নাঞি যাবে |
পরিণামে হেথায় প্রলয় দুঃখ পাবে ||
তিন সন ময়নার বেবাক কর নিব |
তারপর দারুণ পাথর বুকে দিব ||
মাতুল বচন প্রতি লাউসেন কয় |
কাঙুর মহিম যাত্যে কার মনে ভয় ||
অবশ্য মহিম যাব কামতার গড় |
বিদায় হইল বীর রাজার নিয়ড় ||
রাজভূষা প্রসাদ বান্ধিল ফুলপান |
ঘোড়ার রাউত বেগে কাঙুর পয়ান ||
কাড়া শিঙ্গা টমক নিশান পরিপাটি |
গোউড় রাখিয়া পাছু পাইল রসভাটি ||
পাছু হইল দেখাদেখি মজিলিসপুর |
রাজভাটি বাসুরী দক্ষিণ থাকে দূর ||
বিনতানগর যায় পশ্চাত করিয়া |
গন্ডকী নদীর তীরে উত্তরিল গিয়া ||
সমুদ্র সমান নদী তরঙ্গ পর্বত |
পারাপার নাই তথি তরণীর পথ ||
উত্তরিল লাউসেন গন্ডকীর ধারে |
দেখিল কাঙুরগড় তাহার উপারে ||
চারিদিগে গন্ডকী কাঙুর তার মাঝে |
সমুদ্রের মধ্যে যেন লঙ্কাগড় সাজে ||
পাথরের গড় দেখি পর্বতের আভা |
মেঘের বরণ জিনি করিয়াছে শোভা ||
সশঙ্কিত হইল ময়নার তপোধন |
দ্বিজ রূপরাম গান দৈমন্তীনন্দন ||

উত্তরিল লাউসেন গন্ডকীর তীরে |
জোড়হাথে কালুবীর বলে ধীরে ধীরে ||
পার হৈতে নারিব গন্ডকী বিপর্যয় |
এহার উপায় চিন্তা কর মহাশয় ||
বর্ণাবর্ণ উষ্ণ জল কেহ নারে খাত্যে |
সপ্তনদী শুনি যেন যমালয় যাত্যে ||
শুন্যাছি পিতার মুখে বল্যাছিল আজা |
নদীখানি পারাত্যে নারিল কোন রাজা ||
ঈষত পবনে বড় তরঙ্গ আপায় |
নাই চলে তরণী ঐমনি তল যায় ||
পঞ্চতীর্থ মধ্যে বলে প্রধান গন্ডকী |
এহাতে উদ্ধার হৈল পঞ্চম পাতকী ||
পূর্ণতীর্থ গন্ডকী পন্ডিত-মুখে শুনি |
এহার উপায় তুমি কহিবে আপনি ||
কালুর বচন শুনি লাউসেন হাসে |
আশ্বাস করিল পার হইব অনাসে ||
পার হৈতে নাই ভেলা অপরঞ্চ না |
গয়া গঙ্গা গন্ডকী ধর্মের দুই পা ||
এত বলি বসিল গন্ডকী নদীতীর |
লঙ্কা প্রতি সিন্ধুকূলে যেন রঘুবীর ||
রণকাড়া তেঘাই সঘনে শিঙ্গা পড়ে |
সর্বজন উত্তরিল গন্ডকীর তড়ে ||
তবে ধর্ম পূজেন ময়নার তপোধন |
নিরমল পূজার করিল আয়োজন ||
আনন্দে পূজিল ধর্ম ষোল উপাচারে |
স্তব করে লোটায়্যা অবনী বারে বারে ||
ধর্মের পিরিতে সেন দিল অর্ঘ্যদান |
আচম্বিতে বৈকুন্ঠে জানিলা ভগবান ||
অন্তরযামিনী প্রভু জানিল ধিয়ানে |
সবিনয় আপনি বলেন হনুমানে ||
পার হৈতে গন্ডকী না পারে লাউসেন |
আপনি তাহার তরে উপদেশ দেন ||
ধর্মপাল রাজার বলিবে উপাক্ষান |
করজাপ্য সমুদ্র-কাটারি যেন পান ||
প্রভুর বচন বীর নিল হেঁটমাথে |
মনগতি উত্তরিল সেনের সাক্ষাতে ||

.      ******************      

.                                                   
কাঙুরযাত্রা পালার পরের পৃষ্ঠায় . . .  
.                                                                      
পাতার উপরে . . .   


মিলনসাগর
১    বন্দনা  পালা     
.          
গনেশ বন্দনা    
.          
ধর্ম্ম বন্দনা    
.          
ঠাকুরাণী বন্দনা     
.          
চৈতন্য বন্দনা    
.          
সরস্বতী বন্দনা     
.          
বিপ্র বন্দনা      
.          
দিগ্ বন্দনা    
২   
আত্মকাহিনী    
৩   
স্থাপনা পালা    
৪    
আদ্য ঢেকু পালা    
.           
গজেন্দ্র মোক্ষণ    
৫    
রঞ্জার বিবাহপালা     
৬   
লুইচন্দ্র পালা     
৭   
শালেভর পালা    
৮   
লাউসেনের জন্মপালা      
.            
পরিশিষ্ট, জন্মপালা      
৯   
লাউসেন চুরিপালা    
১০
আখড়া পালা     
১১
ফলানির্মাণ পালা     
১২
মল্লবধ পালা      
১৩
বাঘজন্মপালা     
১৪
বাঘবধ পালা      
১৫
জামতি পালা      
১৬
গোলাহাটপালা      
১৭
হস্তিবধপালা      
১৮
কাঙুরযাত্রাপালা      
১৯
কলিঙ্গাবিভাপালা     
২০
লৌহগন্ডারপালা       
২১
কানড়াবিভাপালা      
২২
অনুমৃতাপালা     
২৩
ইছাইবধপালা     
২৪
অঘোরবাদলপালা     
২৫
জাগরণপালা     
২৬
স্বর্গারোহণপালা     
কাঙুরযাত্রা পালার আগের পৃষ্ঠায় . . .
রূপরামের ধর্ম্মমঙ্গল
কাঙুরযাত্রা পালা
পৃষ্ঠা -