রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গল কাব্য
কবি রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গলের পরিচিতির পাতায় . . .
রূপরামের ধর্মমঙ্গল কাব্যের সূচি
ষোল কোশে রহিল রাজার ফরিকাল |
দিশা হারাইয়া তবে ভাবে মহীপাল ||
সরোবর নাই তথা সব শালবন |
তৃষায় আকুল হৈল রাজার জীবন ||
মনে ভাবে লোকের উদ্দিশ পাব কোথা |
না জানি কি করে আজি দারুণ বিধাতা ||
দৈবহেতু বল্লভা-মন্দির দরশন |
দিশা হারাইয়া তবে জিজ্ঞাসে রাজন ||
এই বনে পত্রের মন্দিরে আছ কে |
ধর্মপাল রাজা ডাকে পরিচয় দে ||
নিঃসরিল বল্লভা চিনিল প্রাণনাথ |
দন্ডবত চরণে লোচনে অশ্রুপাত ||
রাণী বলে আইস কাছে বৈস নৃপমণি |
জিজ্ঞাসিল কেমন আছহ রাজরাণী ||
ক্ষুধায় কাতর তনু অন্ন দেহ খাই |
তবে পাছু আনন্দ মনের প্রীত পাই ||
রাজার বচন শুনি বল্লভা পদ্মিনী |
প্রণাম করিয়া ভূপে কহে জোড়পাণি ||
অন্নের অভাব হেথা ফলমূল খাই |
তোমা হেতু সই-এর মন্দিরে নহে যাই ||
শশীমুখী চেড়ী থাকে রাজার সেবনে |
উত্তরিল বল্লভা সই-এর নিকেতনে ||
সই-এর চরণে গিয়া কৈল নমস্কার |
বিজয়াকে বলিল স্বামীর সমাচার ||
অতিথ হয়্যাছে আসি ক্ষুধায় বিকল |
চালি ডালি তৈল দিবে নুন চক্রফল ||
দুই চক্রফল দিয়া বলেন বিজয়া |
নিরবধি বল্লভা তোমারে আছে দয়া ||
বিরলে বসিয়া বলে বিশেষ সম্ভাষি |
দ্বাদশ বত্সর কেন তুমি বনবাসী ||
বনবাস দিল সয়া কিসের লাগিয়া |
এই লহ ঔষধ খাওাবে অন্ন দিয়া ||
কিছু বা মিশাল দিবে ব্যঞ্জনের সাথে |
এইরূপে ঔষধ করিবে প্রাণনাথে ||
প্রবন্ধ ঔষধ নিলা রসের চাতুরী |
বসনে ঔষধ বান্ধে বল্লভা সুন্দরী ||
পুনর্বার সই-এর চরণে অবনতি |
রাজার সমুখে রাণী আইল শীঘ্রগতি ||
বোলচাল নাই রাণী বসিল রন্ধনে |
এ পাঁচ ব্যঞ্জন অন্ন রান্ধিল যতনে ||
ভাজনে ঢালিল অন্ন যেন কুন্দফুল |
তায় দিল ঔষধ অনন্ত যার মূল ||
বিজয়ার বচনে ব্যঞ্জনে কিছু দিল |
অন্নের সহিত থালা নাচিতে লাগিল ||
বল্লভা সুন্দরী কান্দে শিরে দিয়া হাথ |
অন্ন খায়্যা মরে পাছে মোর প্রাণনাথ ||
সেই অন্ন বল্লভা রাখিল বামভাগে |
আর অন্ন আনি দিল ভূপতির আগে ||
ক্ষুধায় ব্যাকুল রাজা করিল ভোজন |
আচমন সারি হয়বরে আরোহণ ||
ভাল মন্দ বল্লভাকে কিছু না বলিল |
ঘোড়ায় চাবুক দিয়া গোউড় চলিল ||
ছয় দন্ডে পাইল রাজা গোউড় ভুবন |
বল্লভা কাননে বসি করেন রোদন ||
স্বামী না দেখিয়া রাণী হায় হায় করে |
দ্বিজ রূপরাম গান অনাদ্যের বরে ||

একমনে শুন সভে অপূর্ব কথন |
লাউসেনে তত্ত্ব কন পবননন্দন ||
তবে রাণী বল্লভা ঔষধ অন্ন নিল |
ভাজন সহিত জলে ভাসাইয়া দিল ||
ভাসিতে ভাসিতে গেল যমুনার জলে |
দক্ষিণ সাগর পাইল যথা নীলাচলে ||
সেতুবন্ধে সেই অন্ন দরশন দিল |
মূর্তিমান সমুদ্র যেখানে বস্যাছিল ||
সুধাময় অন্ন দেখি সূর্যের থালে |
ঐমনি ভোজন করে বসিয়া পাতালে ||
বল্লভার অন্ন সিন্ধু করিল ভোজন |
আচম্বিতে ঔষধে চঞ্চল হৈল মন ||
ক্ষেপা হৈল সমুদ্র বল্লভা বলি ডাকে |
দেবতা পাগল হৈল ঔষধের পাকে ||
যথা ছিল বল্লভা সেখানে দেখা দিল |
ধর্মপালসম রূপ সমুদ্র ধরিল ||
বল্লভার প্রতি বলে আলিঙ্গন দেহ |
রক্ষা কর জীবন হাথের পান লেহ ||
না বলিতে বচন ঐমনি আলিঙ্গন |
স্বামীর ভরমে রাণীর কুসুম-শয়ন ||
দুজনে ভুঞ্জিল রতি অনুহিতময় |
বল্লভা চিন্তিল মনে মোর স্বামী নয় ||
যুবতীকে ছাপা নর স্বামীর বেভার |
মায়াধারী কোন জন আইল কোথাকার ||
বসনে ধরিয়া রাণী কহে পরিতাপ |
গঙ্গাজল হাথে নিল দিতে অভিশাপ ||
আমি নই বৃন্দা সতী অপর অঞ্জনা |
কেবা দূর করিল আমার সতীপনা ||
সতীর বচন শুনি সমুদ্র কাতর |
সবিনয় ভাবে বলে আপনি সাগর ||
পরিচয় কহি আমি সূর্যবংশের নাতি |
সাগরের মূর্তি আমি সাগর খিয়াতি ||
জন্মিবে তোমার গর্ভে রাজা গৌড়েশ্বর |
করজাপ্য সমুদ্রকাটারি হাথে ধর ||
দুই দ্রব্য দিল সেই বল্লভার করে |
নহে-বা গৌড়ের রাজা সেই বল ধরে ||
অনেক দিবসে রাজা ধর্মপাল মৈল |
সেই বলে গৌড়েশ্বর বলবন্ত হৈল ||
পুনরপি যাহ তুমি গোউড় শহর |
শুনিঞা চলিল সেন বল্লভার ঘর ||
অন্তর্ধান হৈল তবে পবননন্দন |
থানা করি বীর কালু রহিল তখন ||
ঘোড়ার রাউত রাজা সত্বর পয়ান |
দরশন গোউড়ে বল্লভা বিদ্যমান ||
দুয়ারে রাখিয়া অশ্ব চরণে পড়িল |
সমুদ্রকাটারি দেহ বিরলে বলিল ||
করজাপ্য মাল্য দেহ কি বলিব আর |
কাঙুর মহিম যাব গন্ডকীর পার ||
সেনের বিনয়ে রাণী দুই দ্রব্য দিল |
ঘোড়ার রাউত পুন গন্ডকী আইল ||
সমুদ্রকাটারি রাখে গন্ডকীর জলে |
বানবন্যা সব গেল সপ্তম পাতালে ||
দলে বলে লাউসেন পাইল বালিচর |
মোকামে করিল গড়ে কাঙুর উপর ||
জোড়া শিঙ্গাসারে কালু বলে ধর ধর |
মোকাম করিল সেন গড়ের উপর ||
অনাদ্যের পদরেণু ভরসা কেবল |
দ্বিজ রূপরাম গান ধর্মের মঙ্গল ||
হেথায় রহিল গীত সভে বল হরি |
রথভরে ধর্মরাজ চল স্বর্গপুরী ||
.             রত্নসিংহাসনে ধর্ম ডাললেন গা |
.             উলুক যোগায় শ্বেত চামরের বা ||

.      ******************      

|| কাঙুরযাত্রা পালা সমাপ্ত ||

.                                                              এই পাতার উপরে . . .   


মিলনসাগর
১    বন্দনা  পালা     
.          
গনেশ বন্দনা    
.          
ধর্ম্ম বন্দনা    
.          
ঠাকুরাণী বন্দনা     
.          
চৈতন্য বন্দনা    
.          
সরস্বতী বন্দনা     
.          
বিপ্র বন্দনা      
.          
দিগ্ বন্দনা    
২   
আত্মকাহিনী    
৩   
স্থাপনা পালা    
৪    
আদ্য ঢেকু পালা    
.           
গজেন্দ্র মোক্ষণ    
৫    
রঞ্জার বিবাহপালা     
৬   
লুইচন্দ্র পালা     
৭   
শালেভর পালা    
৮   
লাউসেনের জন্মপালা      
.            
পরিশিষ্ট, জন্মপালা      
৯   
লাউসেন চুরিপালা    
১০
আখড়া পালা     
১১
ফলানির্মাণ পালা     
১২
মল্লবধ পালা      
১৩
বাঘজন্মপালা     
১৪
বাঘবধ পালা      
১৫
জামতি পালা      
১৬
গোলাহাটপালা      
১৭
হস্তিবধপালা      
১৮
কাঙুরযাত্রাপালা      
১৯
কলিঙ্গাবিভাপালা     
২০
লৌহগন্ডারপালা       
২১
কানড়াবিভাপালা      
২২
অনুমৃতাপালা     
২৩
ইছাইবধপালা     
২৪
অঘোরবাদলপালা     
২৫
জাগরণপালা     
২৬
স্বর্গারোহণপালা     
কাঙুরযাত্রা পালার আগের পৃষ্ঠায় . . .
রূপরামের ধর্ম্মমঙ্গল
কাঙুরযাত্রা পালা
পৃষ্ঠা -