রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গল কাব্য
কবি রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গলের পরিচিতির পাতায় . . .
রূপরামের ধর্মমঙ্গল কাব্যের সূচি
কেব বা বেউড় ঝারে লাগায় আগুন |
রামকলা গুয়া কাটে আশদ অর্জুন ||
দুই উপবন কাটে মকরন্দ ফল |
গোড়া উপারিয়া তোলে বেগারি সকল ||
কলরব চৌদিগে পদাতি কুলকুল |
বড় বড় গাছ কাটে উপারিয়া মূল ||
বন্দুকীর অন্ত নাই ধানুকী চৌগুণ |
ধনুক টঙ্কারে রবি কাঁপিল অরুণ ||
সাত গড় সিমুলে বেড়িছে সাবধান |
অনাদ্যমঙ্গল দ্বিজ রূপরাম গান ||

কানে কানে বেড়ে রাজা সিমুলের গড় |
বিবাহ করিব রাজা কুমারী কানড় ||
উত্তর দুয়ারে থানা দিল গজপতি |
রামরায় রূপসেন যাহার সংহতি ||
পর্বতীয়া ঘোড়া সঙ্গে পঞ্চাশ হাজার |
সিফাই বহুত তথি যেন চন্দ্রাকার ||
তেঘাই চৌদিগে পড়ে ফুকরে কাহাল |
তাধিঙ্গি তাধিঙ্গি ধিঙ্গি মাদল বিশাল ||
দোসর রাজীবরায় বায়ড়া পয়ার |
উভদলে থানা নিল উত্তর দুয়ার ||
তার আগে দক্ষিণে হাজরা থানা নিল |
নারিকেল গুয়া বন বিথাল করিল ||
কেহবা লঙ্ঘিয়া পড়ে কুড়ি হাত খানা |
দড়বড়ি বেগারি সকল বান্ধে হানা ||
গাছ কাটে বড় বড় দব়্যায় ভাসায় |
পালা কাটে হানা বান্ধে হাথি যাত্যে যায় ||
দেবতা গর্জনে গোলা পড়ে  দশ বিশ |
অকালে আকাশে যেন নিঃসরে কুলিশ ||
কুঞ্জার পয়ানে তরু মড়া হৈল সার |
সর্দার সিফাই যত বলে মার মার ||
বিথাল করিল কলা গুয়া নারিকেল |
সারি সারি থানা নিল সর্দার সকল ||
পূর্ব দুয়ারে নিল রাজা পাত্র থানা |
পালাবার পথ নাই চতুর্দিক খানা ||
অশ্বের ইদন্ত নাই পূর্ণ হস্তী ঘটা |
কপালে সিন্দুর যেন অরুণের ছটা ||
পদাতি পাইক পুন ঢালী কেবা লেখে |
মজিল সিমল্যা গড় সর্বলোক দেখে ||
আগে তার থানা নিল বার কাহন ঘোড়া |
তের কাহন ঢালী পাকি বর্ণ কাল কড়া ||
তার আগে থানা নিল বিশ হাজার রাণা |
সিংহের প্রতাপ গুরু চতুর্দিগে হানা ||
দামা বাজে দুরদুর কাড়ায় ঘন কাঠি |
টলবল করে তবে সিমুল্যার মাটি ||
সাত গড় সিমুল্যার বেঢ়ে কানে কান |
গায়ে গায়ে সর্দার সিফাই থানে থান ||
চৌবেড়ে বেড়িল সাত সিমুল্যার গড় |
গড়াগড়ি দিয়া কান্দে কুমারী কানড় ||
হায় হায় শব্দ ঘন সদা সশঙ্কিত |
কভু নাঞি দূর যায় দৈবের লিখিত ||
বাজুবন্দ ঘুচাইল কিঙ্কিণী কেয়ুর |
লয় করে পত্রাবলী লল্লাটে সিন্দুর ||
রাধাচক্র মনে করি রায়ের বেটী কান্দে |
কেমনে এড়াব আমি পরকার ফান্দে ||
অজ্ঞান হইয়া কান্দে গড়াগড়ি বোলে |
হেনবেলা ভবানী আপনি নিল কোলে ||
কোলে করি কানড়া করুণাবাণী কন |
এই সব নাপানে রমণী নাই রন ||
অসময়ে পালাইল তোর বাপ মা |
বিপদ সাগরে বেটী আমি তোর লা ||
অকালে কিমর্থে কান্দ তার তত্ত্ব শুনি |
প্রলাপ দেখিতে নারি করুণা কাহিনী ||
কত আর দেখিব ধূলায় গড়াগড়ি |
রণে যাকু এখনি ধূমসী তোর চেড়ী ||
হেত্যার বান্ধিয়া হানা দিকু মাঝরণে |
কি করিতে পারে তোর গৌড়ের রাজনে ||
একশত বিধাতা আপনি যদি আইসে |
অকালের জীবন অর্জুন যেন বৈসে ||
নিশ্চয় বচন বলি কানড়াকুমারী |
উপলক্ষ বিনু আমি রণে যাত্যে নারি ||
ডাক দিয়া নিল সঙ্গে ডাকিনী যুগিনী |
ক্ষেণে অশ্ব কুঞ্জর করিব খানি খানি ||
রতি মাষা করিব সিফাই ফরিকাল |
আমি সব বিধাতা বরুণ দিগপাল ||
কৃষ্ণের ভগিনী আমি কৃষ্ণ অবতারে |
তোমারে অবশ্য দিব লাউসেন কুমারে ||
রণে যাকু ধুমসী বিলম্ব নাঞি সয় |
যেখানে আপনি থাকি সেইখানে জয় ||
অবশ্য তোমার স্বামী লাউসেন রাজা |
এ বার বত্সর দিলে একমনে পূজা ||
পরম কৌতুকে তুমি বস্যা থাক ঘরে |
ধুমসী এখনি যাকু বিষম সমরে ||
এত শুনি কানড়া কুমারী হরষিত |
প্রাণের ধুমসী দাসী আস্য গো তুরিত ||
তুমি চল সংগ্রামে বিলম্বে নাঞি কাজ |
তবে পাব পশ্চাত ময়নার দুবরাজ ||
তুমি মোর জীবন সম্পদ ধন দিদি |
চারিদন্ড আপনি সংগ্রামে যাহ যদি ||
সিংহের বিক্রম দেবী দিল তোর গায় |
বিধাতার জননী আপনি বরদায় ||
ঝাঁপ দিবে সংগ্রামে ঝঞ্ঝনা যেন পড়ে |
যুগে যুগে দেবীর বচন নাঞি নড়ে |
এত বলি কানড়া কুমারী কন্যা কান্দে ||
তবে দাসী ধুমসী কোমর কস্যা বান্ধে |
সত্বরে বান্ধিল শিরে সুবর্ণের সানা |
তার উপর রাঙ্গা টায়া তার উপর তানা ||
তার উপর যুগল শিখন্ড শিখী উড়ে |
তরঙ্গ মাণিক তায় তরণির চূড়ে ||
কসিয়া কোমর বান্ধে ধুমসী রঙ্গিণী |
পতঙ্গের পানে চাহি জোড়ে দুইপাণি ||
সব অঙ্গে পরিল কবচ আঙ্গরাখি |
পয়োধর যুগল যতনে রাখে ঢাকি ||
উপরে দিলেক তার লোহার কবজ |
বীর ভল্ল রাখিল বিন্ধিতে চাহে গজ ||
ডাক ছাড়ে ধুমসী যেমন ঝনঝনা |
নৈ গজ পাগে করে কোমর কসনা ||
কড়াকড়ি কোমর বান্ধিল দড়দড় |
সমুখে বান্ধিল যার নাম বড় বড় ||

.      ******************      

.                                                 
কানড়াবিভা পালার পরের পৃষ্ঠায় . . .  
.                                                                      
পাতার উপরে . . .   


মিলনসাগর
১    বন্দনা  পালা     
.          
গনেশ বন্দনা    
.          
ধর্ম্ম বন্দনা    
.          
ঠাকুরাণী বন্দনা     
.          
চৈতন্য বন্দনা    
.          
সরস্বতী বন্দনা     
.          
বিপ্র বন্দনা      
.          
দিগ্ বন্দনা    
২   
আত্মকাহিনী    
৩   
স্থাপনা পালা    
৪    
আদ্য ঢেকু পালা    
.           
গজেন্দ্র মোক্ষণ    
৫    
রঞ্জার বিবাহপালা     
৬   
লুইচন্দ্র পালা     
৭   
শালেভর পালা    
৮   
লাউসেনের জন্মপালা      
.            
পরিশিষ্ট, জন্মপালা      
৯   
লাউসেন চুরিপালা    
১০
আখড়া পালা     
১১
ফলানির্মাণ পালা     
১২
মল্লবধ পালা      
১৩
বাঘজন্মপালা     
১৪
বাঘবধ পালা      
১৫
জামতি পালা      
১৬
গোলাহাটপালা      
১৭
হস্তিবধপালা      
১৮
কাঙুরযাত্রাপালা      
১৯
কলিঙ্গাবিভাপালা     
২০
লৌহগন্ডারপালা       
২১
কানড়াবিভাপালা      
২২
অনুমৃতাপালা     
২৩
ইছাইবধপালা     
২৪
অঘোরবাদলপালা     
২৫
জাগরণপালা     
২৬
স্বর্গারোহণপালা     
কানড়াবিভা পালার আগের পৃষ্ঠায় . . .
রূপরামের ধর্ম্মমঙ্গল
কানড়াবিভা পালা
পৃষ্ঠা -