রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গল কাব্য
কবি রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গলের পরিচিতির পাতায় . . .
রূপরামের ধর্মমঙ্গল কাব্যের সূচি
তুমি আমি দুজনে ধর্মের পূজা দিব |
যুগে যুগে রাজা পাত্র অমর হইব ||
লাউসেন মহাবীর হইল অমর |
সেই ইবে রাজা হব গৌড়ের উপর ||
ধর্মপূজা করি রাজা হৈল মঘবান |
যুধিষ্ঠির স্বর্গ গেল সুবর্ণ বিমান ||
বার যুগ মরুত করিল ঘরভরা |
চাঁপাইর বনে আছে পুরান দেহারা ||
ঊত্কল অমরাবতী হরিশ্চন্দ্র রাজা |
জ্যেষ্ঠপুত্র বলিদানে দিল আদ্যপূজা ||
রাজ্যের সহিত সেই গেল স্বর্গবাস |
দশ বার আদ্যপূজা দিল কৃত্তিবাস ||
বিশেষ পরশুরাম হইল অমর |
রাজ্যের সহিত রাজা ধর্মপূজা কর ||
পাত্রের বচন শুনি বলে গৌড়েশ্বর |
ধর্মের দেহারা তুল পরম সুন্দর ||
সুবর্ণ দেহারা দেহ দক্ষিণ চাতরে |
শহর সহিত যেন ধর্মপূজা করে ||
দশ লক্ষ দনে তুল পুরট দেহারা |
সমুখ দুয়ারে দেহ রতনের ঝারা ||
যতনে দেউল তুল রতন মিশাল |
শিখিপাখা চামরে ছাইবে চারিচাল ||
মাণিকের ঝারা দিবে চূড়ার উপর |
এইরূপে শহরে ধর্মের তুল ঘর ||
দশ লক্ষ তঙ্ক কড়ি তুমি গিয়া লেহ |
অভিমত ধর্মের দেহারা ঘর দেহ ||
এত শুনি বলে পাত্র বিনয় বচন |
কিবা হেতু খরচ করিবে এই ধন ||
দেহারা তুলিব দেশে বেগার ধরিয়া |
খরচ করিব ধন কিসের লাগিয়া ||
শহর ভিতর গিয়া ধরিব বেগার |
এখনি তুলিব ঘর পঞ্চাশ হাজার ||
অবতার কলিযুগে তুমি কর্ণদাতা |
অনেক যতনে আছে রাজদন্ড ছাতা ||
ধন বিলাইতে শুন্য হইল ভান্ডার |
চামর চন্দন শঙ্খ ফণিমণি হার ||
তুলা মেঘ মকরে সকল দিলে দান |
দিনে সাত লক্ষ লাগে শুনিতে পুরাণ ||
বচন বলিতে তুমি মনে বড় সচ |
নাঞি জান প্রতিদিন এ সব খরচ ||
সাধিব ধর্মের পূজা ভৈরবীর কূল |
বেগার ধরিয়া দেশে তুলিব দেউল ||
কেন ধন খরচ করিবে এই হেতু |
কত ধনে রামরাজা জলে বান্ধে সেতু ||
আজ্ঞা দিলে আপনি অনেক কার্য হয় |
তবে কেন জৈমুনি ভান্ডারে ধনব্যয় ||
ধর্মের দেহারা হেতু রাজা দিল সায় |
অনাদ্যমঙ্গল দ্বিজ রূপরাম গায় ||

দক্ষিণ শহরে পাত্র দিল দরশন |
হেথায় সাজিব বলে ধর্মের গাজন ||
শহর কোটাল ইন্দা আনে ডাক দিয়া |
মহাপাত্র বলে ভাই শুন মন দিয়া ||
ঘর প্রতি দুজন কোদাল একখান |
বিশাশয় বেগার আনিবে বিদ্যমান ||
বলিবারে বচন বিলম্ব নাঞি সয় |
অবশ্য তুলিব আজি ধর্মের আলয় ||
হুকুম পাইল দড় শহর কোটাল |
নগরে পড়িল ঢেঁড়ি বিষম জঞ্জাল ||
শিঙ্গা কাড়া টমক নিশান ঘনে ঘন |
পাকি আর পিয়াদা সাজিল বহু জন ||
বর্লীদ বেপারী ধরে পথিক হাটিলা |
তেলি তাঁতি কুম্ভকার কৈবর্ত গুয়ালা ||
বর্ণিক বারুই কলু রজক নাপিত |
ধাওাধাই শহরে জঞ্জাল মহাভীত ||
তেঁতুল্যা বাগদি মেট্যা মাজি অবসান |
সামাই কামিল্যা শুঁড়ি কান্যা কড়া পান ||
গায়ের বসনে বান্ধে বাক্য নাঞি শুনে |
ব্রাহ্মণ সজ্জন যত লুকাইল কোণে ||
ধরাধরি বেগারে সঘনে ঘাড়ধাকা |
বান্ধিয়া ঐমনি রাখে বাক্যে হঞা বাঁকা ||
ঘরে ঘরে শহরে পড়িল ডাকাডাকি |
রাজার হুকুম দড় কার বাপে রাখি ||
নাঞি মানে গোহারি বচন সবিনয় |
চারি দন্ড ধরিল বেগারি বিশাশয় ||
কোদাল কুঠার করে কলসী বরণ |
পাত্রের সমুখে গিয়া দিল দরশন ||
বেগারি দেখিয়া বলে গৌড়ের পাতর |
আজ্ঞা দিল হেথায় ধর্মের তুল ঘর ||
শুভক্ষণ পাইয়া ঘরের ভিত গড়ে |
অবনী কলসজলে কেহ কাদা করে ||
পরিমাণ প্রাচীর তুলিল চারি পাট |
আজ্ঞা পায়্যা ছুতার বসাল্য ঝালকাট ||
অলক্ষিতে প্রাচীর তুলিল পঞ্চদিনে |
আড়াকাষ্ঠ কামিল্যা তুলিল শুভক্ষণে ||
বেগারি সকল খাটে গায়ে উড়ে খড়ি |
সন্ধ্যাকালে সভাকার পায়ে দেই দড়ি ||
পাঁচগন্ডা কড়ি চালু অর্ধসের রোজ |
বিহান বিকালে বড় বেগারের খোঁজ ||
বেগারি সকল খাটে ধর্মের গাজনে |
পরম আনন্দ হৈল সভাকার মনে ||
বিশাশয় কামিল্যা ধর্মের ঘরে খাটে |
যতেক গজাল গড়ে জোড় লাগে কাঠে ||
কোনাচি বসাল্য থুনি জোড়া সোমরণ |
চারি চাল পরিসর করিল গঠন ||
বাঁশের ছিটনি জউ হিঙ্গুল হর্তাল |
বসন মউর পাখে ছায়্যা তুলে চাল ||
অতি মনোহর ঘর হৈল দশদিনে |
সমুখে আলম চান্দা চামর বসনে ||
কনক রজত মাঝ্যা সুন্দর জগধি |
চারিদিগে বনমালা অদ্ভুত অবধি ||
ঐমনি সকল পূজা দিব এইখানে |
বসুমতী জাহ্নবী বসিব বিদ্যমানে ||
সুবর্ণের ঘর সব করে ঝলমল |
চালে চালে চৌদিগে চামর গঙ্গাজল ||

.  ******************     

.                                                 
ঘোরবাদল পালার পরের পৃষ্ঠায় . . .  
.                                                                      
পাতার উপরে . . .   


মিলনসাগর
১    বন্দনা  পালা     
.          
গনেশ বন্দনা    
.          
ধর্ম্ম বন্দনা    
.          
ঠাকুরাণী বন্দনা     
.          
চৈতন্য বন্দনা    
.          
সরস্বতী বন্দনা     
.          
বিপ্র বন্দনা      
.          
দিগ্ বন্দনা    
২   
আত্মকাহিনী    
৩   
স্থাপনা পালা    
৪    
আদ্য ঢেকু পালা    
.           
গজেন্দ্র মোক্ষণ    
৫    
রঞ্জার বিবাহপালা     
৬   
লুইচন্দ্র পালা     
৭   
শালেভর পালা    
৮   
লাউসেনের জন্মপালা      
.            
পরিশিষ্ট, জন্মপালা      
৯   
লাউসেন চুরিপালা    
১০
আখড়া পালা     
১১
ফলানির্মাণ পালা     
১২
মল্লবধ পালা      
১৩
বাঘজন্মপালা     
১৪
বাঘবধ পালা      
১৫
জামতি পালা      
১৬
গোলাহাটপালা      
১৭
হস্তিবধপালা      
১৮
কাঙুরযাত্রাপালা      
১৯
কলিঙ্গাবিভাপালা     
২০
লৌহগন্ডারপালা       
২১
কানড়াবিভাপালা      
২২
অনুমৃতাপালা     
২৩
ইছাইবধপালা     
২৪
অঘোরবাদলপালা     
২৫
জাগরণপালা     
২৬
স্বর্গারোহণপালা     
রূপরামের ধর্ম্মমঙ্গল
অঘোরবাদল পালা
পৃষ্ঠা -