রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গল কাব্য
কবি রূপরাম চক্রবর্তীর ধর্মমঙ্গলের পরিচিতির পাতায় . . .
রূপরামের ধর্মমঙ্গল কাব্যের সূচি
ময়না নগরে বীর ধায় হনুমান |
নারিকেল ভাসাইল রঞ্জা বিদ্যমান ||
জোয়ারের সাথে নারিকেল ভেসে যায়  |
রঞ্জাবতী রানী তখন দেখিবারে পায় ||
মনেতে স্মঙরণ করে ধর্ম্মের বচন |
ঝাঁপ দিয়া নারিকেল ধরিল তখন ||
বড় নারিকেল ভেঙ্গে সূর্য্যে অর্ঘ্য দিল |
ছোট নারিকেল ভাঙ্গ্যা ভক্ষণ করিল  ||
গর্ভবতী রঞ্জাবতী হইল তখন |
দশ দিক আলো হইল ময়না ভুবন ||
কোকিলী সুতান ডাকে মঞ্জরিল ডাল |
দৈবকী-জঠরে হেন জন্মিল গোপাল  ||
মৃত তরু মুঞ্জরিল ফুটিল কাঞ্চন |
কালিনী যমুনা হইল ময়না মধুবন  ||
তবে রঞ্জাবতী গৃহে করিল গমন |
উঠিতে বসিতে করে ধর্ম্ম স্মঙরণ ||
দাসী সঙ্গে সুন্দরী সদাই খেলে পাশা |
তাম্বুল সদাই মুখে সুমধুর ভাষা ||
প্রথম মাসের গর্ভ হয় কিবা নয় |
দু মাসের বেলা সব কানাকানি কয়  ||
গর্ভের লক্ষণ রূপ চুয়াইয়া পড়ে |
এক ঠাঞী বৈসে যদি তিন ঠাঞী নড়ে ||
তিন মাসে কেমন কেমন করে গা |
জঞ্জাল সহিতে নারে বড় বড় রা ||
অঙ্গনা-সমাজে বস্যা মাথা করে হেট |
হাথ বুলাইয়া দেখ্যা কেহ বলে পেট ||
চারি মাসে কৃশ অলঙ্কার হইল লোলা |
কর্পূর তাম্বুল তেজ্যা খায় পাতখোলা  ||
পাইলে শীতল মেঝ্যা পড়িয়া ঘুমায় |
মনে হরষিত বড় কর্ণসেন রায় ||
সাক্ষাতে সভাই বস্যা সই সাঙ্গাতিনী |
যার সঙ্গে নিরবধি দুঃখের কাহিনী ||
বস্ত্র অলঙ্কার পরে দিবসে দিবসে |
পঞ্চামৃত রঞ্জাবতী খায় পঞ্চ মাসে ||
নানা উপহার ভেট নিরবধি পায়  |
যে সাধ রানীর মনে সেই সাধ খায়  ||
নিরবধি কর্ণসেন বলে প্রিয়বাণী |
প্রাণের সমান আমার রঞ্জাবতী রানী  ||
ছয় মাস নিবড়িল সাতে পরবেশে |
নানা সাধ খায় রানী অপূর্ব্ব সন্দেশে ||
আট মাসের বেলা রানী বড় দুঃখ পাই |
না চলে চরণ দুটি ঘন উঠে হাই ||
পরিধান বসন এল্বায় নিরবধি |
হুতাশ সদাই মনে কিবা করে বিধি ||
ন-মাসের বেলা রানী করে টলবল |
বসিলে উঠিতে নারে মুখে উঠে জল  ||
পেটে ভুখ সদাই বদনে নাঞী চলে |
মরি মরি আই মা আই মা ঘন বলে ||
আপনি সদাই কাছে কর্ণসেন রায়  |
পরিধান আল্বাইলে আপনি পরায়  ||
হুকুম আনিল ডেক্যা হীরা নামে ধাই |
দশ মাস পূর্ণ হল্যে বিস্তর বালাই  ||
মনে দুঃখ ভাবে রানী কি হল্য জঞ্জাল |
পেটে পো হইলে দুয়ারে বস্যা কাল ||
পূর্ণ হইল দশ মাস আর দশ দিন |
প্রথম চৈত্র মাসে অবসিত মীন ||
আচম্বিতে কষ্ট ব্যথা দিলেক জানান |
হায় হায় মরি মরি আকুল পরাণ ||
ব্যথা করে কাঁকালি খসিয়া পড়ে গা |
মেঝ্যায় পড়িয়া বলে মরি ওগো মা ||
মাসী গো পিসি গো মরি গো মরি |
কি ব্যথা হইল পেটে দান্ডাইতে নারি ||
কোথা গেল সাঙ্গাতিনী কোথা গেল সই |
ঘন পেট ব্যথা করে হের এস্য কই ||
আপনা খাইয়া কেন শালে দিলাম ভর |
নাপান করিয়া কেন গেলাম বাসঘর ||
হেন কালে হীরা ধাই ধব়্যা করে কোলে |
পেটে তেল জল দিয়া ভয় নাঞী বলে ||
কাতর হইয়া বলে রঞ্জাবতী রানী |
রথ ভরে বস্যা বলে দেব চক্রপাণি  ||
ধ্যান ভঙ্গ কর বাপু কশ্যপনন্দন |
তোমার জননী দুঃখ পায় অকারণ  ||
জঠর ত্যজিয়া দেখ সয়ালের মুখ |
দুর্লভ জনমে পাবে সত্তালের সুখ  ||
এত যদি বলিলা দিনের দিবাকর |
ভূমিষ্ঠ হইয়া বালা ত্যজিয়া জঠর  ||
জয়ধ্বনি শঙ্খধ্বনি ময়না ভুবন  |
সয়াল দেখিয়া শিশু জুড়িল রোদন  ||
বেটা হল্য হীরা ধাই বলে ডাক দিয়া  |
সারিল মনের সুখ জয় জয় দিয়া ||
উমা সঙরণে শিশু ঙাঙা শব্দ করে |
ধাই নাই সুতা দিয়া বান্ধে দড় করে ||
[ নাভিচ্ছেদ করিলেক সোনার ঝিনুক |
স্বর্ণ ডাবরে স্নান করাইল শিশুকে ||
চালের খড় ফিড়্যা তখন জ্বালাল্য আঁতুড়ি |
সিজ ডাল ঢেকি দ্বারে জ্বালে আদাগুঁড়ি || ]
রঞ্জাবতী আপনি পুত্রের দেখে মুখ  |
পাসরিল সুন্দরী শালের যত দুখ  ||
বুড়া রাজা মনে করে আমি ভাগ্যবান |
পুত্রমুখ দেখি রাজা ভান্ডার বিলান ||
আনন্দের সীমা নাঞী ময়না নগরে |
গোপাল জন্মিল যেন নন্দঘোষের ঘরে ||
সাজিল অনেক রাস সূতিকার ধাম  |
আঁতুড়ে রাখিল তার লাউসেন নাম  ||
বালক দেখিয়া সভে হইলা হরষিত |
দ্বিজ রূপরাম গান ধর্ম্মের চরিত ||

.  ******************     


|| লাউসেন-জন্ম পালা সমাপ্ত ||

.                                                                এই পাতার উপরে . . .   


মিলনসাগর
১    বন্দনা  পালা     
.          
গনেশ বন্দনা    
.          
ধর্ম্ম বন্দনা    
.          
ঠাকুরাণী বন্দনা     
.          
চৈতন্য বন্দনা    
.          
সরস্বতী বন্দনা     
.          
বিপ্র বন্দনা      
.          
দিগ্ বন্দনা    
২   
আত্মকাহিনী    
৩   
স্থাপনা পালা    
৪    
আদ্য ঢেকু পালা    
.           
গজেন্দ্র মোক্ষণ    
৫    
রঞ্জার বিবাহপালা     
৬   
লুইচন্দ্র পালা     
৭   
শালেভর পালা    
৮   
লাউসেনের জন্মপালা      
.            
পরিশিষ্ট, জন্মপালা      
৯   
লাউসেন চুরিপালা    
১০
আখড়া পালা     
১১
ফলানির্মাণ পালা     
১২
মল্লবধ পালা      
১৩
বাঘজন্মপালা     
১৪
বাঘবধ পালা      
১৫
জামতি পালা      
১৬
গোলাহাটপালা      
১৭
হস্তিবধপালা      
১৮
কাঙুরযাত্রাপালা      
১৯
কলিঙ্গাবিভাপালা     
২০
লৌহগন্ডারপালা       
২১
কানড়াবিভাপালা      
২২
অনুমৃতাপালা     
২৩
ইছাইবধপালা     
২৪
অঘোরবাদলপালা     
২৫
জাগরণপালা     
২৬
স্বর্গারোহণপালা     
লাউসেন-জন্ম পালার আগের পৃষ্ঠায় . . .
রূপরামের ধর্ম্মমঙ্গল
||   লাউসেন-জন্ম পালা ||
পৃষ্ঠা