কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর -নচিকেতা ঘোষ
শিল্পী- সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়
ছবি - নিশিপদ্ম

ওরে সকল সোনা মলিন হোলো কালো সোনার চেয়ে
আমার মন ভরেছে প্রাণ ভরেছে যাদুরে মোর পেয়ে
পলকে প্রমাদ গনি হারালে নয়ন মনি
শত সূর্য্য থাকতে চোখে আঁধার আসে ছেয়ে
কে পেয়েছে হেন রতন এমন মানিক আর কি আছে
মা ডাকিলে হৃদয় আমার উথালি পাতালি নাচে
চোখে চোখে রাখি তাই ভাবনার শেষ নাই
নিমেষে বরষা হয় চাঁদ মুখে চেয়ে
ও মোর বরষ নিমেস হয় চাঁদ মুখে চেয়ে |

.          *************************                                                         
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
কবি গৌরিপ্রসন্ন মজুমদারের গান
*
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর -রবীন চট্টোপাধ্যায়
শিল্পী- সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়
ছবি - সাগরিকা


এইতো আমার প্রথম ফাগুন বেলা |
কেন তবে ঐ আকাশ নিলে শ্রাবণ মেঘের খেলা ||
আমিতো বুঝিনি আগে, দখিনার গানে পাখীর কূজনে
.                            ব্যথা ভরা সুর জাগে
সাজানো হোলোনা ফুলের বাসর ভাঙিল ফুলের মেলা ||
ওগো প্রেমের রাখাল কাঁদে কেন তব বাঁশী
চাওনা কি তবে একবার হাসি ! আমি তো পাবো না ক্ষমা
আঁধারে হারালো এ পথ আমার পাথেয় যে অবহেলা

.          *************************                                                         
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর -রবীন চট্টোপাধ্যায়
শিল্পী- সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়
ছবি - সাগরিকা

এ মধুরাত শুধু ফুল পাপিয়ার
এ মায়ারাত শুধু তোমার আমার
মায়াবী চাঁদের সনে চামেলী জাগিছে বনে
ফাগুন খুলিয়া দিল প্রাণের দুয়ার |
দুটি হিয়া চুপি চুপি এলো কাছাকাছি
প্রেম বলে দুজনার মাঝে আমি আছি
হৃদয়ের এই চাওয়া নিবিড় করে পাওয়া
এ জীবনে কোনদিন নহে ভুলিবার |

.          *******************                                                             
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর -রবীন চট্টোপাধ্যায়
শিল্পী- সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়
ছবি - সাগরিকা

পাখী জানে ফুল কেন ফোটে গো
ফুল জানে পাখী কেন গান গায়
রাত জানে চাঁদ ওঠে কেন গো
চাঁদ জানে রাত কার প্রাণে চায়
সুর আছে তাই বুঝি বাঁশিতে
মন চায় সুরে সুরে হাসিতে
নদী চায় সাগরে যে মিশিতে
সাগর নদীরে তাই কাছে পায়
কেন তবে ওঠে ঝড় হায়গো,
খেলাঘর কেন ভেঙে ভেঙে যায় গো
সীমার বাধনে আমায় বাধিতে চাও
যত ব্যথা মোর নীরবে সহিতে দাও
ধূলিতে যা আছে ধূলিতেই থাক পড়ে
ঝরা মালা রেখে গেনু তব পায় |

.          *******************                                                             
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর -শ্যামল মিত্র
শিল্পী- কিশোর কুমার
ছবি - অমানুষ (এই ছবিটির নাম আমাদের সঠিক জানিয়েছেন কাজল পাশা, যাঁর ইমেল -     
.                                
nasimkajal@gmail.com)

কী আশায় বাঁধি খেলাঘর বেদনার বালুচরে ;
নিয়তি আমার ভাগ্য লয়ে যে নিশিদিন খেলা করে ||
হায় গো হৃদয় তবুও তোমার আশা কেন যায় না,
যতটুকু চায় কিছু তার পায় না---
কে জানে কেন যে আমার আকাশ মেঘে মেঘে শুধু ভরে ||
প্রতিদিন ওঠে নতুন সূর্য্য, প্রতিদিন আসে ভোর ----
ওঠে না সূর্য্য আসে না সকাল, জীবনে আঁধার মোর |
পৃথিবী আমারে দিল যে ফিরায়ে কে যেন ডাকিয়া কয়,
‘নাহি হেথা ঠাঁই’  ;  আমি তো কেহ নয় |
ক্লান্ত চরণ অকূল আঁধারে পথ খুঁজে মরে ||

.          *******************                                                             
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর -হেমন্ত মুখোপাধ্যায়
শিল্পী- গীতা দত্ত
ছবি - ,সাথীহারা

বাঁশি বুঝি সেই সুরে আর ডাকবে না,
ফাগুনেরই দিনগুলি কি আর থাকবে না ||
দোল্ দোল্ মহুয়াতে নেশা আর জাগে না,
গুন্ গুন্ ভোমরার গান ভাল লাগে না---
জোনাকিরা দীপ জ্বেলে আর রাখবে না ||
রিম ঝিম নূপুরের বোল্ আর বাজে না,
রঙ রঙ পলাশের রঙে মন সাজে না----
বনছায়া ফুলে ফুলে আর ঢাকবে না  ||

.          *******************                                                             
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর -হেমন্ত মুখোপাধ্যায়
শিল্পী- কিশোর কুমার
ছবি - লুকোচুরি

শিং নেই তবু নাম তার সিংহ
ডিম নেই তবু অশ্বডিম্ব----
গায়ে লাগে ছ্যাঁকা ভ্যাবাচাকা হাম্বা হাম্বা টিক্ টিক্ টিক্ টিক্
দাও ভাই নাকে এক টিপ নস্যি,
খাও তার পরে এক মগ লস্যি,
লাগে জুড়ি জুড়ি সুড়সুড়ি হ্যাঁচ্চো হ্যাঁচ্চো ছিক্ ছিক্ ছিক্ ছিক্  |
দুই পায়ে পরে নাগরা
যাও নয় হেঁটে আগরা
জামতলা আমতলা নিমতলা পথে পাবে |
নয় নয় এতো ঠাট্টা
খাও পেট ভরে গাঁট্টা
কাঁচকলা কানমলা খাও তুমি কত খাবে |
টক্ টক্ টক্ টক্ টরে টককা
আর কত দূরে বোগদাদ মক্কা |
গোলগাল বিশু নন্দী
দিনরাত আঁটে ফন্দি
জুড়ি জুড়ি ভুরি ভুরি বড় বড় কথা বলে |
তাগরাই বেঁটে বড়দা
খায় পান সাথে জরদা,
গুলবাজি ডিগবাজি রকবাজি শুধু চলে  |
এবাড়ির খেঁদী যায় ভুরু কুঁচকে,
ওবাড়ির খ্যাঁদা হাসে মুখ মুচকে-----
গায়ে লাগে ছ্যাঁকা ভ্যাবাচাকা হাম্বা হাম্বা টিক্ টিক্ টিক্ টিক্  |

.          *******************                                                             
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর -নচিকেতা ঘোষ
শিল্পী- তরুণ বন্দ্যোপাধ্যায়

চলো রীনা, ক্যাসুরিনার ছায়া গায়ে মেখে মেখে মেখে
লাল কাঁকরের পথ ধরে একটু একটু করে এগিয়ে যাই ----
বলো যাবে কি না |
সোনা রোদ ঝিক্ মিক্, দেখ বালু চিক্ চিক্,
ছোট্ট নদী মিষ্টি খোয়াই পার হয়ে যাই |
যেখানে কৃষ্ণচূড়া লালে লাল,
যেখানে বন্ধু হবে কিছু সাঁওতাল |
আরো দূরে ঘুরে ঘুরে চলো না হেঁটে আসি
চলো না পাশাপাশি ||

.          *******************                                                             
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর - হেমন্ত মুখোপাধ্যায়
শিল্পী- তরুণ বন্দ্যোপাধ্যায়

মোর সপ্তসুরের সপ্তডিঙ্গা তীর খোঁজে----
পাল যেন তার হাওয়ার সুরে মীড় খোঁজে ||
স্বপ্নে আকাশ নীল হলো
আর তোমার সাথে আমার আঁখির মিল হলো----
পাখি যেমন দিনের শেষে নীড় খোঁজে ||
এ কোন্ দোলা হৃদয়ে আজ পাই আমি
কোথায় যেন হারিয়ে শুধু যাই আমি |
মালার যত ফুল ছিল
বুঝি নি তো তাতে কাঁটার ভুল ছিল------
সুখের মাঝে মর্মে যেন জমায় ব্যথার ভীড় ও যে ||

.          *******************                                                             
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
কথা- গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার
সুর -নচিকেতা ঘোষ
শিল্পী- দ্বিজেন মুখোপাধ্যায়

একটি দুটি তারা করে উঠি উঠি
মনকে দিলাম ছুটি তাই গো এই সন্ধ্যায়  |
একটি দুটি ফুল করে ফুটি ফুটি
যেথায় খুশী মুঠি মুঠি পাই গো সেথা মন ধায় ||
তোমার আমার মাঝে রবে নীরবতা
মাঝে মাঝে শুধু একটি দুটি কথা
সেই শুনে উলু দেবে অলি নিশিগন্ধায় ||
প্রথম রাতের চাঁদ জেগে রবে দূরে
বাতাসের বাঁশি ভরে যাবে সুরে
সেই শুনে ঢুলু ঢুলু হবে আঁখি তন্দ্রায় ||

.          *******************                                                             
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*