ভিখারীর ভীরুতারে বক্ষোমাঝে
দাক্ষিণ্যের দক্ষিণারে কুড়ায়ে কুড়
স্বপ্নময়ী উড়ে চল শ্লথবল্গ তব ম
করুণা-কৃপণা তুমি, নাহি চাও পি

সেদিন গোধূলি-লগ্নে ফুটেছিল আ
সে-তারার মায়াস্পর্শ তব মনে ফু
সহসা কহিল ধীরে,----‘যাবেন না,
সে তব সুরের সুরা পান করি হ

জানি সখি, এও তব ক্ষণিকের খে
তবু এ তোমারি গড়া বাসনার ল
রঙের বাহার নিয়ে আকাশেতে
ধরিতে পারি না তবু তারি পিছে

সুগভীর প্রেম নহে, নহে সখি নিবি
কবি জগদীশ ভট্টাচার্যর কবিতা
www.milansagar.com
*
.                               রয়েছে ভাষা |


.                                ৫

ঠিক     দুদিন পরেই          বাসা          বদলে এদিকে
.                  তুমি          আসবে চলে ;
আর    তাহারো দুদিন       পরে           ধরবে পিছু ;
ওহে    বাড়িয়ে বলি নি       আমি          তেমন কিছু,-----
.                    ছেলে        তোমার মত
.                    দেখে        এলাম কত !
শেষে    নাম ও ঠিকানা        সব             যোগাড় হলে
প্রেম-    পত্র গোপনে           কত             লেখাও চলে,
এর      একটি কথাও          আমি           বানিয়ে বলি নি,
.                   বলো          লাভ কি বলে !
ঠিক      দুদিন পরেই          বাসা            বদল এদিকে
.                   তুমি           আসবে চলে  |
                                           

.                                ৬

সেই     মেয়েটি বিকেলে       যায়            আমার ঘরের
.                        ঠিক       সামনে দিয়ে ;
খুব     ক্লান্ত তখন              তার            মুখটি দেখায়
আজ   ক্লান্ত যেমন             আমি           কবিতা লেখায়,
.                     ------আজ   কলেজ ছুটি,
.                           থাক্,  এবার উঠি ;------
প্রেমে    পড়তে আমার          বাধা            ছিল না কিছু,
শুধু      তোমরা সকলে         তার            ধরলে পিছু ;
শেষে    আমার ভাগে যে       এক             কণাও পড়ে না
.                      দেখি         বাঁটতে গিয়ে  |
আজ    কলেজ ছুটি              আর            দাঁড়িয়ে কি লাভ,
সে তো  যাবে না এখন           আর           সামনে দিয়ে |


.                             **************
.                                                                                     
সূচিতে...     




মিলনসাগর
*
.            রূপে পুলকিত তনু, মহীয়সী, লীলায়িত লাস্যে ;
.            কখনো করুণাময়ী, কখনো কৃপণা ঔদাস্যে,
মৌন মধুর হাসি, হাসিতে ঝরিছে সদা অর্থ ;
.             সে হাসি কখনো টানে, কখনো ঠেলিয়া ফেলে সুদূরে |
সে যেন কাব্য এক, প্রতিটি শ্লোকের হয় দ্ব্যর্থ,
.                  কভু প্রাঞ্জল কভু দুর্বোধ ছলনাই শুধু রে !

.                                ৩
বৌদির ছোট বোন আলাপ চালায় ভাব-বাচ্যে,
.                 অল্পই কথা বলে, না-বলে-যা আভাসে তা পূর্ণ ;
চারিদিকে লোকজন,  [  এদিকেই সকলে তাকাচ্ছে ! ]
.                  শঙ্কা হৃদয়ে জাগে কখন স্বপন হয় চূর্ণ !
.                প্রাণের কথাটি তাই বলিতে মরিতে হয় সরমে ;
.                কেবল না-বলা বাণী জানা আছে মরমে ও মরমে |
আঁখির মুখর চাওয়া, নববধূ-সম কভু লজ্জা,
.                কখনো ব্যগ্র ভাব, কখনো অল্পেতেই ক্ষুব্ধ ;
কবু আগোছালা বেশ, কখনো বর্ম-সম সজ্জা ;
.                 পরশে শিহর কভু, কভু সে স্বপনে করে লুব্ধ |
                        
.                                ৪
বৌদির ছোট বোন, নামহীন মধু সম্বন্ধ,
.          নহে নিকটের বধূ, নহে সুদূরের অভিসারিণী ;
সে যেন বাতাসে-ভাসা হাস্নুহানার মৃদু গন্ধ ;
.              ধরা -ছোঁয়া যায় না কো, অথচ সুরভি মনোহারিণী !
.           কখনো কাজের ছলে দেখা দিয়ে যায় দূরে সরিয়া,
.           কখনো ছলনা ক’রে বিনা ডোরে কাছে রাখে ধরিয়া ;
আশে-পাশে আছে তবু ধরা নাহি যায় কভু বক্ষে,
.             কখনো চিনিতে পারি, কখনো পারি না তারে চিনতে,
নেপথ্য আনাগোনা, যোগাযোগ লঘু প্রীতি-সখ্যে ;
.                মগ্নচেতন-লোকে ফুটে আছে সুকুমার বৃন্তে |

.                                ৫
বৌদির ছোট বোন, তার সাথে প্রেম করা চলতো,
.         স্বপ্ন সফল হতো, প্রিয়া হতো, ---- ছিল সম্ভাবনা,
‘হতো যা হয় না কেন !’ ---দাবি আর আছে বাহুবল তো ;
.              তবে আর কেন তারে একান্ত বধূ করে পাব না ?
.               স্বপ্ন ও শিহরণ, আশা আর দুরাশার দ্বন্দ্বে
.           নিবেদন করিলাম সব কথা প্রণয়-প্রবন্ধে ;
ছিঁড়িল স্বপ্ন-জাল, হেরিনু চক্ষু দুটি রগড়ে,
.           প্রকাশ্য দিবালোকে জ্যোত্স্না মোটেই শোভা পায় না ;
কহিল লজ্জানতা,----- ‘নিবেদিতা হয়ে আছি অগ্রে-----
.          ------ আপনাকে ভালো লাগে, ----- ভালবাসা দুজনকে যায় না’ |

.                             **************
.                                                                                         
সূচিতে...     




মিলনসাগর
*
চোখে ঘুম নেই ?--- নয়নে কি যেন রুপালী আলোর আবেশ মাখা !
আঁধার-বিহারী প্রাণ বুঝি আজ আলো-জাগরণ বাসিছে ভালো?
.               নিশীথ আকাশ মুখর হয়েছে পূর্ণিমাতে ------
.                মাতাল মলয় হল গীতময় সুরভি-বনে,
.                কোন্ আনন্দে ধরা অনন্ত-নৃত্যে মাতে---
.                মুক্তি-পাগল সে নেশা লেগেছে তোমারো মনে?
দিনের আলোয় জাগে না যে-কথা, আঁধারে যে-কথা ঘুমায়ে রয়,
জ্যোত্স্না-নিশীথে তারি গান শুনি ভুবন-ভুলানো তারার গানে ;
তাহারি গমকে প্রাণের গোপন কামনা হয়েছে ছন্দোময়,
সুদূরবাসিনী, সেই সুর বুঝি পরশ করেছে তোমারো প্রাণে?

পূর্ণিমা-নিশি প্রেম-দেবতার পূর্ণ-প্রেমের মিলন-সাধ-----
আলোছায়াময় আমার জীবনে অক্ষয় হোক জ্যোত্স্না-আলো,
অক্ষয় হোক এই মুহূর্ত যখন প্রেমের নেই প্রমাদ,
অক্ষয় হোক এ-মন আমার যে-মন তোমায় বাসিছে ভালো |
.               কাল নিশি-ভোরে জ্যোত্স্নার আলো মিলায়ে যাবে,
.               আকাশ-পরীরা দিনের আলোয় কভু কি জাগে ?
.               এমন স্বপন মাটির জীবন কাল কি পাবে ?
.           ----- অক্ষয় করে রেখে যাব আমি এ অনুরাগে |
কুহেলি-মাখানো স্তিমিত আলোয় এস গো মরণ গোপনচারী,
এই মুহূর্ত শাশ্বত কতরে নাও তুলে নাও মৃত্যু-পার ;
শাশ্বত হোক পূর্ণ এ প্রেম, শাশ্বত হোক স্বপন তারি,
শাশ্বত হোক প্রেমিক প্রাণের জ্যোত্স্না-আলোর মিলন-হার  |

.                         **************
.                                                                                         
সূচিতে...     




মিলনসাগর
*
কৈশোর-সরসী-নীরে ফোটে রাঙা চিত্ত-শতদল---
তাহাও চাহিনা সখি, প্রিয়তমে দিয়ো সে-কমল ;
আমার কামনা শুধু প্রেমের যা লঘু অপচয় |

পূর্ণপাত্রে লোভ নাই, শুধু যাহা উথলিয়া পড়ে
তাহারি মদিরালুব্ধ চিত্ত মোর সুখ-স্বপ্ন গড়ে |

.                **************
.                                                                                         
সূচিতে...     




মিলনসাগর
*
তুমি আছ মিশে তায় রূপসী অসূর্যস্পর্শা---
অন্ধের অন্তরে আলোকের মঞ্জীর-মন্দ্রা |

ঘন নীল রাত্রিতে হেরি নীল শাড়ি চক্ষে,
তুমি এস মিশে তায় তৃষাতুর বিরহীর বক্ষে |

.                **************
.                                                                                         
সূচিতে...     




মিলনসাগর
*
.                   ছন্দ নামিবে বুঝি এখনি!
ভারতীরে কহিলাম,----সত্বর ধরা দাও,
.                  সার্থক করি নব সৃষ্টি |
শুনিনু আকাশ-বাণী, ----‘মুখরতা ভুলে যাও,
.                  চোখে চোখে হোক শুভদ়ৃষ্টি |

.                **************
.                                                                                         
সূচিতে...     




মিলনসাগর
.                                ১

রোজ    বিকেল বেলা      এই            
.                    ঠিক      সামনে   দিয়ে,
ওই      ঘড়ির কাঁটায়      সওয়া        
এই      রাস্তা বেয়ে         ধীরে          
.                   তুমি       চিনবে ওকে
.                   তার       করুণ চোখে,
খুব      ক্লান্ত বিষন্নতা                    
খান     তিনেক পুথিও      আর         
যাবে    আপন মনেই       তার          
.                   ছাতা       বাঁ হাতে
রোজ   বিকেল বেলা       এই           
কলেজ-গার্ল
"কলেজবয়" ছদ্মনামে লেখা প্রথম কাব্যগ্রন্থ "ব্ল্যাকবোর্ড" থেকে
জগদীশ ভট্টাচার্য

.                   ঠিক       সামনে দিয়ে |


.                                ২

মানে    কলেজ-ফেরৎ     যায়            একটি তরুণী
.                   তার     বাসার পানে,
তার     বয়েস, যেমন      হয়----         উনিশ-কুড়ি
তবু      ওদের মতন       হয়ে           যায় নি বুড়ী ;
.                 তাকে        দেখলে পরে
.                 মনে          খট্ কা ধরে-----
অত      অল্প বয়সে         মেয়ে          পড়ছে বি-এ ?
কেন      তোমাকে ঠকাবো  বাজে         ধাপ্পা দিয়ে  !
সে যে    আই,এ-তে প্রথম   হোলো        সে কথা জান না ?
.                     সে ত     সবাই জানে ;
রোজ     কলেজ-ফেরৎ     যায়           সেই যে মেয়েটি
.                     তার      বাসার পানে |


.                                ৩

তার     গায়ের রঙের      মত           অমন দেখো নি
.                   আর,      বলতে পারি |
ঠিক     মেঘের পরেই      যদি           রৌদ্র ওঠে
তবে    নতুন পাতার       রঙ           যেমন ফোটে,
.                    ঠিক      তাহার মত
.                 সে যে       সুশ্রী কত,
বলে    বুঝানো যায় না    কভু          সে-সব কথা,
দেখে   সবারই বুকে       আসে         চঞ্চলতা
তার    সুডোল মুখটি      আর         পাতলা গড়ন
.                   বড়      চমৎকারই !
তার    গায়ের রঙের        মত        অমন দেখো নি
.                   আর,    বলতে পারি |


.                                ৪

তার   দুটি চোখের         মাঝে        
.                             রয়েছে ভাষা |
মানে,  আকাশ হতেও      চোখ        
তার   চাউনি দেখেই        প্রেমে       
.                   যদি         মনের ভুলে
.                   চায়         নয়ন তুলে
তবে   তোমার দফাটি      সারা        
মানে   পাগল হতেও        আর         
যত    অন্যমনাই             হও,       
.               বুকে            বাঁধবে বাসা |
তার    দুইটি চোখের       মাঝে        
.                                ১
বৌদির ছোট বোন, তার সাথে প্রেম
.              ষোড়শী-সপ্তদশী, ভর্তি
প্রথম প্রেমের ভাষা স্বপ্নের মত করে
.         কিশোরীর মত ভীরু, ছেলেমা
.                  বৌদির ছোট বোন
.                  ভাব-ব্যঞ্জনাময়ী, মঞ্জু
কুমারী অনাঘ্রাতা, বিশ্বের সুন্দরী শ্রে
.              নবনী-কোমল তনু, মুখে
নব-যৌবন-বনে সে আমার মৌ-বন-প্রে
.                    স্বপ্ন-সাগর মথি ল

.                                ২
বৌদির ছোট বোন আজিও অনাদৃতা
.       শ্যালিকা ও পরকীয়া সেখানে
কবিরা দেয় নি ঠাঁই রসময় দৃশ্যে কি
.            তবুও সে রসময়ী, করে নি
বৌদির ছোট বোন
"কলেজবয়" ছদ্মনামে লেখা প্রথম কাব্যগ্রন্থ "ব্ল্যাকবোর্ড" থেকে
জগদীশ ভট্টাচার্য
  
ক্ষণ-শাশ্বতী
"ক্ষণ-শাশ্বতী" থেকে
জগদীশ ভট্টাচার্য
 
জ্যোত্স্না-ধারায় বিশ্ব ডুবেছে, আলোক-
সুনীল গগনে পান্ডুচন্দ্র মদির নেশায় তন্দ্র
সাধ যায় সখি, তুমি এসে মোর চুপি চুপি
প্রথম-মিলন-রসভ-আবেশে আমরা শুনি
.                   পুষ্পশাখীতে স্বপন নে
.                   সন্ধ্যামালতী বিকাশের
.                   মল্লিকা-বন পুলকি উ
.                   গন্ধগরবী রজনীগন্ধা নি
কুজ্ ঝটিকার অবগুন্ঠনে ইন্দ্রজালের মো
তারকার মালা নভো-নীলিমায় পুষ্পশয়ন
স্বপনবিলাসী প্রেমিক-প্রাণের কত না বা
সে বাসনা সখি, জ্যোত্স্নার সাথে শেষ

পুর্ণিমা রাতে তোমারো প্রাণের প্রেমবিহ
নিদ্ মহলের অন্ধ অতলে প্লাবন এনেছে
বেলা |
দক্ষিণা
"ক্ষণ-শাশ্বতী" থেকে
জগদীশ ভট্টাচার্য
 
কৃষ্ণপক্ষ নিশি
আমারে ঘিরিয়া
স্নিগ্ধ সুনীল তা
স্বপ্নের সন্ধানী

জাগরণ আর ন
তোমার মনের
তাই দিয়ে ঘিরে
রাত্রি কি প্রেমম

আসুক আকাশে
আসুক নয়নে মো
অভিলাষ
"ক্ষণ-শাশ্বতী" থেকে
জগদীশ ভট্টাচার্য
 
চুপ করে চেয়ে দে
.                   
জ্যোত্স্নার সুধা দি
.                  
কলরব করিও না,
.                  
প্রণয়ের দর্পণে চিনে
.                 

কাব্যের খাতা খুলে
.                   
আশে-পাশে শুনিতে
শুভদৃষ্টি
"ক্ষণ-শাশ্বতী" থেকে
জগদীশ ভট্টাচার্য