ত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতা
যে কোন কবিতার উপর ক্লিক করলেই সেই কবিতাটি আপনার সামনে চলে আসবে।
          গাও ভারতের জয়          

.                    মিলে সব ভারতসন্তান,
.                    একতান মন-প্রাণ,
.                    গাও ভারতের যশোগান |
ভারত-ভূমির তুল্য আছে কোন্ স্থান?
.         কোন্ অদ্রি অভ্রভেদী হিমাদ্রি সমান?
ফলবতী বসুমতী,                      স্রোতস্বতী পূণ্যবতী,
.         শত-খনি কত মণি-রত্নের নিধান!
হোক ভারতের জয়, জয় ভারতের জয়, গাও ভারতের জয় ||


.         কি ভয় কি ভয়, গাও ভারতের জয়!
রূপবতী সাধ্বীসতী,                    ভারত-ললনা,
.          কোথা দিবে তাদের তুলনা?
হোক ভারতের জয়, জয় ভারতের জয়, গাও ভারতের জয় ||


.           বশিষ্ঠ গৌতম অত্রি মহামুনিগণ,
.           বিশ্বামিত্র ভৃগু তপোধন,
বাল্মীকি বেদব্যাস,                     ভবভূতি কালিদাস,
.           কবিকুল ভারত-ভূষণ |
হোক ভারতের জয়, জয় ভারতের জয়, গাও ভারতের জয় ||


.           বীর-যোনি এই ভূমি বীরের জননী ;
.           অধীনতা আনিল রজনী,
সুগভীর সে তিমির,                 ব্যাপিয়া কি রবে চির,
.           দেখা দিবে দীপ্ত দিনমণি!
হোক ভারতের জয়, জয় ভারতের জয়, গাও ভারতের জয় ||


.            ভীষ্ম দ্রোণ ভীমার্জ্জুন নাহি কি স্মরণ,
.            পৃথুরাজ আদি বীরগণ!
ভারতের ছিল সেতু,                 রিপুদল-ধূমকেতু,
.             আর্তবন্ধু দুষ্টের দমন |
হোক ভারতের জয়, জয় ভারতের জয়, গাও ভারতের জয় ||


.              কেন ডর, ভীরু, কর সাহস আশ্রয়,
.              যতোধর্মস্ততো জয়!
ছিন্ন ভিন্ন হীনবল,                    ঐক্যেতে পাইবে বল
.              মায়ের মুখ উজ্জ্বল হইবে নিশ্চয় |
হোক ভারতের জয়, জয় ভারতের জয়, গাও ভারতের জয় ||


.        ************************                                                   
              পরে


(১৮৬৮ সালের এপ্রিল মাসে হিন্দু মেলার দ্বিতীয় বার্ষিক অধিবেশনে এই গানটি গাওয়া হয়)


মিলনসাগর
.             ব্রহ্মসংগীত          


.                  
কুকুভা | আড়াঠেকা


কেন ভোলো, ভোলো চিরসুহৃদে? ভুলো না চিরসুহৃদে |
|
ধন প্রাঁ মান সকলি যাঁ হতে, এমন সুহৃদে কেন ভোলো?|
.         থেকো না, থেকো না, তাঁ হতে অন্তর ;
     তাঁরে ছেড়ে ত্রাণ কোথা, কোথা শান্তি বলো?
চিরজীবন-সখা চির-সহায়ে, করুণানিলয়ে কেন ভোলো?|



.       
            ************************                                                       পরে




মিলনসাগর
.             ব্রহ্মসংগীত          


.                  
আশা | কাওয়ালি


.            দয়াঘন, তোমা-হেন কে হিতকারী?
দুঃখ সুখে সব বন্ধু এমন কে, শোক-তাপ-ভয়হারী?|
সঙ্কট পূরিত ঘোর ভবার্ণব তারে কোন কাণ্ডারী
?
কার প্রসাদে দূর-পরাহত রিপুদল বিপ্লবকারী
?|
পাপদহন পরিতাপ নিবারি, কে দেয় শান্তির বারি?
ত্যজিলে সকলে অন্তিমকালে কে লয় ক্রোড় প্রসারি?
|


.                   ************************                                                       
পরে




মিলনসাগর
.              ব্রহ্মসংগীত          


.                      মিশ্র | একতাল


জয় দেব, জয় দেব, জয় মঙ্গলদাতা, জয় জয় মঙ্গলদাতা ;
সঙ্কট-ভয়-দুঃখ-ত্রাতা, বিশ্বভূবন-পাতা, জয় দেব, জয় দেব ||
অচিন্ত্য অনন্ত অপার, নাহি তব উপমা, প্রভু নাহি তব উপমা ;
বিশ্বেশ্বর ব্যাপক বিভু, চিন্ময় পরমাত্মা, জয় দেব, জয় দেব |
জয় জগবন্দ্য দয়াল, প্রণমি তব চরণে, প্রভু প্রণমি তব চরণে ;
পরমশরণ তুমি হে জীবন মরণে, জয় দেব, জয় দেব |
জগ-তারণ দীনেশ, সুখশান্তিদাতা, প্রভু সুখশান্তিদাতা ;
শরণাগত-বত্সল তুমি, পরম পিতা মাতা, জয় দেব, জয় দেব |
আপনা-প্রতি নিরিখি না দেখি নিস্তার, প্রভু না দেখি নিস্তার ;  
একমাত্র ভরসা হে করুণা তোমার, জয় দেব, জয় দেব |
শত অপরাধী আমরা, পাপ ক্ষমা করো হে, প্রভু পাপ ক্ষমা করো হে ;
তব প্রসাদ লাভে প্রভু, পাপ তাপ না রহে,জয় দেব, জয় দেব |
মিলিয়ে ভক্তসমাজ, মাগি বরাভয় দান, প্রভু মাগি বরাভয় দান ;
কৃপা করি হে কৃপাময় দাও চরণে স্থান,জয় দেব, জয় দেব |
কি আর যাচিব আমরা, করি হে এ মিনতি, প্রভু করি হে এ মিনতি ;
এ লোকে সুমতি দাও, পরলোকে সুগতি, জয় দেব, জয় দেব ||



.                   ************************                                                       
পরে




মিলনসাগর
.                ব্রহ্মসংগীত          


.          
               ভৈরবী | ঝাঁপতাল


.                 তৎসৎ ব্রহ্মপদ প্রণমি হে দণ্ডবৎ |
.       শ্রবণ করো করুণা করি প্রভু এ স্তুতি-গীত ত্বরিত
||
শান্তি-সুধা সর্বভূবন বিস্তারো, ইচ্ছা তোমারি হউক সফল হে ;
অনীতি দুর্মতি করি অপহৃত, পূণ্য সলিল বরিষ, বরিষ অমৃত ||
প্রাণের প্রাণ তুমি হৃদয়ের স্বামী, বিকশিত করো আসি হৃদয়কমল হে ;
প্রেম-সুধা দাও চিত্ত-চকোরে, প্রসাদ-বিন্দুর তরে প্রাণ তৃষিত ||
সর্বজ্ঞ সর্বসাক্ষী পুরাণ, কি আর জানাব, জানিছ সকলি হে,
ভক্তবত্সল তুমি, ভক্ত এই যাচে, মোচন করো সর্ব দুরিত দুষ্কর ||
কাতর হইয়ে এসেছি তব দ্বারে, দীন হীন সবে মলিন দুর্বল হে ;
বিঘ্ন-বিনাশন পতিত-পাবন, দেখাও দেখাও হে তব পূণ্যপথ ||
বিশ্ব-নিয়ন্তা বিভু ন্যায়-সিন্ধু, ইচ্ছা তোমারি হউক সফল হে ;
দিব্য পিতা প্রভু পরমকৃপাময়, বিতর সবে শান্তি সুমতি সতত ||



.                   ************************                                                       
পরে




মিলনসাগর
.                ব্রহ্মসংগীত          


.                         খট | সুরফাঁকতাল


ঙ্গল তোমার নাম,                         মঙ্গল তোমার ধাম,
.          মঙ্গল তোমার কার্য, তুমি মঙ্গল-নিদান
||
অকূল ভব-সাগরে                          অনুদিন তুমি সহায়,
.          পাপ-তিমির নাশি বিতর কল্যাণ ||
দুর্বল হৃদয় মোর,                          আশ্রয় কর দান,
.          দুর্গম পথ তরাও, দাও হে পরিত্রাণ |
দুর্জয় রিপু-দ্বন্দ্বে                            অন্তরে বাহিরে,
.          এ সঙ্কটে ধ্রুব নেতা, তুমি কর বিজয় দান ||



.                   ************************                                                       
পরে




মিলনসাগর
.          ব্রহ্মসংগীত          


.                 
পরজ | ঝাঁপতাল


.        
 কে রচে এমন সুন্দর বিশ্বছবি
.        
 রতন-মণি-খচিত অম্বর কি শোভে ||
তরুণ বিভাকর, তারা, বিশদ চন্দ্রমা,
.                  জগত রঞ্জিছে কনক রজত রঞ্জনে ||
সুরভি পুষ্পাভরণ বিপিন, গিরি সিন্ধু নদ,
.                  সকলি পরিপূরুত অতুল প্রভাবে |
.          কেমন সনিপুণ তোমার লেখনী,
.          তোমার জগত-শোভা নিরখি নয়ন ভুলে ||



.                   ************************                                                       
পরে




মিলনসাগর
.          ব্রহ্মসংগীত          


.                 টৌড়ী | ত্রিতাল


.       
      হে প্রভু পরমেশ্বর, তব করুণা
.             মন্দমতি আমি গাহিব বাসনা ;
.                        কী গাব হে কী জানাব
||
তুমি ভূমা অগম্য, দীন আমি যে অধম মলিন |
জনক জননী তুমি সবাকার, সাহস ধরি তাই এসেছি দুয়ার,
.              তব ভক্তজনে প্রভু দাও দরশন |
মম সুকৃতি দুষ্কৃতি সব জান, ভ্রমি দূরে দূরে তব গৃহে আন ;
.              লয়ে যাও জননী, মৃত্যু হতে অমৃতে |
বল হে তোমারে আমি কেমনে পাব? কার দ্বারে যাব?
তুমি না লহ যদি, নাহি অন্য গতি, ডাকি দীনদয়াল |
.              তব ভক্তজনে প্রভু, দাও দরশন ||



.                   ************************                                                       
পরে




মিলনসাগর
.          ব্রহ্মসংগীত          


.                 ভৈরব | চৌতাল


.             সবে মিলে গাও
তাঁহার মহিমা ;
.             আজ কর' রে জীবনের ফল লাভ
|
হৃদয়-থাল ভার, ভক্তি-পুষ্পহার, প্রভু চরণে ছাও রে ছাও
||
নব নব রাগ রচিত বন্দন-মালা, গাঁথি গাঁথি দেও উপহার ;
বিশ্বাধার প্রভু সেই, যশোগীত তাঁরি প্রচার সকল সংসার ||



.                   ************************                                                       
পরে




মিলনসাগর
.          ব্রহ্মসংগীত          


.                 
পরজ | চৌতাল


.             অ
তুল জ্যোতির জ্যোতি,
গ্রহ তারা চন্দ্র তপন, জ্যোতিহীন সব তথা
||
এক ভানু অযুত কিরণে, উজলে যেমতি সকল ভূবন,
তোমার প্রীতি হইয়ে শতধা, বিরচয়ে সতীর প্রেম,
.             জননী-হৃদয়ে করে বসতি ||
অভ্রভেদী অচল-শিখর, ঘননীল সাগরবর, যথা যাই তুমি তথা ;
রবি-কিরণে তব শুভ্র কিরণ, শশাঙ্কে তোমারি জ্যোতি,
তব কান্তি মেঘে, সজন নগর, বিজন গহন যথা আমি তুমি তথা ||



.                   ************************                                                       
পরে




মিলনসাগর