কবি পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গান
*
কথা - পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়, সুর - রতু মুখোপাধ্যায়,
শিল্পী - ধনঞ্জয় ভট্টাচার্য

চামেলি মেলো না আঁখি,
চাঁদিনী কেন মিছে মায়া রাখো ?
আসেনি তো সে প্রিয় কুঞ্জবনে
কোকিলা কেন কুহু কুহু ডাকো  ?
প্রেমের প্রথম উচ্ছলতায়
সলাজ নত মুখে ধরা দিল তায়---
সে লাজ ভেঙো নাকো, মিনতি রাখো ||
ভালো লাগে তার দু’টি কথা
নয়নে দিল মনের বারতা ;
সে নয়ন ওঠে যে ছলছলি,
মন কেঁদে বলে, ‘শোনো গো কলি,
সুরভি দিয়ে কেন মধুপে ডাকো ?’

.          *************************                                                             
সূচিতে    


মিলনসাগর
*
কথা - পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়, সুর -  রতু মুখোপাধ্যায়
শিল্পী - নির্ম্মলা মিশ্র

আবেশে মুখ রেখে পিয়াল ডালে
ওই সাতরঙা পাখি বলে মনের কথা,
গরবী মানিনী তার সাথিরে
বলে নীড় সাজানোর কত কথা---
ও কাঠঠোকরা বউ মান করো না, শোনো কথা ||
নানান নামের গাছ ভরানো সবুজে
পাতারা সব কাঁপে কিছুই না বুঝে |
উড়ছে যত ফুলের মেয়ে শোনে তা’
তারই পাশে চুপি চুপি কনকলতা ||
কাজলা দিঘির ওপারে তার সঙ্গিনী
সেই কথাটি শুনেও যেন মানে না,
কোনো সাড়াই আনে না  |
খবর নিতে শিমূল ওড়ে আকাশে
ভাসিয়ে নিয়ে যায় সে কথা বাতাসে
এমনি লগন ফিরিয়ে তুমি দিও না,
চিরদিন থাকে না এ উজ্জ্বলতা  ||

.          *************************                                                             
সূচিতে    


মিলনসাগর
*
কথা - পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়,
সুর ও শিল্পী - মান্না দে

আজ আবার সেই পথেই দেখা হয়ে গেল
কত সুর কত গান মনে পড়ে গেল ---
বলো ভালো আছো তো |
ক’দিন আগে এমন হলে ক’টা দিন আরো বেশি পেতাম,
আরো আকাশ আরো বাতাস লিখে দিতো তোমারই নাম---
শুধু আমি নয় ওরা সবাই ডেকে ডেকে বলে বলে যেত ||
জানি তোমায় আপন ভাবার
কোনো অধিকার নেই যে গো আর,
এও জানি দেখা হওয়াই কত বড়ো ভাগ্য আমার---
শুধু বলো আজ আমায় ভুলে সুখী হয়েছ কত ||

.          *************************                                                             
সূচিতে    


মিলনসাগর
*
কথা - পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়, সুর - নচিকেতা ঘোষ
শিল্পী - মান্না দে

আমার ভালোবাসার রাজপ্রাসাদে
নিশুতি রাত গুমরে কাঁদে |
মনের ময়ূর মরেছে ওই
ময়ূরমহলে | দেখি মুকুটটা তো পড়ে আছে
রাজাই শুধু নেই ||
দরবারে তার ছিল আমার সোনার সিংহাসন,
আমি হাজার হাতের সেলাম পেলাম, পেলাম না তো মন |
আজ মখমলের ওই পর্দাগুলো
ওড়ায় শুধু স্মৃতির ধুলো
ফুলবাগানের বাতাস এসে আছড়ে পড়ে যেই  ||
আমার নাচঘরে যেই পাগল হতো নূপুর তোমার পায়,
আমি ইরান দেশের গোলাপ ছুঁড়ে দিতাম তোমার গায় |
তুমি শ্বেতপাথরের গেলাস ভরে
অনেক সুধা দিতে ধরে,
আবার বিষও পেলাম তোমার দেওয়া ওই পেয়ালা পেয়েই ||

.          *************************                                                             
সূচিতে    


মিলনসাগর
*
কথা- পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়
সুর ও শিল্পী - মান্না দে

এ কী অপূর্ব প্রেম দিলে বিধাতা আমায়,
ভালোবেসে রাজা বা ফকির দুই হওয়া যায় ||
কখনো সমাধি পরে কখনো বাসরঘরে
একই ফুল ঝরি আমি দু’টি কামনায় ||
আমাকে প্রদীপ করে এ কি আলো দিলে ভরে,
না পেলে বুকের জ্বালা সে যে নিভে যায় ||

.          *************************                                                             
সূচিতে    


মিলনসাগর
*
কথা - পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়, সুর - প্রভাস দে
শিল্পী - মান্না দে

ও চাঁদ, সামলে রাখো জোছনাকে --- কারও নজর লাগতে পারে,
মেঘেদের উড়ো চিঠি উড়েও তো আসতে পারে ||
ঝলমল পরিও না গো, তোমার ওই অত আলো,
বেশি রূপ হলে পরে সাবধানে থাকাই ভালো,
মুখের ওই উড়নিটাকে একটু রাখো, খুলো নাকো, দোহাই একেবারে ||
এই সবে রাত হয়েছে এখনি অমন হলে,
মাঝরাতে আকাশটাতে যাবে যে আগুন জ্বলে,
সেই ফাঁকে তুমিও কখন চুরি যাবে, কাকে পাবে বাঁচাতে তোমারে ||

.                *************************                                                          
সূচিতে    


মিলনসাগর
*
কথা - পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়, সুর - নচিকেতা ঘোষ,
শিল্পী - মান্না দে

ক’ফোঁটা চোখের জল ফেলেছো যে তুমি ভালবাসবে ?
পথের কাঁটায় পায়ে রক্ত না ঝরালে কি করে এখানে তুমি আসবে ?
ক’টা রাত কাটিয়েছ জেগে স্বপ্নের মিথ্যে আবেগে,
কি এমন দুঃখকে সয়েছ যে তুমি এত সহজেই হাসবে ?
হাজার কাজের ভীড়ে সময় তো হয়নি তোমার,
শোনো নি তো কান পেতে অস্ফুট কোনো কথা তার |
আজ কেন হাহাকার করো সে কথায় ইতিহাস গড়ো,
কী সুখ জলাঞ্জলি দিয়েছো যে তুমি সুখের সাগরে ভাসবে ?

.                *************************                                                          
সূচিতে    


মিলনসাগর
*
কথা - পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়,
সুর ও শিল্পী- মান্না দে

জানি তোমার প্রেমের যোগ্য আমি তো নই,
পাছে ভালোবেসে ফেলো, তাই দূরে দূরে রই ||
আমার এ পথে শুধু আছে মরুভূমি ধু ধু,
আমি কী বাবে বাঁচাব তোমার মাধবী ওই ||
কত পেয়ালা লাঞ্ছনার আমি নীরবে করি যে পান,
আর যারা সুধা নিয়ে চলে তুমি গাও গো তাদেরই গান |
এমনই বিভেদ কত মনে আসে অবিরত---
দু’টি ভিন্ন জীবন যেন না মিলিত হই ||

.       *************************      
.                                                                                               
সূচিতে    


মিলনসাগর
*
কথা - পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়, সুর - রতু মুখোপাধ্যায়
শিল্পী - মান্না দে

না, অভিমানে চলে যেও না---
এখনই শেষের গান গেও না ||
এখনো হৃদয়ে কাঁদে তিয়াসা,
এর চেয়ে ভালো ছিল না-আসা |
এ তিথি এখনো আবেশে জড়ানো
ভেঙে দিতে তাকে চেও না ||

.       *************************      
.                                                                                               
সূচিতে    


মিলনসাগর
*
কথা - পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়, সুর - অধীর বাগচী,
শিল্পী - মান্না দে, ছবি - দুই পুরুষ

বেহাগ যদি না হয় রাজি, বসন্ত যদি না আসে,
এই আসরে ইমন তুমি থেকো বন্ধু আমার পাশে ||
তোমার সুরের হাতটি ধরে চলো চলে যাই
যেখানেতে আনন্দরাগ বাজে গো সদাই,
কথার ফুলে সুরের ভ্রমর যেথায় মিলন সুখে হাসে ||
চোখের দেখা যাক ফুরিয়ে ক্ষতি কিছু নাই,
স্বপ্ন দেখার নাই সীমানা দেখে যাব তাই---
ভালোবাসাই শিখেছে মন, তাইতো শুধু ভালোবাসে  ||

.             *************************      
.                                                                                               
সূচিতে    


মিলনসাগর