কবি রাজেশ দত্ত-র জন্ম হুগলী জেলার চন্দননগরে। সেখানকার কানাইলাল বিদ্যামন্দির থেকে ১৯৮৮
সালে হায়ার সেকেণ্ডারি পরীক্ষা পাশ করেন। এর পর হুগলী ইনস্টিটিউট অফ টেকনলজি থেকে  
মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এর ডিপ্লোমা করে হিন্দ মোটর কারখানার চাকরিতে যোগ দেন। এখন তিনি
একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে কর্মরত রয়েছেন  এবং  ভারতের মানবতাবাদী সমিতির হয়ে কাজ করে
চলেছেন।

কবি একজন সুরকারও বটে। তাঁর রচিত ও সুরারোপিত গান সিঙ্গুর-নন্দীগ্রাম-লালগড় আন্দোলনের সময়ের
বাংলার আন্দোলনমুখী মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে | গায়িকা সুতপা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কণ্ঠে তাঁর
গানের এলবাম "পাল্টা স্রোতের গান" অনবদ্য। কবির কবিতা ও গান সম্বন্ধে তাঁর নিজের মূল্যায়ন যথেষ্ট
তাত্পর্যপূর্ণ। তিনি বলেছেন ---

"আমার এ গান ধ্রুপদী সঙ্গীত রসিকদের জন্য নয়। পেশাদার প্রাতিষ্ঠানিক মহলেও হয়তো এ গানের কোনো
আবেদন নেই। যন্ত্রসঙ্গীতের অনুষঙ্গ বর্জিত এই গানগুলো নেহাতই আমার মতো ছাপোষা, আটপৌরে
মানুষদের জন্যে। মাটি দিয়ে আশ্চর্য সুন্দর মূর্তি গড়েন কৃষ্ণনগরের নামিদামি শিল্পীরা। আবার সেই মাটি
দিয়েই গেরস্থালির হাঁড়িকুড়ি, কলসি গড়া হয় কুমোরপাড়ায়। আমার গান সেই কলসি হাঁড়ির মতোই। শো-
কেসে সাজিয়ে রাখার মতো নান্দনিকতা বা শিল্পসুষমা হয়তো নেই, কিন্তু বাঁচতে গেলে দিন-প্রতিদিনের
জীবনে এগুলো ছাড়া চলবে না।"

সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম লালগড় আন্দোলনের উত্তাল সময়ে তাঁর গানে প্রতিবাদের ভাষা খুঁজে পায় মানুষ।


মিলনসাগরে  আমরা ভীষণভাবে কৃতজ্ঞ কবি রাজেশ দত্ত-র কাছে, কবি সুরেশ বিশ্বাসের কবি জীবনী লিখে
পাঠানোর জন্য। এ ছাড়া মিলনসাগরের সমগ্র গণসঙ্গীতের সংগ্রহটি তাঁরই উদ্যোগ ও সহযোগীতায়
করা সম্ভব হয়েছে।




কবির সঙ্গে যোগাযোগ -
ঠিকানা - তারাপদ দাস লেন, কোলুপুকুর, পোস্ট - চন্দননগর, হুগলী, পিন ৭১২১৩৬, পশ্চিম বঙ্গ।
চলভাষ - ৯১৯৪৩৩৫৬৬৩০২,
ই-মেল :
rajeshdattain@yahoo.com     rajeshdattain@gmail.com      
কবির ফেসবুকের পাতা - https://www.facebook.com/manabatargaan?fref=ts         



কবি রাজেশ দত্তর মূল কবিতার পাতায় যেতে এখানে ক্লিক্ করুন।     



আমাদের ই-মেল -
srimilansengupta@yahoo.co.in    


এই পাতার প্রথম প্রকাশ - ৭.৭.২০১১
মোট ৯৫টি কবিতার পরিবর্ধিত সংস্করণ - ১২.৩.২০১৭
মোট ১৯৭টি কবিতার পরিবর্ধিত সংস্করণ - ১৬.১২.২০১৮

৩৩টি "কবিতা থেকে গান" পর্যায়ের গান সহ মোট ২৩০টি কবিতার পরিবর্ধিত সংস্করণ - ১৮.১২.২০১৮



...