কবি শ্যামল গুপ্তর গান ও কবিতা
www.milansagar.com
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত
সুর - জ্ঞানপ্রকাশ ঘোষ, কণ্ঠ - সন্ধ্যা
ছায়াছবি - বসন্ত বাহার

বাঁধে ঝুলনা তমাল বনে এসো দুলি দুজনা
ওগো সাথী মধুরাতি এলো নাহি তুলনা
সুরে সুরে আজি মাধুরি ছড়ায়ে
মালতী মালা দাও কন্ঠে জড়ায়ে মোর মিলন তিথি যেন ভুলোনা
দখিনা বাতাসে একি দোলা লাগে আবেশে দুটি হিয়া ভরে অনুরাগে
প্রণয় রাখি যেন কভু ভুলো না |

.       ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত
সুর - নচিকেতা ঘোষ, কণ্ঠ - সন্ধ্য
ছায়াছবি - স্বয়ংসিদ্ধা


এ রাত বড় নিলাজ সয়না দেরী সয়না
তৃষ্ণায় ভরা এ রাত সুরায় শুধু হয়না আ----
লুটে নাও ------ হো -----হো ----- হো------হো লুটে নাও
পেয়ালাটা থাক পড়ে বুকে তুলে নাও মোরে
মিছামিছি রাতটাকে কেন যেতে দাও লুটে নাও----
কামনার ফুল বাগানে ধরেছে কলি এসো ওগো মৌ-পিয়াসি চতুর অলি
মদিরা মদিরা মেশা এ মধুতে আরো নেশা
অধরে অধর দিয়ে ----- ও রাজাবাবু পান করে যাও -যাও
লুটে নাও ----- লুটে নাও------ লুটে নাও লুটে নাও হে----
আলোগুলো দাও নিভিয়ে আধারই ভালো
চেয়ে চেয়ে এই দু চোখে জোছনা আলো
দু হাতে জড়িয়ে ধরে আমাকে তোমার করে
রেশমি ওড়নাটাকে ও বাবুজি দাও খুলে দাও দাও
লুটে নাও----লুটে নাও------ লুটে নাও  ও  ও   ও লুটে নাও ||

.       ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত
সুর - মানবেন্দ্র, কণ্ঠ - সন্ধ্যা
সিনেমা - সুদূর নিহারীকা

আহত পাখী কি করে গাহিবে গান
তার বুকের রুধিরে দিন হোলো অবসান
তার শূন্য নীড়ে হাহাকার কেউ শোনে না----
তার পথ চেয়ে ওগো কেউ আর দিন গোনে না
তার থরথর ঠোঁটে এক ফোটা জল কে দেবে -----
তার হৃদয়ের ব্যথা সম ব্যথা হ’য়ে কে নেবে
তার চোখের আঁধার চারিধার করে ম্লান কি করে গাহিবে গান
তার বুকের রুধিরে দিন হোলো অবসান

.       ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত

আজ এই রাত জলসার রাত সোহাগেরি রাত-----দুজনেরি রাত-----
আঁখিতে কাজল আঁকি পিয়া নাম লিখে রাখি, রূপেরই প্রদীপ জ্বেলে
আঁচল ঢাকি ভালোবাসার এ রাত , গজলের রাত বেহিসাবী রাত
নেশা মেশা রাত----- প্রথম দেখাতে হয়েছি তোমার আঁধারে এনেছো
আলোর জোয়ার, রঙে রঙে গন্ধে উজ্জ্বল আনন্দে প্রেমেরই কমল
ফুটেছে এবার, কিসেরই এত যে দ্বিধা বোঝে না এ ইশারা কি
এসো গো ভ্রমর বধূ পিপাসা মেটাবে না কি আঁখিতে

.       ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত
সুর - মানবেন্দ্র, কণ্ঠ - সন্ধ্যা
ছায়াছবি - জয়জয়ন্তী

ওরে আয় আয় আয় আয় আয়
আমাদের ছুটি ছুটি, চল নেবো লুটি ঐ আনন্দ ঝরনা
সোনা ঝরা খুশী ভরা মিষ্টি আলোর ওড়না
ঐ সাতরং রামধনু থেকে প্রজাপতি রঙ মেখে মেখে
ফুলে ফুলে স্বরলিপি লেখে, গা মা পা রে মা পা ধা নি সা সা সা
সারেগা রেগারে গামাপা মাপামা পাধানি ধানি পাধা নিসা
সারে গা মাপা মাগা রেগা মাপাধা মাধা গামা ধানি গাপা মাপা ধানিসা
ওই দূরে রাখালিয়া সুরে যে বাঁশী
পাহাড়ে তুলেছে ঢেউরে পাহাড়ে তুলেছে ঢেউ
নীল সবুজের কোলে দোলে দোদুল দোল
শিখে তো নেনা কেউ বন্ধুরে, শিখেতো নেনারে কেউ
ওই নীল পাখী নীর খুঁজে ফেরে
গানে গানে তোর প্রাণ যেরে, দুচোখে আকাশ ভরে নেরে |
গামাপা রেমাগা ধানিসা

.       ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত
সুর - মানবেন্দ্র, কণ্ঠ - সন্ধ্যা
ছায়াছবি - মায়ামৃগ

ও বক্ বক্ বকম্ বকম্ পায়রা তোদের রকম সকম দেখে
মুখ টিপে যে হাসছে ভোরের আকাশটা দূর থেকে
খোলা হাওয়ার ওই যে আলোর ঝরণা ঝরানো
রঙ বেরঙের নতুন খুশীর মাতন ছড়ানো
শুনিস নাকি মিষ্টি সুরে বলছে ওরা ডেকে
পাখনা মেলে আয়না চলে বাঁধন ফেলে রেখে
লোটন লোটন পায়রা তোরা ঝোঁটন বেঁধে নে
হারিয়ে যাবার সুরে প্রাণের বাঁশী সেধে নে
একটু আরাম একটু সুখের মিথ্যে আশাতে
মিছে কেন বন্দী থাকিস ছোট্ট বাসাতে
যা চলে যা অবাধ ডানায় স্বপ্ন চোখে এঁকে
অথই নীলে নতুন দিনের সোনালী রোদ মেখে |

.       ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত
সুর - মানবেন্দ্র, কণ্ঠ - সন্ধ্যা
সিনেমা - জয়জয়ন্তী


বাঃ ছড়াটাতো বেশ, তারপরে কি ? এইটুকুতেই মন ভরে কি
উহু !  না ---না---মন ভরে না----
কি হলো, কি হলো কারো যে মুখে কথা সরেনা
চোখের পলক আর কেন পড়েনা---
হা হা হা --- হি হি হি কেউ হাসছো না যে
আন্টির কাছে কেউ আসছো না যে
হায় হায় হায় হায় ---চইটকে পড়লো ব্যাগ, চশমা ছাতা
হার গোড় ভাঙলো যে, ফাটলোরে মাথা
ডেকে আন ডাক্তার --- নয় তোরা শোন, এম্বুলেন্সকে কর তাড়াতাড়ি ফোন
বুঝি এই যাত্রায় নেই রক্ষে সর্ষে ফুল দ্যাখ চোখে
ওরে আন্টি তোর যায় যায় প্রাণটি | এবার আমার ছড়াটা কেমন ?
এ পটল তুলতে গিয়ে আন্টি ভুলে
এই কলার খোলটা তাই ফেলেছে ভুলে
এত সহজে সে হার মানেরে পড়লে উঠতে হবে সে জানেরে
পথটা যতই হোক হাজার পিছল ভাগ্যের সিঁড়ি বেয়ে চল উঠে চল
ওরে আন্টিরে ধর গলা ছেড়ে গানটি  |

.       ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত
সুর - মানবেন্দ্র, কণ্ঠ - সন্ধ্যা
ছায়াছবি - জয়জয়ন্তী

কে প্রথম চাঁদে গেছে বলতো নাম---
নীল আমর্ষ্ট্রং আমর্ষ্ট্রং এভারেষ্ট কে জয় করেছে আগে
তেনজিং নোরগে---তেনজিং ---তেনজিং ---লা লা লা ---লা লা লা---
বন্দেমাতরম মন্ত্র কে শেখালো বল দেখি ?  ঋষি বঙ্কিম, ঋষি বঙ্কিম
জয়হিন্দ বলে ডাক দিলো কে ? নেতাজি  নেতাজি
আমারই বোন আমারই ভাই কে বলেছে ---স্বামীজি ---স্বামীজি
আমরা তেমন কিছু করলে আমাদেরও লোকে মনে রাখবে
ইতিহাসে নাম লেখা থাকবে---  লা  লা  লা  
সব চেয়ে নাম করা ফুটবলে ---পেলে , ব্রাজিলের পেলে--- পেলে পেলে পেলে
চৌখস খেলোয়ার ক্রিকেটে কে ? সোবার্স গারফিল্ড সোবার্স লা লা লা ----
বিশ্বের মন জয় করলো কে, সেতারে সরোদে---
বল দেখি--- রবিশঙ্কর, আলি আকবর |
মোনালিসা ছবি আঁকা কার তুলিতে --- লিওনাদো লিওনাদো দা ভিঞ্চি
পপ সঙ গায় কারা দেশ বিদেশে বলো দেখি বিটল্ স বিটল্ স ---
আমরা তেমন কিছু করলে আমাদেরও লোকে মনে রাখবে ---
ইতিহাসে নাম লেখা থাকবে লা-- লা---লা---

.       ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত
সুর - মানবেন্দ্র, কণ্ঠ - আলপনা বন্দ্যোপাধ্যায়

হুম্ --- মন বলছে আজ সন্ধ্যায় কিছু বলতে তুমি আসবে কি
আসবে কি, আমি শুনবো কিছু বলবো, কিছু স্বপন চোখে ভাসবে কি---মন
বনে স্বর্ণচাপা ফুটবে দুটি একটি তারা উঠবে
ওরা হয়তো সেই লগ্নে চেয়ে দেখবে মৃদু হাসবে কি, আমি শুনবো কিছু---
ঐ ক্লান্ত নীড়ে পান্থ পাখী ফিরবে গান থামবে কাছে আমরা বসে থাকবো
ছায়া ফিরবে রাত নামবে, আরও শুনতে তুমি চাইবে কি
আরও বলবে গান গাইবে আদো লজ্জায় হাসি তুলবে,
দেখে তাই যে বালবাসবে কি --- আমি শুনবো---

.             ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর
*
কথা - শ্যামল গুপ্ত
সুর - অনল চট্টোপাধ্যায়, কণ্ঠ - সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়

জলতরঙ্গ বাজে আনমনা সাজে,
কেন যেন হলো না যে কলস ভরা---- জলতরঙ্গ
আকাশে নদীতে ছড়িয়ে ছড়িয়ে গেচে মন
আখির পাখির আকুলি বিকুলী সারাক্ষণ কি আমি চাই কাকে বোঝাই
বেলা যে কেটেছে কাজে অকাজে কেন যেন হলো না যে
জল তরঙ্গ বাজে তাতা, থৈয়া দোলে পুরবৈয়া নাচে বরষা যে
একেলা একেলা যে ভালো যে লাগে না কিছু আর
এলে কি এলেনা কেবলি করেছি ঘর বার
কি আমি গাই কাকে যে শোনাই নিজেকে নিয়ে মরি যে লাজে

.             ************************     
.                                                                                           
সূচিতে . . .    




মিলনসাগর