কবি স্বপ্না গঙ্গোপাধ্যায়ের কবিতা
*
এই বসন্তে
কবি স্বপ্না গঙ্গোপাধ্যায়

এই বসন্তে পলাশ কৃষ্ণচূড়া লালে লাল।
আগুন রঙা শিমুল বনে
খেলা করে বন জ্যোত্স্না।
মধ্যরাতে কাঁচঘরেই ই-মেল যন্ত্র,
মাপা শব্দ শাণিত ভাষায়
প্রিয়াকে পাঠায় ভালোবাসার মন্ত্র।
হঠাৎ বসন্তের মাতাল হাওয়ায়,
খুলে যায় কাঁচঘরের দরজা ;
রঙাগনের ঝোপ আহ্বান জানায়
তার নিবিড় উষ্ণতার।
প্রেমের জন্য দুহাত বাড়িয়ে দেয়
মাধবীলতার সুবাস।
নিম ফুলের গন্ধ ভেসে আসে বাতাসে,
কাঁচঘরের যন্ত্র ওঠে কেঁপে।
কম্পিউটারের জগৎ থেকে সরে যায়
ইন্টারনেট, ওয়েবসাইট, ল্যাপটপ, রিমোট কন্ট্রোল।
বসন্তের মাতাল বাতাস---
এলোমেলো করে দেয় সব অঙ্কের নিয়ম।
যন্ত্রমানব এসে দাঁড়ায় খোলা জানালায়---
নিজস্ব ভাষায় প্রিয়াকে তার ভালোবাসা জানায়।
নিঃসঙ্গ দুটি মন করতলে খোঁজে উষ্ণতা
পলাশ বনে তখন শুধুই ফাগের খেলা।

.            *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
নীলকণ্ঠ
কবি স্বপ্না গঙ্গোপাধ্যায়

এই সমস্ত কথাই তো
ঘুরে ফিরে কাঁটার মত বেঁধে
শ্রাবণের বৃষ্টির মত আমার
.        বুক ছুঁয়ে থাকে।
এখন তুমি সারাদিন ব্যস্ত হাজার
কাজের স্রোতে
আমার দু চোখে বৃষ্টি---
ভুল মানুষকে আদর করে
ফোটানো নীলপদ্ম
জামদানীর নকশায় ঢাকা পড়ে।
নির্জন দুপুরে নির্জন ট্রাম লাইনে
দাঁড়িয়ে ভাবি---
রোদ্দুর তুমি একবার মেঘ হও,
তোমাকে জড়িয়ে তুলে আনি নীল পদ্ম,
আর একবার নীলকণ্ঠ
হয়ে উঠি শুধু তোমার জন্যে।

.         *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
রাত পোষাক
কবি স্বপ্না গঙ্গোপাধ্যায়

রাত পোষাকে নাইব বলে
.                 যেই নেমেছি জলে
মন্ত্রপড়ার তোমার আঙুল
.                ছুঁয়ে দিল কোন ছলে।
বদলে গেল জলের রঙ
বদলে গেল সব
রাতপোষাকে নেমে এল
.                বাধ ভাঙা নদীর ঢল।
নাকছাবির ওই হীরের ছটায়
.                ঘটল রঙবদল।
আমায় ঘিরে তোমার তখন
.                অন্য এক আদর।

.         *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*
উত্তাপ
কবি স্বপ্না গঙ্গোপাধ্যায়

পাষাণে নয় পাথরে রেখেছি হাত
যদি পাষাণ না হয় গলে পড়বে,
যদি মেঘ হয় বৃষ্টি হয়ে ঝরে পড়বে।
যদি নদী হয় ধুয়ে নেবো
শরীরে জমে থাকা আজীবন ধুলো,
পিছনের সমস্ত উত্তাপ, কলুষ, রোদ,
যদি তুমি বলো---
সাঁতার জানি না ডুবে যাবো
আমি একাই অহল্যা হব
অহমিকার উত্তাপ জুড়োতে
আজন্ম নদীকেই সঙ্গী করব।

.       *****************

.                                                                                          
সূচিতে . . .   


মিলনসাগর
*