কবি ধীমান পাল-এর কবিতা
*
টুকরো কথা
কবি ধীমান পাল

যত গাঢ় হয় দুঃসময়
ছানি পড়া দুটি চোখ যেন-
তীক্ষ্ন দৃষ্টি ফিরে পায় ,
তখন চেনা জানা সব কিছুই
কেমন যেন অচেনা মনে হয় ৷
ধূর্ত মানুষগুলো সব বিবস্ত্র হয়ে
ঘেঁটে চলে পুরনো কাসুন্দি ,
প্রেম তখন প্রেমিকের ফুটো পকেট দিয়ে
খুচরো পয়সার মতো
ঝন্ ঝন্ করে মাটিতে গড়িয়ে পড়ে ৷

.              ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
আশঙ্কা
কবি ধীমান পাল

আশঙ্কায় দিন কেটে যায়
নতুন প্রভাতের আশায় ,
সদ্যজাত শিশুর চোখে
অন্ধকার পৃথিবীর প্রতিচ্ছবি দেখা যায় ,
দিন দিন বেড়ে যায় সমান্তরাল শাশনের দৌরাত্ম ,
ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মানুষের দল , সর্বস্ব হারিয়ে ,
অন্তঃসার শূন্য হয়ে-
প্লাস্টিকের ক্যারিব্যাগের মতো
দমকা হাওয়ায় এদিক ওদিক ভাসতে ভাসতে
নর্দমার পাঁকে গিয়ে জমা হয় ৷

.              ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
কবিতা- শুধু তোমার জন্য
কবি ধীমান পাল

কবিতা- শুধু তোমার জন্য
হয়েছে আমার জন্ম ,
বিশাল এ পৃথিবীতে
আজন্ম আমি লিখে চলেছি তোমায় ,
ভেবে চলেছি তোমায় ৷
তোমার ভাবনায় , চোখে নামে জল ,
ঠোঁটে জাগে ভাষা ,
আর শরীরের রক্তে জাগে শিহরন ৷
কাঁপা কাঁপা হৃদয় , আর ভাঙ্গা চোরা মন , তবুও সেখান থেকে –
বের হয় শুধু তোমারই গুঞ্জন ৷
কবিতা- শুধু তোমার জন্য
হয়েছে আমার জন্ম ৷

ভাবনা , চেতনা মিলেমিশে একাকার – তোমাতে ,
কল্পনার দুনিয়াতেও শুধু তোমার কোলেই –ভেসে থাকে মন ,
আরতো কিছু আসেনা আমার মাথাতে ৷
পাগলের প্রলাপ , লোকে বলে –
তা বলুকনা-
কিন্তু আমি তো শুধু জানি ,
কবিতা- শুধু তোমার জন্য
হয়েছে আমার জন্ম ৷

চুম্বনের ভাষা , তাতেও তুমিই প্রকাশ ,
বিরহের বেদনা ,
তাতেও তুমিই প্রকাশ ,
তোমার জন্য আমি লক্ষ-কোটি বছর
অভুক্ত থেকেও , চলতে পারি পথ ,
রাজদরবারেও আমি নেব তোমার শপথ ৷
কবিতা- শুধু তোমার জন্য
হয়েছে আমার জন্ম ৷

কবিতা- শুধু তোমার জন্য
দেউলিয়া হতে পারি আমি ,
রাজার বসন ছেড়ে , নিরাভরন দেহে
রাস্তায় আমি নামতে পারি ৷

তোমার ভাষায় বক্তৃতা করে
হতে পারি বিখ্যাত লোক
অন্ধকারেও তোমাকে জ্বালিয়ে
জ্বালাতে পারি সহস্র কোটি আলোক ৷
শত শোষিতের , লাঞ্ছিতের
প্রতিবাদের ভাষা তুমি ,
জ্ঞানী-মূর্খের ভেদাভেদ মুছে
তুমি পবিত্র করেছো আমার জন্মভূমি ৷
কবিতা- শুধু তোমার জন্য
হয়েছে আমার জন্ম ৷৷

.              ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
বনস্পতি
কবি ধীমান পাল

বুকের মধ্যে বদ্ধ হয়েছিল
এক মাতাল করা সৌরভ ,
একটা একটা করে পাঁপড়ি খুলে যখন আত্মপ্রকাশ করে
তখন বট , অশ্বত্থ , শাল পলাশের দল নত মস্তকে
বন্ধ চোখে শ্বাস নিয়ে যায় ৷
সুগন্ধি বাতাসের ডাকে
চাঁদ পৃথিবীর কাছে আসে
দীর্ঘ হয় পূর্নিমা ……….
শত লাঞ্ছনা
অত্যাচারের গ্লানি
লাল , পুরাতন রক্তের – কালসিটে দাগ
ধুয়ে নিয়ে যায় ৷
এরপর যখন বারি ধারা ঝরে অঝোর ধারায়
রোদে পুড়ে যাওয়া মাটি ঝলসে যাওয়া বনস্পতি
প্রান ফিরে পায় ,
কৌলিন্য হীন নবীন ফুলকে ,
দুহাত তুলে করে আশির্বাদ ৷৷

.              ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
টুকরো কথা - ২
কবি ধীমান পাল

কাঠ ফাটা রোদ্দুর
হাতে নেই ছাতা
ঘামে ভেজা গায়ে
বাঁচবেকি মাথা ৷

চারিদিকে কোলাহল
আর বাজে ঘন্টা
তাতেও যদি ভাঙ্গে ঘুম
বেঁচে যাবে প্রানটা ৷

ধুঁয়ো ওড়ে উনুনের
জ্বলে কাঠ আগুনে
আধ ফোটা ভাত খেয়ে
গান গাই ফাগুনের ৷

কাটা কুটি করে যাই
সারা খাতা জুড়ে যে
গোড়াতেই গড়মিল
হিসেবটাকি মিলবে ৷৷

.       ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
টুকরো কথা - ৩
কবি ধীমান পাল

সিলিং ফ্যান অবিরাম ঘুরছে
হাল্কা পারফিউমের গন্ধ ছড়াচ্ছে চারিদিকে ,
সুখ ঢাকা পড়ে যাচ্ছে , অসুখের চাদরে ৷
গভীরভাবে ভেবে চলা শব্দগুলো
একে একে বেরোতে থাকে  বুকের ভেতর থেকে ,
আর রেখে যায় ছোট ছোট অনেকগুলো ক্ষত্ ৷

মেলার আসরে , পড়ে পাওয়া চোদ্দ আনায় ,
আলতোকরে আইসক্রিমে কামড় ,
আর নাগরদোলায় ঘুরতে ঘুরতে
দূর থেকে ভেসে আসা বিরহের সুর শোনা ৷

বিছানায় ক্ষনিকের চুম্বন সুখ ,
আর মিলনের অমোঘ বাসনা ,
ভেদাভেদ ভূলে যায় নারী –পুরুষ ,
তৃপ্ত হয় শরীরের রসনায় ৷৷

.       ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
টুকরো কথা – ৪
কবি ধীমান পাল

সামনে দাঁড়ানো উঁচু উঁচু ফ্ল্যাটের সারি
করেছে কি আমাদের সাথে আড়ি ,
ওদের বুকের ভেতর হাজার মানুষের সপ্ন ,
কিন্তু কেউ তো বানায় না ওদের জন্য বাড়ি ৷৷

.                ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
এরা ফেরেনা
কবি ধীমান পাল

হারিয়ে যাওয়া সন্ধ্যা
আর ফুরিয়ে যাওয়া মদের বোতল ,

রক্তে ভিজে যাওয়া রাস্তা
আর বন্দুক হাতে মস্তান ,

গ্রীষ্মে শুকিয়ে যাওয়া পুকুর
আর প্রেমে ব্যর্থ প্রেমিক ,
হারিয়ে যাওয়া মন
আর বিলিয়ে দেওয়া নোট ,

মরে যাওয়া আশা
আর শুকিয়ে যাওয়া চোখ ,

ঝরে যাওয়া রক্ত
আর ক্যানসার হয়ে যাওয়া ক্ষত্ ,

লুটিয়ে যাওয়া সম্মান
আর বিকে যাওয়া নারীর ইজ্জত ,

এরা ফেরেনা কখনো,
শুধুই আঘাত দিয়ে যায় ৷৷

.           ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
টুকরো কথা – ৫
কবি ধীমান পাল

বাতাসের স্পর্শে নেচে ওঠে গাছের পাতা ,
ফুলের গন্ধে মাতাল হয়ে ওঠে মন ,
শরীরের গন্ধে জেগে ওঠে শরীর ,
বারুদের গন্ধে বুঝি , কোথাও হয়েছে বিস্ফোরন ৷

আচারের গন্ধে লকলক করে জিভ ,
সুখের স্পর্শে চিক্ চিক্ করে চোখ ,
প্রেমিক খোঁজে প্রেমিকার যৌবন ,
আর অসুখের স্পর্শে মৃত্যুর দিন গোনে মন ৷৷

.           ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর
*
টুকরো কথা – ৭
কবি ধীমান পাল

ছেঁড়া অন্তর্বাস
আর বদ্ধ বাতাস
ধর্ষিতার জোটে শুধুই
মিথ্যা আশ্বাস ৷

হারিয়ে যাওয়া মন
আর নষ্ট হয়ে যাওয়া শরীর
জুড়বে কিনা জানিনা ,
তবুও তো জুড়ে যায় ৷

হ্যালোজেনের বিপরীতে
চলে , আলো আঁধারীর খেলা ,
আর রাস্তায় নিরব মানুষের মিছিল
দেখে যায় উড়ন্ত চিল ৷৷

.           ***************  
.                                                                                
সূচিতে . . .    


মিলনসাগর