রজনীকান্ত সেন-এর "সদ্ভাব কুসুম" কাব্যগ্রন্থের কবিতা
*
পূর্ণিমার সন্ধ্যাকালে চাঁদ উঠে পূবে
কবি রজনীকান্ত সেন
সদ্ভাবকুসুম (১৯১৩) কাব্যগ্রন্থের কবিতা

চন্দ্র ও সূর্য

পূর্ণিমার সন্ধ্যাকালে চাঁদ উঠে পূবে,
পশ্চিমের আকাশেতে সূর্য যায় ডুবে।
উঁকি মেরে চাঁদ কয় সূর্য পানে চেয়ে,
“ওগো সূয্যি মামা! কোথা চলিয়াছ ধেয়ে?

এতক্ষণ পোড়া জীবে পোড়াইয়া ধীরে,
শরীরের জ্বালা বুঝি নিভাইতে নীরে
সাগরে ডুবিয়াছ? ভাল, উঠিও না আর,
আমি আসিতেছি, তাপ জুড়াতে ধরার।

আমার শীতল জ্যোত্স্না পেয়ে জীবগণ,
আমি আছি, তাই বাঁচে জীবনের জীবন,
হাতে বাতে প্রাণ দেয় আমার কিরণ।
পৌষমাসে যত্সামান্য দক্ষিণেতে সরি,
শীতে মৃতপ্রায় জীব,---কম্প থরথরি।

আমার কিরণ পেয়ে বাঁচে যত তরু,
নতুবা এ ধরা হ’ত অনুর্বর মরু।
ফল, ফুল, লতা, গুল্ম, শস্য অগণন,
তুমি না থাকিলে চাঁদ কি বিশেষ ক্ষতি?