কবি আরকুম-এর বাউল গান
*
চাইর চিজে পিঞ্জিরা বানাই মোরে কইলায় বন্ধ
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউলাঙ্গের গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ১৩৯-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ মনের মানুষ॥

চাইর চিজে১ পিঞ্জিরা বানাই’২ মোরে কইলায়৩ বন্ধ।
রে বঙ্গু নির্ধনীয়ার ধন,
কেমনে পাইমু রে কালা, তোর দরশন॥

সমুদ্রের জল উঠে বাতাসের জোরে
আবর৪ হইয়া ঘুরে পবনের ভরে।
জমিনে পড়িয়া শেষে সমুদ্রেতে যায়
জাতেতে মিশিয়া জাতে তরঙ্গ খেলায়॥

তুমি আমি, আমি তুমি, জানিয়াছি মনে---
বীচিতে জন্মিয়া গাছ বীচি ধরে কেনে।
এক হইতে দুই হইল প্রেমেরি কারণ,
সে অবধি আশিকের দিলে৫ করে উচাটন॥

পরিন্দা জানোয়ার৬ যদি কোনো এক কলে
জ্ঞাতি ছাড়া বদ্ধ হয় শিকারীয়ার জালে :
কি হালে জিন্দেগী কাটে বন্ধখানায় তার---
মাণ্ডক৭ হইয়া করো আশিকের বিচার॥

আশিক-মাশুক যদি থাকে দুইস্থানে---
টেলি দিয়া খুশির মঙ্গল৮ যদি জানে ;
বিনা দরশনে কিলা বাঁচিব জীবন৯
শুন প্রভু প্রাণ দিয়া মোর নিবেদন॥

পাগল আরকুমে কয়, মাশুক-বানিয়া১০,
দুয়াঙ্গ পাতিয়া থইছইন উলুরে গাঁথিয়া১১।
আহার করিতে যদি না যাইত মন---
না লাগিত প্রেম-লাঠা১২, না হইত মরণ॥

১ - বস্তুতে, ২ - বানাইয়া, ৩ - করিলে, ৪ - মেঘ, ৫ প্রেমিকের মনে, ৬ - যে প্রাণী উড়িতে জানে,
৭ - প্রেমাম্পদ, ৮ - টেলিগ্রাম কবিয়া খুশির খবর, ৯ - কি প্রকারে জীবন বাঁচিবে, ১০ - বেনে,
১১ - উইপোকা রাখিয়া (পাখী ধরিবার) ফাঁদ পাতিয়া রাখিয়াছেন, ১২ - প্রেমের লেঠা।

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
*
আমরা প্রেম বাজারে থাকি
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউলাঙ্গের গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ১৪৩-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ মনের মানুষ॥

আমরা প্রেম বাজারে থাকি---
আশিক ছাড়া১ পুরুষ-নারী হাবিয়া দুজখী২

আর এস্কে৩ আল্লা, এস্কে রছুল৪
এস্কে আদম খাকি৫ ;
আদম হইতে হাওয়া৬ পয়দা
প্রেম-খেলার লাগি’।
---দয়াল, প্রেম-বাজারে থাকি॥

আর জলিখা এস্কেতে পাগল
ইউছুফের লাগি’ ;
শিরির জন্য ফরহাদ মইল
খসরু হইল পাতকী।
---দয়াল, প্রেম-বাজারে থাকি॥

আর কুমারে দেখিয়া পাগল
কন্যা চন্দ্রমুখী ;
সুড়ঙ্গ পথে বাহির হইয়া
বেশ ধরিল যোগী৭।
---দয়াল, প্রেম-বাজারে থাকি॥

লায়লী আর মজনু পাগল
এক দোঁহার লাগি’ ;
জহুরা কান্দিয়া বেড়ায়
বারাম না দেখি’৮
---দয়াল, প্রেম-বাজারে থাকি॥

আর গাজী শা’ কান্দিয়া ফানা৯
চম্পাবতীর লাগি’ ;
বাঘ-কুম্ভীর কতো মইল১০
পউদ্মা১১ -গঙ্গা সাক্ষী।
---দয়াল প্রেম-বাজারে থাকি॥

পাগল আরকুমে বলে,
আশিক জ্বলে, মাশুক পাইলে সুখী ;
মনসুর শূল্লিতে চড়ে১২
“আনাল-হক্‌” নাম ডাকি'।
---দয়াল, প্রেম-বাজারে থাকি॥

১ - প্রেমিক ছাড়া, ২ - “হাবিয়া” নামক নরকের অধিবাসী, ৩ - প্রেমে, ৪ - ভগবান প্রেরিত পুরুষ,  
মোহাম্মদ, ৫ - মাটি নির্মিত নরদেহ, ৬ - ইভ (?), ৭ - শ্রীহট্ট অঞ্চলের ‘চন্দ্রমুখী’র গীতি-কাহিনীর  
কথা বলা হইতেছে, 8 - শ্র্রীহট্ট অঞ্চলে প্রচলিত একটি প্রেমমূলক গীতি-কাহিনীর কথা বলা হইতেছে,
৯ - ভাবোন্মাদ, ১০ - মরিল, ১১ - পদ্মা নদী, ১২ - শূলে চড়ে।

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
*
দেখ্ চাইয়া তোর দেহার মাঝে
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউল গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ১৬৪-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ দেহতত্ত্ব॥

দেখ্ চাইয়া তোর দেহার মাঝে---
লাগছে রসের চিকি১।
পিঞ্জিরা তুই খরিদ কর, পাখি॥

পিঞ্জিরা বানাইছে যারা---
পাখী খরিদ করছে তারা ;
দাম কিছু না রাখছে বাকী॥

আব-আতস-খাক-বাদে২ _
পিঞ্জিরা বানাইছে সাধে ;
সেই পিঞ্জিরায় সুয়া করছে বন্দী

সেই সুয়ার বুলিখিনি৩ ---
শুনতে হয়---মধূর বাণী ;
শুনলে হবে জনমের সুখী॥

পাগল আরকুমে কয়---
পাখী খরিদ করতে হয় ;
দাম কিছু না রাখিয়ো বাকী॥

দাম তার জান-মাল৪ ---
পালিয়ো পাখী চিরকাল ;
আশিকের৫ হাত্তে পাখী আসব ডাকি' ডাকি’॥

১ - আভাস, চকমকি, ২ - জল, আগুন, মাটি ও বাতাস দিয়া। মুসলমান মতে এই চারি ভুতেই
মনুষ্যদেহ গঠিত, ৩ - বুলিখানি, ৪ - প্রাণ ও ধন, ৫ - প্রেমিকের।

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
*
কলঙ্কিনী হইমু আমি মহাজনের ঘরে
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউল গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ২০৪-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ দেহতত্ত্ব॥

কলঙ্কিনী হইমু আমি মহাজনের ঘরে---
ভরা ডুবলে সায়রে।
বার দরিয়া ছাড়িয়া নৌকা
যায় না কিনারে॥

পালে নাহি ধরে আমার, দাঁড় নাহি চলে ;
ছাড়িয়া লাগামের ঘাট১
ঠেকছি বিকলে।
আকাশে মেঘের ঘোর, প্রাণি কাঁপে ডরে---
বিষম যমুনার ঢেউয়ে আগা-পিছা মারে॥

নাইয়া যারা---গেছে তারা, উড়াইয়া বাদাম২ ;
পাইলে কিনারা
নৌকা করিব লাগাম।
মহাজনের কৃপাগুণে ডাকিয়া লইল তারে---
লেখিল বেপারী নাম খাতার ভিতরে॥

পাগল আরকুমের নায়ের মরিল যাকন৩ ;
পুঞ্জিপাতা৪ বিনাশিয়া
হইল বিড়ম্বন।
দয়া যদি করে নিজে আপে৫ পরওয়ারে৬---
নবীজীর ইজ্জতে৭ কেবল হাসরের বিচারে৮।

১ - যে ঘাটে নৌকা বাধা থাকে, ২ - পাল, ৩ - নৌকার পাটাতন (?), ৪ - পুঁজিপাটা, ৫ - আপনি,
নিজে, ৬ - পালনকর্তা, খোদা, ৭ - নবীজীর খাতিরে, ৮ - শেষ দিনের বিচারে।

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
*
চাইনা রে বন্ধু আমি বেহেস্ত রে তোর
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউলাঙ্গের গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ১৪০-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ মনের মানুষ॥

চাইনা রে বন্ধু আমি বেহেস্ত১ রে তোর।
আশিকের২ দপ্তরে নাম
লেখিয়া দেও মোর॥

আর আহাদ৩ -আহ্‌মদের৪ ভেদ রাখিলে গোপন-
সে ভেদে করিলায়৫ তুমি সৃষ্টি পতন।
হায়রে, তুমি যে মাশুক৬ আমার---
ডাকি যে আদরে॥

আর এস্কের শরাব বন্ধু পিলাই’ দেও আমারে৭
পাগল হইয়া ফিরি যেন নগরে-বাজারে।
হায়রে, তুমি যে মাশুক আমার---
রহিত৮ অন্তরে॥

আর আশিক বলিয়া বন্ধু ডাকো যদি মোরে---
দুজখের৯ হুকুম দিলে মানিয়া নিমু তারে ।
হায়রে, আশিকের দিল খুশি---
মাশুকের দিদারে॥

আর আশিকের ছিতম১০ নাই মাশুকের দরবার
মাশুকের হুকুমের জিঞ্জিরা১১ আশিকের ফুলের হার।
ও আমি দিমু গলে প্রেম-কৌশলে---
রত্ন জানি’ তারে॥

আর প্রেম না করিলু, গেল জিন্দেগী১২ বিফলে---
সোনার যৌবন গেল হায়ানের মিছালে১৩।
পাগল আরকুমে বলে---
দয়া হইলে পাইতাম তোমারে ॥

১ - স্বর্গ, ২ - প্রেমিকের, ৩ - একমেবাদ্বিতীয়ম্‌ যে ভগবান, আল্লা, ৪ - মোহাম্মদ, ৫ - করিলে,
৬ - প্রেমাস্পদ, ৭ - আমাকে প্রেমের মদ পান করাইয়া দাও, ৮ - রহিবে, ৯ - নরকের, ১০ - কষ্ট,
১১ - শিকল, ১৩ - জীবন, ১৩ - পশুর মতো, ৮ অদৃষ্টের লেখা

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
নারীর সাথে সাবধানেতে মইলা কতো জন
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউল গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ১৯৫-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ দেহতত্ত্ব॥

নারীর সাথে সাবধানেতে মইলা১ কতো জন---
যৌবন নয় রে আপন।
লাভের পন্থে মূল হারাইয়া হইল বিড়ম্বন।

মাখন জানি’ ঘোল-পানি খাইলা! কতো জনে---
হকিকী২ হারিয়া দিল৩, মজাজি কারণে৪।
বিনা আজরাইলে৫ তার হইল মরণ :
না হইল জনজা৬ গোছল৭, না হইল কাফন৮

আর দুইটি নদীর একটি নালা, তাতে বহে জল---_
সে নদী বান্ধিত৯ পারে---যে হয় পাগল।
পাগল ছাড়া কইল যারা নদীর দরশন :
তন্ত্র-মন্ত্র, জ্ঞান-বুদ্ধি হারিল১০ তখন॥

আর পাগল আরকুমে বলে,
ঠেকছি কলে খাইয়া নদীর জল---
লাগছে নিশা১১ যায় না খসা, উল্টা বড়ির১২ কল।
ছাড়তে গেলে ধরে কলে করি’ অন্বেষণ :
পাতনি১৩ দেখি ফান্দা বাজী হইল মরণ॥

১ - মরিল, ২ - ঈশ্বর প্রেম, ৩ - হারাইয়া ফেলিল, ৪ - ঐহিক প্রেমের কারণে, ৫ - যমে, ৬ - মৃত্যুর
পর কবর দিবার সময়ে মৃতের পারলৌকিক মঙ্গলার্থ প্রার্থনা, ৭ - স্নান, ৮ - শব আচ্ছাদক বস্ত্র,
৯ - বাঁধিতে, ১০ - হারাইল, ১১ - নেশা, ১২ - বড়শীর ১২ পাতানো।

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
*
নারীর দেহায় কি ধন-রতন যদি চিনলায় না
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউল গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ১৯৪-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ দেহতত্ত্ব॥

নারীর দেহায় কি ধন-রতন যদি চিনলায়১ না---
বা’ খালি দেখিয়া দেওয়ানা২ ;
পানি-লাগামেতে ঘোড়ায় বাগ মানে না॥

আর সোনারী৩ না জানে চাইল৪
বানাইতে জেওর৫ ;
সুয়াগা৬ ঢালিয়া দিল পিতলের উপর।
সোনা-পিতল-তামা তিন একই নমুনা
কোন্‌ চিজের কোন্‌ পুট---তাতো জানে না॥

আর ছঙ্গ৭ আর ফেরুজা৭-মুতি৮
জওয়াহির অকিক৫ ;
জহুরী কিম্মত৯ জানে পাথর মাফিক১০।
অবুলা১১ না জানে তার মূল্যের ঠিকানা---
আনা-ফানা বেচিয়া খায়---খই-সাড়ু-চানা॥

আর পাগল আরকুমে কয়
মুরশিদের ঠাঁই---
পাগলা ঘোড়ার জিন-গাদি১২ কি দিয়া লাগাই
দয়া যদি করইন১৩ মুরশিদ জানিয়া কমিনা১৪---
এস্কের১৫ লাগাম বিনে ছওয়ার১৬ মানে না॥

১ - চিনিলে, ২ - পাগল, ৩ - স্বর্ণকার, ৪ - চাল, ধরণ, ৫ অলঙ্কার, ৬ - সোহাগা, ৭ - মুল্যবান পাথর
বিশেষ, ৮ - মোতি, মুক্তা, ৯ - মূল্য, ১০ - অনুযায়ী, ১১ - অবলা, ১২ - গদি, ১৩ - করেন, ১৪ - ক্ষুদ্র,
হীন, তুচ্ছ, ১৫ - প্রেমের, ১৬ - সওয়ার।

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
*
পুরুষ নারী সমান করি
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউল গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ১৯৩-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ দেহতত্ত্ব॥

পুরুষ নারী সমান করি’
কামানিতে তুলুনি১ ;
সজনি, প্রেমের ভাণ্ডার কারে দিল বরগনি২॥

নারী যদি না হইত পিরিতের ভাণ্ডার---
পুরুষ না হইত বেগার৩, হায় হায় ;
সই সই, হায়রে,
বিনা পয়সায় তুলিয়া মাথায় দিছে বোঝা রমণী॥

নারীর যৌবনের ঢেউ দেখিয়া
পুরুষ হয় মাতোয়ালা বেহুঁ'শ, হায় হায় ;
সই সই, হায়রে,
জিন্দেগী৪ সাঁতারি' ফিরে, কিনারা না পায় ধনী॥

নারী হইছে ডিগ্ রা রছি৫---
পুরুষ ছাগল লাগ্ ছে বাজীগরী৬ কল, হায় হায় ;
সই সই, হায়রে,
যে লাগাইছে প্রেমলীলা, তার ভেদ কেও চেন নি৭

পাগল আরকুমে কয়---
পুরুষ হইছে যারা, তারা নারীর প্রেমের মরা, হায় হায় :
সই সই, হায়রে,
মাশুকের সঙ্গে খেলে’ সুখে যায় তার রজনী॥

১ - নিক্তিতে তুলনীয়, ২ - স্রষ্টা, ৩ বিনা পয়সার মজুর, ৪ - জীবন, ৫ - যে রশি দিয়া পন্যাদি বাঁধিয়া
রাখা হয়, ৬ - বাজীকরী, ঐন্দ্রজালিক, ৭ - চেন নাকি।

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
*
আমি দাসী, হইছি দোষী
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউল গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ১৭৬-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ দেহতত্ত্ব॥

আমি দাসী, হইছি দোষী,
ধরিয়া নৌকা প্রেম-নদীতে---
অধীন জানি’ তরাও নাথ, কৃপাগুণেতে॥

আর হীরালাল-মাণিকের ভরা
তুলিয়া আমার নায়---
ভাসাইয়া দিলায় রে বন্ধু, বিছ-দরিয়ায়১।
ওরে, বাদামে বাতাস ধরে না২
হাইল মানে না ছুকানেতে৩॥

আর মধ্যে মধ্যে চরা
নদীর নাহি চিনি ধার---
ডুব্ লে ভরা, যাইব মারা---বেসাত আমার।
ওরে, কলঙ্কিনী নামটি আমার
রইব রে তোর এ জগতে॥

আর দাঁড়ী-মাঝি-লোক-জন
চলিয়া যাইবা ঘরে
চাইর তক্তার নাওখান আমার পড়ব বালুচরে।
ওরে, পেরাগ-পাতাম-বাকা-গুছা৪
ঝরিয়া যাইব সেখানেতে ॥

আর থাক৫ যাইব খাকে মিশি'
আব৬ যাইব তার সনে---
আতস৭ যাইব বাজের৮ সঙ্গে উড়িয়া গগনে।
হায়রে, আমাব যে চালান-চৌথা
রইব রে মা’জনের৯ হাতে॥

পাগল আরকুমে বলে,
দেশে গেলে ফিরিয়া আইমু না
আমি আইলাম, আমি রইলাম, আমি চিনলাম না।
হায়রে, আমি যদি চিনতাম আমি
মিশিয়া যাইতাম জাতের সাথে॥

১ - মাঝ সমুদ্রে, ২ - পালে বাতাস লাগে না, ৩ - হালের কাটায় হাল মানে না, ৪ - নৌকার ভিন্ন-ভিন্ন
অংশের নাম ; আব, অতাস, খাক ও বাদ, ৫ - মাটি, ৬ - মেঘ, ৭ - আগুন,  ৮ - বাতাসের,
৯ - মহাজনের।

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
*
এই নদী শতধার
ভণিতা পাগল আরকুম
কবি আরকুম উল্লা
বাউল গান
১৯৬৬ সালে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত, গুরুসদয় দত্ত ও ডঃ নির্মলেন্দু ভৌমিক
সম্পাদিত, “শ্রীহট্টের লোকসঙ্গীত” সংকলন, বাউল, ১৫০-পৃষ্ঠায় এইরূপে দেওয়া রয়েছে।

॥ পীর-মুরশিদা ও গুরুর প্রতি॥

এই নদী শতধার,---
এই নদীর শতধার,_
নাও ধরি মুই কি পরকারে।
প্রাপ-নাথ, আমি কিলা১ যাই প্রেমের বাজারে॥

আর কেহই যাক রে বাদাম তুলে২
কেহ যায় রে গুণে ;
কেহই যায় রে লগি ভরে
কেহ দাঁড় টানে।
কেহই যায় রে সার ভাঁটাতে---
কেছ যায় জোয়ারের জোরে॥

আর কেহই নেয় রে লবণ-মরিচ,
কেহই তামা-সীসা ;
কেহই নেয় রে মুগ-মুসুরি,
কেহই পিতল-কাঁসা।
সকল বেপারী যাইতা৩
একই আড়াদ্দারের ঘরে॥

আর কেহই করে নমাজ-রোজা
কেহই গায় রে গান ;
কেহই বাজায় লাউয়া-ডপ্ কি৪
সকল মছলমান।
কার ঠাঁই জিঙ্গাসি৫ আমি---
তুমি তো সবার অস্তরে॥

আর যে পাইয়াছে
লীলাখেলা, ভেদ বৃত্তান্ত তোর---
ছাড়িয়া দিছে পউদ্মপুরাণ,
হদিছের খবর।
দেওয়ানা হইয়া ফিরে---
মাশুকের ইন্তেজার৬॥

আর পাগল আরকুমে কয়
মুরশিদের ঠাঁই---
ভাঙা নাও, পানুয়া বৈঠা
কেমনে বাইয়া যাই।
হায়রে, মাশুক ভরসা---
নৌকা ভাসাইয়াছি প্রেম-সায়রে

১ - কি প্রকারে ২ - পাল তুলিয়া, ৩ - যাইতেছে, ৪ - লাউ দিয়া তৈরি করা গোপীযন্ত্র,  ৫ - জিজ্ঞাসা
করি, ৬ - প্রতীক্ষা।

.            *************************             
.                                                                           
সূচীতে . . .      



মিলনসাগর
*