কবি শর্মিষ্ঠা সেন - জন্মগ্রহণ করেন কলকাতায়। পিতা লালমোহন সেনের ছিল বদলির চাকরি। মাতা
মায়া দেবী, কবির শৈশবেই, ভুবনেশ্বরে একটি মোটর দুর্ঘটনায় অকাল-প্রয়াত হন। প্রখ্যাত ছান্দসিক
অধ্যাপক নীলরতন সেন ছিলেন কবির মেজকাকা এবং অধ্যপক নবেন্দু সেন তাঁর ছোট কাকা।

কবির পিতা লালমোহন সেন ছিলেন ব্রিটিশ রয়াল এয়ারফোর্সের রেডিও অফিসার। ১৯৪৬ সালে, নর্থ
ওয়েস্ট ফ্রন্টিয়ার প্রভিন্স-এ যে বায়ুসেনা বিদ্রোহ সংঘটিত হয়, তিনি সেই বিদ্রোহের ছয়জন নেতৃস্থানীয়দের
মধ্যে একজন ছিলেন। বিদ্রোহের অন্য পাঁচজন নেতার সঙ্গে, লালমোহন সেনেরও কোর্টমার্শাল হয়ে সশ্রম
কারাডণ্ডের আদেশ হয়। ১৫ই অগাস্ট ১৯৪৭ এ দেশ স্বাধীন হবার উপলক্ষ্যে তিনি আলিপুর সেন্ট্রাল জেল
থেকে মুক্ত হন। স্বাধীনতার পরে তিনি আর তাঁর বায়ুসেনার চাকরি ফিরে পান নি। দ্বিতীয়বার কর্মজীবন
শুরু করেন ভারত সরকারের সিভিল এভিয়েশন বিভাগে। দেশের এক অসামরিক বিমানবন্দর থেকে অন্য
বিমানবন্দরে, বদলির চাকরি। না, পরবর্তীতে তাঁর ভাগ্যে কোনো তাম্র বা লৌহ বা অন্য কোন ধাতব-পত্র
জোটেনি!

কবির স্কুলজীবন শুরু হয় দিল্লীর রূপনগর পাবলিক স্কুল থেকে। এরপর ভর্তি হন দিল্লীর কাশ্মীরি গেটের,
বেঙ্গলী বয়েস হায়ার সেকেণ্ডারী স্কুলে যার বর্তমান নাম বেঙ্গলী সিনিয়ার সেকেণ্ডারী স্কুল। ১৯৭২ সালে
পিতার চাকরির বদলির জন্য চলে যান কলকাতায় এবং ভর্তি হন দমদম এয়ারপোর্ট প্রাইমারি স্কুলে। ১৯৭৩
সালে পুনঃ পিতার বদলির জন্য চলে যান আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের রাজধানী পোর্টব্লেয়ারে এবং ভর্তি
হন সেখানকার রবীন্দ্র বাংলা বিদ্যালয়ে। সেখান থেকেই ১৯৮২ সালে সিনিয়ার সেকেণ্ডারী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ
হন। কলকাতার দমদমে অবস্থিত রামকৃষ্ণ সারদা মিশন বিবেকানন্দ বিদ্যাভবন থেকে বাংলায় সাম্মানিক
স্নাতক হন ১৯৮৫ সালে।

এরপরই বিবাহসূত্রে আবদ্ধ হন বাংলা সাহিত্যের স্থপতি রমেশচন্দ্র সেনের দৌহিত্র তমাল সেনের সঙ্গে এবং
পুনরায় শুরু হয় দিল্লীতে বসবাস।

১৯৮৮ সালে তিনি দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় এম.এ. পাশ করেন। ২০০৬ সালে,
অধ্যাপক সেবাব্রত
চৌধুরীঅধ্যাপক নন্দিতা বসুর তত্বাবধানে “বাংলা সাহিত্যে বিধবাচিত্রণ”-এর উপর গবেষণার জন্য লাভ
করেন পিএইচ.ডি। দিল্লীতে
অধ্যাপক শিশিরকুমার দাশের ছাত্রী হবার সৌভাগ্য হয় তাঁর।    

কবির কর্মজীবন শুরু হয় ১৯৮৮ সালে দিল্লীর মৈত্রেয়ী কলেজে অধ্যাপনার ভেতর দিয়ে। সে বছরই তিনি
দিল্লীর জাকির হুসেন কলেজের বাংলা বিভাগে অধ্যাপিকা হিসেবে নিযুক্ত হন। তিনি বহুদিন দিল্লী
বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারতীয় ভাষা বিভাগেও অধ্যাপনা করেছেন।

কবি দিল্লীর করোলবাগ বঙ্গীয় সংসদ থেকে প্রকাশিত অজন্তা পত্রিকায় দীর্ঘদিন ধরে লেখালেখি করে  
আসছেন। এছাড়া দিল্লীর বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সাহিত্যিক সংস্থার সঙ্গেও তিনি যুক্ত রয়েছেন।

তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে “বাংলা সাহিত্যে বিধবাচিত্রণ” (২০০৭)।

কবি শর্মিষ্ঠা সেনের কবিতা তাঁর ব্যক্তিগত অনুভূতির স্ফূরণ।

এই ওয়েবসাইট মিলনসাগরের জন্মলগ্ন থেকে কবি শর্মিষ্ঠা সেন আমাদের বাংলা কবিতা বিভাগের সঙ্গে যুক্ত
রয়েছেন। তিনি সময়ে সময়ে উপদেশ-নির্দেশ দিয়ে, আমাদের এগিয়ে চলার পথের দিশা দেখিয়ে আসছেন।  

তাঁর কবিতা আমাদের সাইট মিলনসাগরে প্রকাশিত করার অনুমতি পেয়ে আমরা সম্মানিত। আমরা  
মিলনসাগরে  কবি শর্মিষ্ঠা সেনের কবিতা  তুলে আনন্দিত।



কবির সঙ্গে যোগাযোগ
কবির ই-মেল: sharmisthasenn@yahoo.com




কবি শর্মিষ্ঠা সেনের মূল পাতায় যেতে এখানে ক্লিক করুন


আমাদের ই-মেল -
srimilansengupta@yahoo.co.in     


এই পাতার প্রথম প্রকাশ - ২০০৬
কবির ছবি সহ পরিবর্ধিত সংস্করণ - ২৮.৫.২০১৬
৭টি নতুন কবিতা নিয়ে পরিবর্ধিত সংস্করণ - ৯.১.২০১৭
পরিবর্ধিত সংস্করণ - ১১.১.২০১৭

...