কবি বরদাচরণ মিত্র - জন্মগ্রহণ করেন কলকাতার কুমারটুলিতে। পিতা বেণীমাধব মিত্র। তাঁদের  
আদি নিবাস ছিল নদীয়া জেলার চাকদহে।

কবি ১৮৮২ সালে এম.এ. পরীক্ষায় ইংরেজী সাহিত্যে প্রথম স্থান অধিকার করেন। ১৮৮৬ সালে তিনি  
প্রতিযোগিতামবলক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে স্ট্যাচিউটরি সিভিল সার্ভসে যোগদান করেন। ১৮৯৪ সালে তিনি
দায়রা জজ হন।

তাঁর রচনাসম্ভারে রয়েছে কালিদাসের “মেঘদূত”-এর বঙ্গানুবাদ (১৮৯৫), গীতিকাব্য “অবসর” প্রভৃতি।  

কবি হিসেবে তিনি খ্যাতি অর্জন করেন "নব্যভারত", "ভারতী", "প্রবাসী", "সাধনা", "বীরভূমি" প্রভৃতি পত্রিকায়
নিয়মিত কবিতা প্রকাশিত করে। “বীরভূমি” পত্রিকার ১৩১৮সালের পৌষ সংখ্যায় (ডিসেম্বর ১৯১১) তাঁর  
দুটি কবিতা “বন্দনা” এবং “স্তুতি” প্রকাশিত হয়, ব্রিটেনের রাজা পঞ্চম জর্জ এবং রাণী মেরির ভারত-ভ্রমণ
উপলক্ষে।

তিনি ইংরেজী কবিতাও রচনা করেছিলেন। তাঁর বহু ইংরেজি প্রবন্ধ “ক্যালকাটা রিভিউ”, “ইণ্ডিয়ান নেশন”,
“থিওসফিস্ট”, “রেইস অ্যাণ্ড রায়ত” প্রভৃতি প্রত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছিল। ১৮৮৫ সালে “ক্যালকাটা রিভিউ”
পত্রিকায় তাঁর
"The English Influence on Bengali Literature" প্রবন্ধটি প্রকাশিত হ’লে তিনি অন্যতম শ্রেষ্ঠ  
সমালোচক হিসেবে খ্যাতি লাভ করেন।


কবি বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদের জন্মলগ্ন থেকে সদস্য ছিলেন। ১৩১২বঙ্গাব্দ থেকে আমৃত্য তিনি বঙ্গদেশীয়  
কায়স্থসভার সহ-সভাপতি ছিলেন।

কলকাতায় তিনি “বরপণ নিবারণী সমিতি” নামে একটি প্রতিষ্ঠান তৈরী করেছিলেন।

এই কবি সম্বন্ধে কেউ যদি আমাদের আরও তথ্য, ও কবির ছবি পাঠিয়ে সাহায্য করেন তাহলে আমরা
কৃতজ্ঞতাস্বরূপ প্রেরকের নাম এখানে উল্লেখ করবো


আমরা
মিলনসাগরে  কবি বরদাচরণ মিত্রের কবিতা তুলে আগামী প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দিতে পারলে এই
প্রচেষ্টাকে সার্থক মনে করবো।



উত্স:    
  • সুবেধচন্দ্র সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, ২০১০।   



কবি বরদাচরণ মিত্রের মূল পাতায় যেতে এখানে ক্লিক করুন।    



আমাদের যোগাযোগের ঠিকানা :-   
মিলনসাগর       
srimilansengupta@yahoo.co.in      



এই পাতার প্রথম প্রকাশ - ২৩.৯.২০১৮।


...