HOME HOME BANGLA
বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য  ১৯৬৪ সালে কলকাতার প্রেসিডেন্সী কলেজ থেকে স্নাতক হয়ে মার্কসবাদী কমিউনিস্ট পার্টি
CPI(M)  দলে যোগ দেন | দলের যুব শাখা গণতান্ত্রিক যুব ফেডারেশন (DYFI) এর তিনি সম্পাদক হন | খাদ্য
আন্দোলন, ভিয়েতনামে আমেরিকার কার্যকলাপের সক্রিয় বিরোধিতার মত নানান দেশ ও বিদেশের স্মরণীয়
ঘটনায় তিনি যথাযত ভূমিকা পালন করেন | ১৯৭৭ সালে প্রথম বার পশ্চিম বঙ্গের বিধান সভায় কাশিপুর
থেকে নির্বাচিত হন | ১৯৮২ র নির্বাচনে কৃতকার্য না হলেও, ১৯৮৭ তে তিনি যাদবপুর থেকে নির্বাচিত হয়ে
জ্যোতি বসুর মন্ত্রিসভায় তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরের ভার পান |
১৯৯১ এর নির্বাচনের পরের সময়ে মূখ্যমন্ত্রির সাথে তাঁর মতানৈক্য দেখা দেবার ফলে ভ্রষ্টাচারের বিরূদ্ধে
প্রতিবাদ করে তিনি মন্ত্রি সভা থেকে বেরিয়ে আসেন এবং 'দুঃসময়' নামে একটি নাটক রচনা করেন |
১৯৯৬ এর নির্বাচনের পর দলে তাঁর অবস্থানের উন্নতি হয় এবং রাজ্য পুলিশ দফতরটিও তাঁর অধীনে আসে |
সর্বজন শ্রদ্ধেয় ভূমি ও রাজস্য মন্ত্রি বিনয় চৌধুরির নির্বাচনে অংশ গ্রহণ না করা ও কিছু দিনের মধ্যেই তাঁর
জীবনাবসানের পর, বুদ্ধদেব বাবু মন্ত্রিসভার দুই নম্বর স্থানে উঠে আসেন |
২০০০ সালে নানা কারণে জ্যোতি বসুর অবসর গ্রহণের পর তিনি মুখ্য মন্ত্রি হন |
তাঁরই ব্যক্তিগত নিদাগ ভাবমূর্তির প্রভাবে ২০০১ এবং ২০০৬ সালের নির্বাচনে, তাঁরই নেতৃত্বে তাঁর দল বিপুল
সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে আবার ক্ষমতায় আসে | তিনি তাঁর দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারক কেন্দ্র - পলিটবুরোর
সদস্য |
কবি বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের কর্ম জীবন শুরু হয় কলকাতার 'দম দম আদর্শ বিদ্যামন্দিরে' শিক্ষকতা দিয়ে |
কবি সুকান্ত ভট্টাচার্য তাঁর কাকা ছিলেন | তাঁর কবিতার বই 'চেনা ফুলের গন্ধ'  অনুবাদ সাহিত্যে নিজের যায়গা
করে নিয়েছে | এখানে আমরা সেই বইটি থেকেই কয়েকটি কবিতা তুলে দিচ্ছি |
ক্রিকেট, ফুটবল, কবিতা, রবীন্দ্র সংগীতের প্রতি তাঁর অনুরাগ সর্বজন বিদিত |
পশ্চিম বঙ্গ সরকারের সাইটে মুখ্যমন্ত্রি বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য সম্বন্ধে আরও জানতে
এখানে ক্লিক করুন |
মার্ক্সবাদী কমিউনিস্ট পার্টির ওয়েবসাইটে যেতে হলে
এখানে ক্লিক করুন |
বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের কবিতা