রত্না ভৌমিকের কবিতা
যে কোন কবিতার উপর ক্লিক করলেই সেই কবিতাটি আপনার সামনে চলে আসবে।  www.milansagar.com
১।  মি পুরুষ                  
২।  
ক কাপ চা          
                 

সিঙ্গুর নন্দীগ্রামের কবিতা

১।  
সিঙ্গুর বাঁচাও, আসুক শিল্প            
২।  
স্বৈরাচারী বামের তিরিশ বছর                   
৩।  
বাম রাজত্বে নরকরাজ                  
*
স্বৈরাচারী বামের তিরিশ বছর    

তিরিশ বছর শাসন করে বামফ্রন্ট হল স্বৈরাচারী
উন্নততর বামফ্রন্ট সরকারের স্লোগান ---
আমরা গরীবের সরকার "জমি যার লাঙল তার" |
সর্বশিক্ষা অভিযানে নই আমরা পিছিয়ে
মিড-ডে মিলের খাবার যায় ছাগলের পেটে |
জ্যোতি বলেছিল, মাতৃভাষায় করব মোরা শিক্ষায় উন্নতি
বুদ্ধ বলল --- ইংরেজী পড়ো - বাংলা গড়ো |
বুদ্ধ ওঠাল ধ্বজা ---
"Do it now, no work no pay"
মুচকি হাসল চাপরাশি অফিসারগণ |
লাল বাঁচাও প্রসিক্ষণে রাজ্য প্রথম,
কলকারখানা হচ্ছে লকআউট
বাহাত্তর লক্ষ বেকারত্বের ঝুলি নিয়ে
যায় বুদ্ধ সালিম, টাটা ধরতে |
পরিকাঠামোহীন পঞ্চায়েতরাজ,
ঋণের টাকা হয় না খরচ --- যায় চলে কর্নাটকের ঝুলিতে
"সত্তর শতাংশ মানুষ পায় স্বাস্থ্য পরিসেবা"
তাই তো মানুষ যায় চেন্নাই ব্যাঙ্গালোর!
রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর "যমপুরী"র সমান
তবুও "সূর্যবাবু" আপনি দীপমান |
সালিশীর বিল করল পাশ
পার্টির ক্যাডারদের বাঁচলো প্রাণ |
নাও মদের লাইসেন্স
কর বেকারত্বের অবসান |
বুদ্ধ বলে নারীপাচার, নারীধর্ষণ
পশ্চিমবঙ্গ "মরুদ্যান" |
"উন্নয়ন চাই, শিল্প চাই" ডাক দিল বুদ্ধ
টাটা, সালিম এসো ত্বরা
আমরা "সর্বহারা" |
পুলিশী ডাণ্ডায়, কৃষকের রক্তে
লাল হল সিঙ্গুরের মাটি |
তাপসী মালিক হল ধর্ষিতা
মদমত্ত সি.পি.এম. এর হার্মাদবাহিনীর দ্বারা,
জীবন্ত জ্বালিয়ে দিল নিথর দেহখানি |
নন্দীগ্রাম, ভাঙ্গর, সিঙ্গুর, বারুইপুর তাদের করায়ত্ত
"গেল গেল" রবে কৃষক ছুটল মাঠে
প্রতিবাদী আগুন জ্বলছে দিকে দিকে |
দাও কাস্তে-হাতুড়িতে শান
বাঁচাব মোরা বাংলার প্রাণ |

.                    ******************                                        
উপরে
.                            সিঙ্গুর নন্দীগ্রামের অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায়  
.                             
সিঙ্গুরের নন্দীগ্রামের কবিতার মূল সুচির পাতায়


এই কবিতাটি বইমেলা ২০০৮ এর 'এ কোন বাংলা' পত্রিকায় প্রকাশিত
হয়েছিল                 
*
[ একটি অনুরোধ - এই সাইট থেকে আপনার ব্ লগ্ বা সাইটে, আমাদের কোন লেখা, কবিতা
বা তার অংশবিশেষ নিলে, আমাদের মূল পাতা
http://www.milansagar.com/index.html
দয়া করে একটি ফিরতি লিঙ্ক দেবেন আপনার ব্ লগ্  বা সাইট থেকে, ধন্যবাদ ! ]
*
আমি পুরুষ    

সাতপাকে বাঁধা --- তুমি নারী
আমার কবজায়,
সিন্দুরের জয়তিলকের দাগ দিলাম তোমার কপালে |
তুমি নারী, আমার ভোগের বস্তু,
তুমি আমার সংসারের "শো পিস" |
রাজাবাবুর জমিদারীতে বহু নারীর সাহচর্যে
ছিল পুরুষত্বের ক্ষমতার আস্ফালন |
সংসারের অটুট বন্ধনের জন্মদাত্রী দায়িত্বে তুমি "মা" |
বিছানায় নিত্যসঙ্গিনী যদি না হও---
যাব তবে কর্দমাক্ত গলিতে |
কন্যাসন্তান ধারণের অপরাধে
পুরুষ সমাজ নারীকে করে দোষারোপ
কন্যাভ্রূণ হত্যাই পুরুষের কাম্য |
আমার শেষ বয়সের দাসী তুমি,
আমি "পতি পরমেশ্বর" |
অকৃত্তিম সেবায় বার্ধক্যে দেবে শান্তি |
ভুলো না তুমি সেবাদাসী |
পুত্র পুরুষের আরেক রূপ
রক্ত বহমান পুরুষতান্ত্রিক,
সেও করে বাবার অনুসরণ |
শেষ বয়সে তুমি কমজোর
আমাদের গলগ্রহ |

.       ******************                                               
উপরে

এই কবিতাটি বইমেলা ২০০৮ এর 'এ কোন বাংলা' পত্রিকায় প্রকাশিত
হয়েছিল                 
এক কাপ চা    

তুমি আদরণীয় ধূমায়িত "এক কাপ চা"
মধ্যবিত্ত বাঙালীর নিত্যসঙ্গী
ধূমায়িত ভাঁড়ে, না হয় কাপে,
শিল্পায়নের ঝড়ে তৈরী "সিটি সেন্টার"
উচ্চবিত্ত নারী-পুরুষ যুবক-যুবতীর "টাইম পাস" |
সুগন্ধী পেয়ালায় "এক চুমুক চা"
সুবিন্যাস ভাঁড়ে চা-সিঙ্গাড়া, পাঁচ টাকায় |
নিবিড়তম সঙ্গী তুমি-আমি
এক কাপ ধূমায়িত চা |
স্মৃতি তুমি সুখ, তুমি বেদনা,
কাঁচের ঘরে বন্দী তুমি --- এক চুমুক "চা" |
প্রেমিক-প্রেমিকার বাসনার স্বীকার,
বিজনেস ম্যাগনেটদের টেবিলে
অবহেলায় হয়েছ ঠাণ্ডা |
নেতাদের আড্ডায় লেবু চায়ের ভাঁড়,
সম্ভ্রান্ত মহিলাদের কিটি পার্টিতে
শাশুড়ি-বউয়ের তরজায় এক পেয়ালা "চা" |
কবির লেখনির হাতিয়ার "গিন্নি, এক পেয়ালা চা"
ঠিকাদারের কাজের মুহুর্তে একটু ফাঁকি
দিনমজুরের আমেজ
এক চুমুক চা |

.       ******************                                               
উপরে

এই কবিতাটি বইমেলা ২০০৮ এর 'এ কোন বাংলা' পত্রিকায় প্রকাশিত
হয়েছিল                 
*
সিঙ্গুর বাঁচাও, আসুক শিল্প    

শস্যশ্যামলা ধরিত্রী মাটি মোদের "মা",
.                চাষ করি, ফসল ফলাই, দেখি স্বপ্ন |
অঘ্রানের পূর্ণিমায় সোনালি পাকা ধান
.                মাঠে মাঠে শনশন হাওয়ায়
নব আনন্দে মাতোয়ারা নবান্নের আশায় |
.                পঞ্চায়েতে এল সরকারী সমন
শোনো শোনো ভাই, "টাটা, সালিমদের দাও জমি"
.                যাবে বেকারত্ব ঘুচে --- রাস্তায় চলবে মোটরগাড়ি |
সার্চলাইটের আলোয় হবে আলোকিত
.                ছোট্ট কুড়ে ঘরখানি,
ঘরে ঘরে ফিসফিস --- ও মহিম চাচা
.                চারিদিকে এ কি খবর রটতেসে গো ---
সরকার মোদের "মা" কে কেড়ে নিবে?
.                ও কার্তিকের মা --- মোদের গাঁয়ে হবে ফ্যাকটো-রি
কার্তিক হবে "ফ্যাকটো-রি বাবু"!
.                পঞ্চায়েত দাদারা বলতিসে, "লাঙল-গরু আর লয়
বাপের জমি সরকারেরে দে দিকি?
.                টাটা, মালিম জোগাবে মুখের অন্ন |"
এই বাবুরা? জমি গেলে খাব কী?
.                মোদের সরকার গরিবের "ত্রাতা"
জমি নিয়া দিবে চেক!
.                স্বামী-পুত্র নিয়া বইসা বইসা খাইবা,
৩০ বছর ধ-ই-রা জমি বাঁচায়েসে মোদের প্রাণ,
.                প্রাণ দি-ব! মোরা জমি দি-ব না!
পার্টির দাদাদের কপালে ভাঁজ
.                উন্নয়নের ঝড়ে উন্নততর সরকার!
রাজতন্ত্র প্রথায় বুলি "ডাণ্ডায় কর ঠাণ্ডা"
গর্জে উঠেছে সিঙ্গুর নন্দীগ্রামের মায়ের দল ---
জল-জমি-জীবন বাঁচাব মোরা |

.                    ******************                                                
উপরে
.                                    সিঙ্গুর নন্দীগ্রামের অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায়  
.                                     
সিঙ্গুরের নন্দীগ্রামের কবিতার মূল সুচির পাতায়


এই কবিতাটি বইমেলা ২০০৮ এর 'এ কোন বাংলা' পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছিল   
*
বাম রাজত্বে নরকরাজ    

টোডি, তুমি মহান সামাজিক জীব,
.                    রিজওয়ানুরের প্রেমকে করেছো ঠাণ্ডা,
.                             পুলিশী ডাণ্ডায় |
বাহুবলে, অর্থবলে অবলা নারীকে
.                    করেছ নীরব, পিতৃত্বের অধিকারে |
বুদ্ধর পুলিশবাহিনীর নীরব অত্যাচারে
.                    জনগণ সামিল মশালের আন্দোলনে |
সালিশিতে পঞ্চায়েতে স্বামী-স্ত্রীকে করে ভিন্ন,
.                    গৃহযুদ্ধ বাধিয়ে সম্পত্তিতে মারে থাবা |
সি পি এম তিরিশ বছরে গরিবের রক্তে
.                    চাষ করে গোলায় তুলেছে ধান |
শ্রমিকের ঘাম ঝরে লক্ষ লক্ষ শ্রম
.                    হয়েছে লকআউট |
রেশনের চাল-গম-চিনিতে হয়
.                    নেতাদের সম্মেলন |
মিড-ডে মিলের চাল পচে
.                    পঞ্চায়েত দাদার ঘরে |
গরিবের ঘরের কেরোসিনের কুপি
.                    তেল ছাড়া দাওয়ায় দপদপ জ্বলে |
নেতারা পালায় হিংস্র জনগণের থাবার ভয়ে |
.                    "বুদ্ধ" হও সজাগ,
গরিবের রক্তে খেলো না হোলি
.                    লক্ষ লক্ষ রিজওয়ানুর হত্যার
.                              জবাব চায় জনগণ |

.                    ******************                                                
উপরে
.                                    সিঙ্গুর নন্দীগ্রামের অন্যান্য কবিদের সূচির পাতায়  
.                                     
সিঙ্গুরের নন্দীগ্রামের কবিতার মূল সুচির পাতায়

এই কবিতাটি বইমেলা ২০০৮ এর 'এ কোন বাংলা' পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছিল