মিডিয়ার চোখে
৯অক্টোবর ১৯৯১
১৩ মার্চ ২০০১
১৩ মার্চ ১৯৯৯
২৬ মার্চ ১৯৯৯
১ জুলাই ১৯৯৯
৪ অক্টোবর ১৯৯১
৮ জুলাই ১৯৯১
১২ অক্টোবর ১৯৯১
৫ এপ্রীল ১৯৯৯
১৩ এপ্রীল ২০০১
একাডেমি অফ ফাইন
আর্টস, কলকাতা, জুলাই
১৯৯১
আইফ্যাকস,
নয়া দিল্লী, অক্টোবর
১৯৯১
গ্যালারি কাতায়ুন,
কলকাতা, ফেব্রুয়ারী
১৯৯৮
বিড়লা একাডেমি,
কলকাতা, এপ্রীল
২০০১
যে কোন ছবির উপর ক্লিক করলেই বড় ছবি দেখতে পারবেন
৮ মার্চ ১৯৯৮
৬ মার্চ ১৯৯৮
২৬ জুলাই ১৯৯১
৬ আগস্ট ১৯৯১
১ এপ্রীল ২০০১
৮ এপ্রীল ২০০১
একক প্রদর্শনী
মধুর স্মৃতি
মিলন সেনগুপ্ত
জন্ম ২ জুলাই ১৯৫৭

একজন স্বশিক্ষিত শিল্পী এই অর্থে যে তার কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নেই। কিন্তু সে নিজেকে খুবই ভাগ্যবান মনে করে কারণ সে
তার সৈনিক স্কুল পুরুলিয়ার স্কুল জীবনে খুব ভাল দুজন শিক্ষকের স্নেহধন্য হতে পেরেছিলেন। তাঁরা হলেন
শ্রী ফাল্গুনী দাশগুপ্ত
এবং
শ্রী গৌরপদ গোস্বামী। পরবর্তি সময়ে সুযোগ পান বিখ্যাত ভাস্কর শ্রী সুরজিত দাস এর কাছে কাজ শেখার। সৈনিক স্কুল
পুরুলিয়াতে পড়ার সময়ে তাঁর বাংলার শিক্ষক
শ্রী প্রতুল দত্ত, মিলনকে পরিচিত করিয়েছিলেন পাশ্চাত্য ক্লাসিকাল শিল্পকলা-
ভাস্কর্যর সাথে, তাঁর ব্যক্তিগত সংগ্রহের বিভিন্ন আর্ট ও স্কাল্পচারের বইয়ের ফটো থেকে ভাস্কর্য করার সুযোগ করে দিয়ে।

নিজের ও পরিবারের জীবন ধারণের জন্য তিনি নাবিকের (মেরিন ইঞ্জিনিয়ার) পেশায় রত ছিলেন। কিন্তু তার আত্মাকে
যা বাঁচিয়ে রেখেছে তা আপনারা এই সাইটে দেখছেন। তার কাজ রয়েছে ব্যক্তিগত সংগ্রহে নানান দেশে যেমন আমেরিকা, গ্রেট
ব্রিটেন, ফিলিপাইনস, অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর, পর্তুগাল ইত্যাদি। শিল্পী ও তাঁর স্ত্রী সাগরিকা থাকেন কলকাতায়।
e-mail: srimilansengupta@yahoo.co.in
লেডি রানু মুখার্জীর
সাথে মিলন সেনগুপ্ত
আকাদেমি অফ ফাইন আর্টস, কলকাতা
জুলাই ১৯৯১
ভাস্কর পরিচিতি
গ্যালারি কাতায়ুন,
কলকাতা, ফেব্রুয়ারী
১৯৯৯
HOME
HOME BANGLA
এখানে কোনো কাজই দেখে নকল করা নয় |

চক ভাস্কর্য সাধারণ বোর্ডের উপর লেখার চক খোদাই
করে তৈরী করা হয়, তাই মাত্র এক থেকে আড়াই ইঞ্চি
লম্বা হয় |
আপনি এখানে চক ভাস্কর্যের
অতি বর্ধিত ছবি দেখছেন |
একটি মূর্তি তৈরী করতে সাত থেকে আট ঘন্টা সময়
লাগে |  একটি ব্লেড এবং একটি সূঁচই হল এই কাজের
মূল উপকরণ |

এর মধ্যে অনেক মূর্তিই ব্যক্তিগত সংগ্রহে
রক্ষিত রয়েছে |

শিল্পী আর চক ভাস্কর্য বিক্রী না করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ
করেছেন এবং যদি সম্ভব হয় তবে আগামী দিনে
কলকাতা শহরে একটি স্থায়ী প্রদর্শনী করার কথা
ভাবছেন |

চক ভঙ্গুর মাধ্যম বলে খোদাই পর্ব শেষ করার পর
মুর্তিটিকে শক্ত করার প্রক্রিয়া সারতে হয় |
শিল্পীর কাছে প্রায় ৩৫ - ৪০ বছরের পুরানো চক ভাস্কর্য
খুব ভাল অবস্থায় রয়েছে |

শিল্পীর কাজ দেখে যদি দর্শক বন্ধুদের মনে একটুও
আনন্দ আসে তাহলেই এর সার্থকতা | শিল্পী তাঁর চার
পাশের জগৎ থেকেই শিল্পের সৃষ্টি করেন | তাই তাঁর
কাজ তাঁর জীবনের নানা অভিজ্ঞতারই প্রতিফলন |
শ্রী রুসি মোদী,  গ্যালারি কাতায়ুন, ১৫ মার্চ ১৯৯৯
খ্যতনামা শিল্পী ও শিল্প-গুরু শ্রী সুরজিত দাস, বিড়লা একাডেমি, এপ্রিল ২০০১
খ্যতনামা শিল্পীশ্রী ফাল্গুনী দাশগুপ্ত, চক ভাস্কর্যের গুরু, সোনার বাংলা হোটেলে আয়োজিত তাঁরই একটি প্রদর্শনীতে
শিল্প-গুরুশ্রী গৌরপদ গোস্বামী, শিল্পীর প্রদর্শনীতে, গ্যালারি কাতায়ুন  
খ্যতনামা শিল্পী ও শিল্প-গুরু,শ্রী সুরজিত দাস, বিড়লা একাডেমি, এপ্রিল ২০০১
শিল্পী শ্রী রুসি মোদীর সঙ্গে, গ্যালারি কাতায়ুন,১৫ মার্চ ১৯৯৯
শ্রী রুসি মোদী,  গ্যালারি কাতায়ুনে, শিল্পীর একটি প্রদর্শনী উদ্বোধন করছেন,১৫ মার্চ ১৯৯৯
শিল্পী তাঁর মা ও কন্যার সঙ্গে সিটিকেবল টিভি চ্যানেল দ্বারা সাক্ষাত্কাররত
শিল্প-গুরুশ্রী সুরজিত দাস, তাঁর নিজের প্রতিকৃতি দেখছেন বিড়লা একাডেমি, এপ্রিল ২০০১
বিড়লা একাডেমিতে আয়োজিত শিল্পীর একটি প্রদর্শনীতে দর্শকগণ,এপ্রিল ২০০১
বিড়লা একাডেমিতে আয়োজিত শিল্পীর একটি প্রদর্শনী,এপ্রিল ২০০১
বিড়লা একাডেমিতে আয়োজিত শিল্পীর প্রদর্শনীতে, শিল্পী ও শিল্পরসিক শ্রীমতী কাতায়ুন সাকলাতএপ্রিল ২০০১
শিল্পী ও কন্যা সাগরকন্যাতাঁদের নিজেদের মূর্তি দেখছেন, বিড়লা একাডেমি, এপ্রিল২০০১
শিল্পীর প্রদর্শনীতে, শিল্পী ও শিল্পরসিক শ্রীমতী কাতায়ুন সাকলাত চকে দুর্গা দেখছেনএপ্রিল ২০০১
শিল্প সমালোচক ও বিশেষজ্ঞ শ্রী প্রশান্ত দাঁ-র সঙ্গে শিল্পী, গ্যালারি কাতায়ুন, ১৫ মার্চ ১৯৯৯
বিড়লা একাডেমিতে আয়োজিত শিল্পীর প্রদর্শনীতে, শিল্পী ও শিল্পরসিক শ্রীমতী কাতায়ুন সাকলাতএপ্রিল ২০০১
Viewers at the Exhibition, Birla Academy 2001
খ্যতনামা শিল্পী ও
শিল্প-গুরু
শ্রী সুরজিত দাস,
বিড়লা একাডেমি,
এপ্রিল ২০০১
শ্রী রুসি মোদীর
সাথে মিলন সেনগুপ্ত
গ্যালারি কাতায়ুন, কলকাতা
মার্চ ১৯৯৯
শ্রী রুসি মোদী,  
গ্যালারি কাতায়ুন,
১৫ মার্চ ১৯৯৯
খ্যতনামা শিল্পী
শ্রী ফাল্গুনী দাশগুপ্ত, চক
ভাস্কর্যের গুরু, সোনার
বাংলা হোটেলে আয়োজিত
তাঁরই একটি প্রদর্শনীতে
শিল্প-গুরু
শ্রী গৌরপদ গোস্বামী,
শিল্পীর প্রদর্শনীতে,
গ্যালারি কাতায়ুন  
খ্যতনামা শিল্পী ও
শিল্প-গুরু,
শ্রী সুরজিত দাস,
বিড়লা একাডেমি,
এপ্রিল ২০০১
শ্রী রুসি মোদীর সঙ্গে
শিল্পী, গ্যালারি
কাতায়ুন,
১৫ মার্চ ১৯৯৯
শ্রী রুসি মোদী,  
গ্যালারি কাতায়ুনে,
শিল্পীর একটি প্রদর্শনী
উদ্বোধন করছেন,
১৫ মার্চ ১৯৯৯
শিল্পী তাঁর মা ও
কন্যার সঙ্গে
সিটিকেবল টিভি
চ্যানেল দ্বারা
সাক্ষাত্কাররত
শিল্প-গুরু
শ্রী সুরজিত দাস,
তাঁর নিজের প্রতিকৃতি
দেখছেন বিড়লা
একাডেমি, এপ্রিল২০০১
বিড়লা একাডেমিতে
আয়োজিত শিল্পীর
একটি প্রদর্শনীতে
দর্শকগণ,
এপ্রিল ২০০১
বিড়লা একাডেমিতে
আয়োজিত শিল্পীর
একটি প্রদর্শনী,
এপ্রিল ২০০১
বিড়লা একাডেমিতে
আয়োজিত শিল্পীর
প্রদর্শনীতে, শিল্পী ও
শিল্পরসিক শ্রীমতী
কাতায়ুন সাকলাত
এপ্রিল ২০০১
শিল্পী ও কন্যা সাগরকন্যা
তাঁদের নিজেদের মূর্তি
দেখছেন, বিড়লা
একাডেমি, এপ্রিল২০০১
শিল্পীর প্রদর্শনীতে, শিল্পী
ও শিল্পরসিক শ্রীমতী
কাতায়ুন সাকলাত চকে
দুর্গা দেখছেন
এপ্রিল ২০০১
শিল্প সমালোচক ও
বিশেষজ্ঞ শ্রী প্রশান্ত
দাঁ-র সঙ্গে শিল্পী,
গ্যালারি কাতায়ুন, ১৫
মার্চ ১৯৯৯
বিড়লা একাডেমিতে
আয়োজিত শিল্পীর
প্রদর্শনীতে, শিল্পী ও
শিল্পরসিক শ্রীমতী
কাতায়ুন সাকলাত
এপ্রিল ২০০১
শিল্পী ও কন্যা সাগরকন্যা,
বিড়লা একাডেমি,
এপ্রিল২০০১
বিড়লা একাডেমিতে
আয়োজিত শিল্পীর
একটি প্রদর্শনীতে
দর্শকগণ,
এপ্রিল ২০০১